টেকনাফে চাকমাদের উপর ভূমি দস্যুদের হামলা, আহত ৭

0
1

সিএইচটিনিউজ.কম
Teknafকক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলার হোয়াইখ্যং ইউনিয়নে দৌংগ্যকাটা গ্রামে নিজেদের জমির পাকা ধান কেটে নিয়ে যাওয়ার সময় বাধা দিতে গিয়ে স্থানীয় ভূমিদস্যু মত্তল ভূষণ (৫৭) পিতা মৃত আবুল বাশার ও তার আত্মীয়স্বজনদের হামলায় ৭জন চাকমা নারী-পুরুষ আহত হয়েছেন। আহতরা অধিকাংশই নারী।

জানা যায়, সোমবার (২৪ নভেম্বর) সকাল সাড়ে নয়টার দিকে ভূমি দস্যু মত্তল ভূষণ তার আত্মীয়স্বজন ও ভাড়াটিয়া লোক নিয়ে চাকমাদের রোপন করা জমি থেকে পাকা ধান কাটতে যায়। এসময় জমির মালিক যন্ত্রবী চাকমা (৫০), রামিচিঙ চাকমা (৩০), শিংক মালা (২৭) স্বামী ব্যাংগ্যা চাকমা, তৌচিংউ চাকমা (৪৫) স্বামী রামঙচা চাকমা, পাইঞ্য চিঙ চাকমা(২৫) স্বামী পুমঙচা চাকমা, তৈমা চাকমা(২৫) স্বামী বাইল্যা চাকমা ও উৎপল চাকমা (১৬) বাধা প্রদান করলে ভূমি দস্যুরা তাদের ওপর আক্রমণ চালায়। এতে সবাই মারাত্মক আহত হয়।

আহতদের মধ্যে শিংক মালা (২৭) স্বামী ব্যাংগ্যা চাকমা, তৌচিংউ চাকমা স্বামী রামঙচা চাকমা (৪৫), পাইঞ্য চিঙ (২৭) স্বামী পুমঙচা চাকমা (২৫), তৈমা চাকমা (২৭) স্বামী বাইল্যা চাকমা লাঠির আঘাতে মাথা ফেঁটে যায় এবং যন্ত্রবী চাকমার এখনো জ্ঞান ফেরেনি।

আহতদের প্রথমে টেকনাফ হাসপাতালে ভর্তি করার জন্য নিয়ে যাওয়া হলেও আঘাত গুরুতর হওয়াতে সেখান থেকে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। বর্তমানে আহত সবাই কক্সবাজার হাসপাতলে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

উক্ত ঘটনায় পার্বত্য চট্টগ্রামের আট গণসংগঠনের কনভেনিং কমিটি সোমবার সংবাদ মাধ্যমে প্রদত্ত এক বিবৃতিতে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন এবং এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন।

নেতৃবৃন্দ অবিলম্বে টেকনাফে চাকমা জাতিসত্তার ভূমি বেদখল বন্ধ, ভূমিদস্যু ও হামলাকারী মত্তল ভূষণ এবং তার দোসরদের গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান।

বিবৃতিতে স্বাক্ষর করেন গণতান্ত্রিক যুব ফোরামের কেন্দ্রীয় সভাপতি মাইকেল চাকমা, হিল উইমেন্স ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় সভাপতি নিরূপা চাকমা, পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের কেন্দ্রীয় সভাপতি থুইক্যচিং মারমা, পার্বত্য চট্টগ্রাম নারী সংঘের সভাপতি সোনালী চাকমা, সাজেক নারী সমাজের সভাপতি নিরূপা চাকমা (২), সাজেক ভূমি রক্ষা কমিটির সভাপতি জ্ঞানেন্দু চাকমা, ঘিলাছড়ি নারী নির্যাতন প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি কাজলী ত্রিপুরা ও প্রতিরোধ সাস্কৃতিক স্কোডের সদস্য সচিব আনন্দ প্রকাশ চাকমা।
————-

সিএইচটিনিউজ.কম’র প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ব্যবহারের প্রয়োজন দেখা দিলে যথাযথ সূত্র উল্লেখপূর্বক ব্যবহার করুন।


Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.