চট্টগ্রামে বকেয়া পাওনার দাবিতে আমিন জুট মিলের শ্রমিকদের অবরোধ

0
12

চট্টগ্রাম ।। চট্টগ্রামে বকেয়া পাওনা পরিশোধ ও পাটকল চালুর দাবিতে মিল গেইট অবরোধ কর্মসূচি পালন করেছে আমিন জুট মিলের শ্রমিকরা।

আজ বৃহস্পতিবার (২৪ জুন) সকাল ৮টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত শ্রমিক কৃষক ছাত্র জনতা ঐক্যের উদ্যোগে শ্রমিকরা মিলের গেইটে অবস্থান নিয়ে অবরোধ করেন।

এ সময় অনুষ্ঠিত সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন শ্রমিক কৃষক ছাত্র জনতা ঐক্যের আহবায়ক এড: আমির আব্বাস। বক্তব্য রাখেন গণমুক্তি ইউনিয়ন চট্টগ্রাম জেলা সভাপতি রাজা মিয়া, সাম্যবাদী আন্দোলনের চট্টগ্রাম জেলা নেতা সত্যজিৎ বিশ্বাস, গণতান্ত্রিক ছাত্র কাউন্সিলের সংগঠক শাহ মোহাম্মদ শিহাব,বদলি শ্রমিক সংগ্রাম পরিষদ নেতা মো. তানসেন, শ্রমিক নেতা মো.হানিফ।

বক্তারা বলেন, রাষ্ট্রায়ত্ত ২৬টি পাটকলের বন্ধ করার সময় দুই মাসের মধ্যে সকল শ্রমিকদের পাওনা পরিশোধ করে মিলগুলোকে আধুনিকায়ন করে পুনরায় চালু করার ঘোষণা দেয় সরকার। বদলি ও অস্থায়ী শ্রমিকদের পাওনা পরিশোধ এখনো শুরুই করা হয়নি। কবে নাগাদ পরিশোধ করা হবে তার সুনির্দিষ্ট সময় জানাতে ব্যর্থ বিজেএমসি ও পাটমন্ত্রী।

বক্তারা বলেন,  বিশেষ করে এই এক বছরে বদলি শ্রমিকেরা দুর্বিষহ জীবন যাপন করছে। এদের অধিকাংশ বেকার, যারা বাসা ভাড়া যোগাড় করতে পারছে না, না খেয়ে, বিনা চিকিৎসায় অর্থাভাবে মৃত্যুবরণ করছে। তাদের সন্তানদের শিক্ষা জীবন অনিশ্চিত। চরম হতাশায় এই শ্রমিকেরা দিন পার করছে। পাটকল চালুসহ পাওনা পরিশোধের দাবিতে গত একবছর ধরে মানব বন্ধন, শ্রমিক সমাবেশ, বিজেএমসি কার্যালয় ঘেরাওসহ আমরা বিভিন্ন কর্মসুচি পালন করেছি। কিন্তু  আজও কর্তৃপক্ষ আমাদের দাবির ব্যাপারে বিন্দুমাত্র কর্ণপাত করেনি।

নেতৃবৃন্দ বলেন, কাদের দোষে, কি কারণে প্রতিষ্ঠানগুলো লোকসানি হলো তা বের করার জন্য সরকার কোন পদক্ষেপ নিতে দেখা যাচ্ছে না। সরকার বন্ধের সময় ঘোষণা করেছিল, আধুনিকায়ন করে দ্রুত সময়ের মধ্যে পাটকল চালু করা হবে। ইতোমধ্যে পত্রিকা মারফত আমরা জেনেছি যে, বিজেএমসিকে তদারকি সংস্থায় রূপান্তর করে, পাটকলগুলো ব্যবসায়িক গোষ্ঠীর হাতে তুলে দেয়া হবে। এর মধ্য দিয়ে বিজেএমসির মাথাভারী প্রশাসন সরকারের শ্বেতহস্তীর মতো পুষতে হবে; অন্যদিকে মিলগুলো বেসরকারি মালিকদের লুন্ঠনের জায়গায় পরিণত হবে। তাই বেসরকারীকরণ নয়, বরং দেশের বিশেষজ্ঞ, শ্রমিক সংগঠন, বুদ্ধিজীবীদের সমন্বয়ে সুষ্ঠু নীতি প্রণয়ন করে পাটকল চালু করতে হবে।

দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলনের ঘোষণা দিয়ে নেতৃবৃন্দ জানান, ২৮ জুন জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে স্মারকলিপি পেশ ও ৩০ জুন ঢাকায় কেন্দ্রীয় সমাবেশ  ও পরবর্তী কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে। (প্রেস বিজ্ঞপ্তি)


সিএইচটি নিউজে প্রকাশিত প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ,ভিডিও, কনটেন্ট ব্যবহার করতে হলে কপিরাইট আইন অনুসরণ করে ব্যবহার করুন।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.