চট্টগ্রামে পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ ও যুব ফোরামের বিক্ষোভ সমাবেশ

0
1

চট্টগ্রাম : “যৌন নিযার্তন ও সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ান” এই শ্লোগানে রাউজানে ওয়ারা উঞাঞা বৌদ্ধ অনাথ আশ্রমে ৭ম শ্রেণীর ছাত্রী মারমা কিশোরীকে ধর্ষণের পর হত্যা এবং রাঙামাটির কাউখালীতে সেটলার মোঃ শাকিব কর্তৃক দুই সন্তানের জননীকে এক মারমা নারীকে ধর্ষণের প্রতিবাদে চট্টগ্রাম নগরীতে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে বৃহত্তর পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ (পিসিপি) ও গণতান্ত্রিক যুব ফোরাম।

আজ বুধবার (১১ জুলাই) বিকাল ৩টায় মিছিলটি ডিসি হিল প্রাঙ্গণ থেকে শুরু হয়ে নগরীর গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে প্রেসক্লাব চত্বরে গিয়ে এক বিক্ষোভ সমাবেশে মিলিত হয়।

ছাত্র নেতা মিটন চাকমার সঞ্চালনায় গণতান্ত্রিক যুব ফোরামে নগর শাখার সহ-সভাপতি উচিংশৈ চাক (শুভ)’র সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন বৃহত্তর পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি সুনয়ন চাকমা ও পালি বিভাগের শেষ বর্ষের ছাত্র উজ্জ্বল চৌধুরী। এছাড়া সংহতি জানিয়ে বক্তব্য রাখেন পার্বত্য চট্টগ্রাম মানবিক কল্যাণ সংঘের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি জ্যোতিসারা ভিক্ষু।

জ্যোতিসারা ভিক্ষু বলেন, সম্প্রতি রাউজানে ওয়ারা উঞাঞা বৌদ্ধ অনাথ আশ্রম পরিদর্শন করতে গিয়ে ভয়ানক অবস্থা দেখতে পেয়েছি। সেখানে অধ্যায়নরত ছাত্র/ছাত্রীরা মানবেতর জীবন যাপন করছে। ৭ম শ্রেণীর ছাত্রী অংমেচিং মারমাকে ধর্ষণের পর হত্যার যাবতীয় প্রমানাদি প্রশাসনকে হস্তান্তর করার পরও প্রশাসন কোন ভূমিকা নেয়নি বলে তিনি অভিযোগ করেন।

বক্তারা আরো বলেন পার্বত্য চট্টগ্রামে পাহাড়ি জাতিসত্তাসমূহের ন্যায্য অধিকার আন্দোলনকে দমন করতে শাসকগোষ্ঠী ধর্ষণকে হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করছে। ফলে কল্পনা চাকমা অপহরণ থেকে শুরু করে পার্বত্য চট্টগ্রামে নিত্যনৈমিত্তিক ধর্ষণ ও নারী নিপীড়নের ঘটনা ঘটার সত্ত্বেও অপরাধীরা পার পেয়ে যাচ্ছে। সম্প্রতি রাউজানে অনাথ আশ্রমে কিশোরী ধর্ষণের পর হত্যা ও কাউখালীতে দুই সন্তানের জননী এক মারমা নারীকে ধর্ষণ তার অন্যতম দৃষ্টান্ত বলে বক্তারা উল্লেখ করেন।

বক্তারা অবিলম্বে রাউজানে মারমা কিশোরী ধর্ষণের পর হত্যা ও কাউখালীতে দুই সন্তানের জননী ধর্ষণসহ পার্বত্য চট্টগ্রামে এই যাবত সংঘটিত সকল নারী নিপীড়নের বিচারের জোর দাবি জানান।
———————-
সিএইচটিনিউজ ডটকম’র প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ব্যবহারের প্রয়োজন দেখা দিলে যথাযথ সূত্র উল্লেখপূর্বক ব্যবহার করুন।


Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.