চট্টগ্রামে গণতান্ত্রিক যুব ফোরাম নেতা অপহরণের অভিযোগ

0
2

চট্টগ্রাম প্রতিনিধি, িসিএইচটিনিউজ.কম
চট্টগ্রামে গণতান্ত্রিক যুব ফোরামের নেতাকে অপহরণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। গণতান্ত্রিক যুব ফোরামের কেন্দ্রীয় দপ্তর সম্পাদক নিকোলাস চাকমার স্বাক্ষরিত এক বিবতিতে এ অপহরণের জন্য জেএসএস-এর সন্তু গ্রুপকে দায়ী করা হয়েছে। বিবৃতিতে দাবি করা হয়, গত ২৩ এপ্রিল ২০১১, শনিবার, রাত ৮টার সময় সন্তু গ্রুপের সদস্যরা চট্টগ্রামের দেওয়ান হাটের রঙ্গিপাড়া থেকে গণতান্ত্রিক যুব ফোরামের চট্টগ্রাম মহানগর শাখার সদস্য লেনিন চাকমাসহ তিন জনকে অপহরণ করে

লেলিন চাকমার পিতার নাম সুবাস বসু চাকমা। স্থায়ী ঠিকানা খাগড়াছড়ি জেলার দীঘিনালা উপজেলাধীন বেতছড়ির বিউটি রঞ্জন কার্বারী পাড়া৷ তিনি দেওয়ান হাটে ফোর এস ফ্যাশন নামে একটি ফ্যক্টরিতে চাকুরী করেন এবং মিস্ত্রি পাড়ায় মিনহাজ ভবনে থাকেন।

বিবৃতিতে আরো বলা হয়, রামগড় হামলায় ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য ত্রাণ সংগ্রহের জন্য তিনি গত ২২ এপ্রিল শুক্রবার তার কয়েকজন বন্ধুসহ রঙ্গিপাড়ায় যান৷ তখন জেএসএস সন্তু গ্রুপের সদস্য জুনান চাকমা ও অজয় চাকমা তাদের বলেন যে তাদেরকে কষ্ট করে ঘরে ঘরে গিয়ে ত্রাণ তুলতে হবে না৷ তারা (জুনান ও অজয়) নিজেরাই ত্রাণ তুলে দেবেন ও উত্তোলনের কাজ শেষ হলে তাদের খবর দেবেন৷ তাদের কথায় বিশ্বাস করে লেনিনরা ফিরে আসেন। পরদিন অর্থাত্‍ ২৩ এপ্রিল জুনান ও অজয় তাদেরকে মোবাইলে ফোন করে জানায় যে ত্রাণ তোলা শেষ হয়েছে এবং ত্রাণ সামগ্রীগুলো তারা নিয়ে যেতে পারেন৷ এরপর লেনিন কালায়ে চাকমা ও সুইলাপ্রু খিয়াং-কে নিয়ে রঙ্গিপাড়ায় যান৷ কালায়ে চাকমা মনসুরাবাদে নিভিয়া সুইটার ফ্যক্টরিতে ও সুইলাপ্রু খিয়াং লেনিনের সাথে একই ফ্যক্টরিতে চাকরী করেন। প্রথমোক্তের বাড়ি দীঘিনালার মধ্য বোয়ালখালি এবং শেষোক্তের বাড়ি বান্দরবান।কথামত রঙ্গিপাড়ায় গেলে জুনান চাকমা, অজয় চাকমা, সুমন চাকমা ও ইন্দ্র মনি চাকমাসহ সন্তু গ্রুপের ১০-১২ জন সন্ত্রাসী তাদেরকে জোর করে ফ্রিপোর্টের একটি বাড়িতে নিয়ে যায় ও তাদের সবার মোবাইল জব্দ করে৷ পরে ২৪ এপ্রিল দুপুর ১২টায় কালায়ে চাকমা ও সুইলাপ্রু খিয়াংকে ছেড়ে দেয়া হলেও লেনিন চাকমাকে এখনো জিম্মি করে রাখা হয়েছে।

অপহরণকারী জুনান চাকমা ও অজয় চাকমার বাড়ি দীঘিনালার শান্তিপুর গ্রামে। জুনান চাকমার সাথে লেনিনের পূর্ব পরিচয় ছিল। এক সময় তারা একই রুমে ভাড়া থাকতেন। অপরদিকে, সুমন চাকমার স্থায়ী ঠিকানা রাঙামাটি জেলার সুবলঙের ইন্দ্রমাছড়া। সে চট্টগ্রামের বন্দর থানায় পূর্ণিমা বিল্ডিংএ থাকে।

অপহরণের পর তার স্ত্রী স্বপ্না চাকমা ডবলমুরিং থানায় একটি জিডি করেন। এসআই শাহাজাহান (মোবাইল নং: ০১৭২০৬৫১৯৪১) তার অভিযোগ রেকর্ড করেন। আজ এ ব্যাপারে সরাসরি মামলা দায়ের করা হবে।

গণতান্ত্রিক যুব ফোরাম কেন্দ্রীয় সভাপতি নতুন কুমার চাকমা ও চট্টগ্রাম মহানগর শাখার সভাপতি জিকো মারমা এক যুক্ত বিবৃতিতে উক্ত অপহরণ ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে অবিলম্বে লেনিন চাকমার মুক্তি দাবি করেছেন।

তারা লেনিন চাকমাকে উদ্ধার ও অপহরণকারী সন্তু গ্রুপের সদস্যদের বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ গ্রহণের জন্যও প্রশাসনের কাছে দাবি জানান।

তারা বলেন, সন্তু গ্রুপের সন্ত্রাসীরা অতীতেও চট্টগ্রামে অনেককে অপহরণ ও মারধর করেছে। কিন্তু তারপরও তাদের বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা নেয়া হয়নি বলে আজ তাদের এমন পোয়াবোরো হয়েছে। খবর : প্রেস বিজ্ঞপ্তি।


Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.