তাইন্দং এ পাহাড়ি গ্রামে সেটলার হামলার প্রতিবাদে নান্যাচর ও কুদুকছড়িতে বিক্ষোভ

0
1
রাঙামাটি প্রতিনিধি
সিএইচটিনিউজ.কম
 
খাগড়াছড়ি জেলার মাটিরাঙ্গার তাইন্দং-এ পাহাড়ি গ্রামে সেটলার হামলা, লুটপাট, অগ্নিসংযোগ ও খুনের নিন্দা ও প্রতিবাদে আজ ৪ আগস্ট রবিবার রাঙামাটির নান্যাচর ও কুদুকছড়িতে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।নান্যাচর: দুপুর দেড়টার দিকে নান্যাচরে নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিদের নেতৃত্বে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। নান্যাচরের সর্বস্তরের কয়েক শ’নারী পুরুষ এতে অংশ নেন। নান্যাচর উপজেলা মাঠে উপজেলা চেয়ারম্যান প্রীতি ময় চাকমার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন সাবেক্ষ্যং ইউপি চেয়ারম্যান সুপন চাকমা, ২ নং নান্যাচর ইউপি চেয়ারম্যান বিনয় কৃঞ্চ খীসা, নান্যাচর ইউপি সদস্য সেন্টু চাকমা ও পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ নান্যাচর থানা শাখার সহসভাপতি রিপন আলো চাকমা।

সমাবেশের আগে একটি মিছিল বের করা হয়। মিছিলটি উপজেলা মাঠ থেকে শুরু হয়ে নান্যাচর বাজার প্রদক্ষিণ করে আবার উপজেলা মাঠে ফিরে আসে।

সমাবেশে বক্তারা তাইন্দং এ পাহাড়ি গ্রামের সেটলারদের বর্বরোচিত হামলার নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান। তারা বলেন পার্বত্য চট্টগ্রামে পাহাড়িরা ন্যায় বিচার থেকে বঞ্চিত। বছরের পর বছর ধরে তাদের উপর চরম অত্যাচার নির্যাতন চালানো হচ্ছে। ১৯৯৩ সালে নান্যাচর গণহত্যাসহ এ যাবত পাহাড়িদের বিরুদ্ধে সংঘটিত গণহত্যা ও সাম্প্রদায়িক হামলার কোন বিচার না হওয়ায় তাইন্দং এর মতো ঘটনা বার বার ঘটছে। নেতৃবৃন্দ তাইন্দং এ হামলার সাথে জড়িত সেটলারদের গ্রেফতার পরে যথোপযুক্ত শাস্তি, ক্ষতিগ্রস্ত পাহাড়িদের ক্ষতিপূরণ, তাদের জানমালের নিরাপত্তার গ্যারান্টি প্রদান ও ভারতে আশ্রিতদের সম্মানের সাথে ফিরিয়ে আনার দাবি জানান।
কুদুকছড়ি : তাইন্দং-এ সেটলার হামলার প্রতিবাদে কুদুকুছড়িতে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ। দুপুর ১টায় বড় মহাপুরম উচ্চ বিদ্যালয় গেটের সামনে থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল শুরু হয়ে কুদুকছড়ি বাজার প্রদক্ষিণ করে ইউপিডিএফ কার্যালয়ের সামনে এক প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের রাঙামাটি জেলা কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক বাবলু চাকমা এতে বক্তব্য রাখেন।
তিনি অভিযোগ করে বলেন, তাইন্দং এলাকায় প্রতিনিয়ত সেটলার কর্তৃক পাহাড়িদের উপর হামলার ঘটনা ঘটলেও প্রশাসন এর কোন বিহীত ব্যবস্থা গ্রহণ করেনি। ফলে সেটলাররা এ ধরনের বর্বর ও ন্যাক্কারজনক হামলা চালাতে উসাহিত হয়েছে।তিনি অবিলম্বে হামলাকারী সেটলারদের গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি, পালিয়ে যাওয়া পাহাড়ি পরিবারগুলোকে পূর্ণ নিরাপত্তা দিয়ে নিজ নিজ গ্রামে ফিরিয়ে আনা ও ক্ষতিগ্রস্তদের যথাযথ ক্ষতিপূরণের দাবি জানান।


Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.