চট্টগ্রামে ভাষা শহীদদের প্রতি পিসিপি’র শ্রদ্ধা

0
3

চট্টগ্রাম : ”চাকমা, মারমা, ত্রিপুরাসহ সকল সংখ্যালঘু জাতির মাতৃভাষা সংরক্ষণ ও বিকাশের জন্য কার্যকরী পদক্ষেপ গ্রহণ কর” এই দাবিকে সামনে রেখে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস-২০১৮ উপলক্ষে ৫২’র ভাষা আন্দোলনে সকল ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেছে বৃহত্তর পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ (পিসিপি) চট্টগ্রাম মহানগর শাখা।

আজ ২১শে ফেব্রুয়ারি, বুধবার সকাল ৯টায় নগরীর ডিসি হিল প্রাঙ্গন থেকে র‌্যালি সহকারে পিসিপির নেতাকর্মীরা শহীদ মিনারে শ্রদ্ধা নিবেদন করে। এসময় গণতান্ত্রিক যুব ফোরাম ও হিল উইমেন্স ফেডারেশনের কয়েকজন নেতা-কর্মীও উপস্থিত ছিলেন। শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে নগরীর রাইফেলস্ ক্লাবের সামনে এক সংক্ষিপ্ত সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। এতে বক্তব্য রাখেন, পিসিপি নগর শাখার সভাপতি পলাশ চাকমা ও যুব ফোরামের সভাপতি থুইক্যচিং মারমা।

বাংলাদেশ বহু জাতিক, বহুভাষিক দেশ উল্লেখ করে বক্তারা বলেন, যে দেশে ভাষা শহীদদের প্রতি সম্মান জানিয়ে ইউনেস্কো ২১শে ফেব্রুয়ারিকে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছে সেই দেশে ভাষার জন্য এখনও সংগ্রাম করতে হচ্ছে, যা শাসক শ্রেণীর জন্য খুবই লজ্জাজনক। সকল জাতিসত্তার মাতৃভাষায় প্রাথমিক শিক্ষা লাভের অধিকার নিশ্চিত না হওয়া পর্যন্ত একুশের চেতনা পুরোপুরি বাস্তবায়ন  সম্ভব নয় বলে বক্তারা মনে করেন।

বক্তারা আরও বলেন, দায়সারাভাবে শুধু ৫ টি জাতিসত্তার মাতৃভাষায় প্রাক-প্রাথমিক শিক্ষা চালু করলেই হবেনা, সঠিক পরিকল্পনা ও ব্যবস্থাপনার মাধ্যমে বই মুদ্রণ, বিতরণ, পর্যাপ্ত সংখ্যক শিক্ষক নিয়োগ ও নিয়োগকৃত শিক্ষকদের জন্য প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা চালু করতে হবে এবং সমতলে অপরাপর যে ৪০টি জাতিসত্তা রয়েছে তাদেরও নিজ মাতৃভাষায় পড়াশুনা করার অধিকার নিশ্চিত করতে হবে।

সমাবেশ থেকে বক্তারা সকল জাতিসত্তার নিজস্ব মাতৃভাষায় প্রাথমিক শিক্ষা লাভের অধিকার নিশ্চিত করাসহ বই মুদ্রণ, বিতরণ, পর্যাপ্ত সংখ্যক শিক্ষক নিয়োগ, প্রশিক্ষণ ও পার্বত্য চট্টগ্রামের ইতিহাস সম্বলিত সঠিক তথ্য পাঠ্যপুস্তকে অন্তর্ভুক্ত করার জন্য সরকারের নিকট জোর দাবি জানান।
—————–
সিএইচটিনিউজ ডটকম’র প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ব্যবহারের প্রয়োজন দেখা দিলে যথাযথ সূত্রউল্লেখপূর্বক ব্যবহার করুন।


Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.