ইতি চাকমা খুনের প্রতিবাদে ও খুনীদের গ্রেফতারের দাবিতে

তিন পার্বত্য জেলায় ক্লাশ বর্জন ও কালো ব্যাজ ধারণ কর্মসূচি পালন করেছে ৫ নারী সংগঠন

0
1

Khagrachari Gov Collage (2)

নিজস্ব প্রতিবেদক : পার্বত্য চট্টগ্রামের ৫ নারী সংগঠনের আহ্বানে কলেজ ছাত্রী ইতি চাকমাসহ তনু-থুইম্রা চিং-সবিতা চাকমা খুনের প্রতিবাদে ও খুনীদের গ্রেফতারের দাবিতে তিন পার্বত্য জেলায় বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ক্লাশ বর্জন ও কালো ব্যাজ ধারণ কর্মসূচি সেনা-বিজিবি’র হামলা-হুমকি সত্ত্বেও সফলভাবে সম্পন্ন হয়েছে। তিন পার্বত্য জেলার বিভিন্ন স্কুল ও কলেজে আজ ২৯ মার্চ ২০১৭, বুধবার সকাল ১০ টা থেকে ১১টা পর্যন্ত একঘন্টাব্যাপী এই কর্মসূচির আয়োজন করা হয়। উক্ত কর্মসূচিতে কলেজ ও স্কুলের ছাত্র-ছাত্রীদের স্বতঃস্ফুর্ত অশগ্রহণ ছিল লক্ষ্যণীয়। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসমূহে শিক্ষার্থীরা শুধু ক্লাশ বর্জন করে বসে থাকেনি, ব্যানার ও প্ল্যাকার্ড হাতে স্ব স্ব স্কুল কলেজের মাঠে ঘন্টাব্যাপী দাঁড়িয়ে থেকে তারা ইতি চাকমা হত্যার প্রতিবাদ জানায়। শিক্ষার্থীগণ ইতি চাকমার খুনীদের গ্রেফতার কর, তনু-থুইম্রাচিং-সবিতা চাকমা খুনের বিচার কর, কল্পনা চাকমা অপহরণকারীদের গ্রেফতার কর, শাস্তি দাও, নারীদের নিরাপত্তা দিতে হবে, জীবনের নিরাপত্তা ও মর্যাদা রক্ষার্থে সংগঠিত হোন, লড়াই করুন ইত্যাদি প্রতিবাদী শ্লোগান প্রদান করে। এসময় ছাত্র-ছাত্রী, শিক্ষক ও সংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন।

খাগড়াছড়ি জেলার খাগড়াছড়ি সরকারি কলেজ, খাগড়াছড়ি সরকারি মহিলা কলেজ, সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, কলেজিয়েট উচ্চ বিদ্যালয়, আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়, পানছড়ি কলেজ, পুজগাঙ উচ্চ বিদ্যালয়, দিঘীনালা বাবুছড়া উচ্চ বিদ্যালয়, মহালছড়ি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ও মহালছড়ি কলেজসহ খাগড়াছড়ি জেলায় সর্বমোট ৪০ এর অধিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ক্লাশ বর্জন ও কালো ব্যাজ ধারণ কর্মসূচি সফল হয়েছে।

IMG_20170329_100810

রাঙামাটিতে বড় মহাপ্রুম উচ্চ বিদ্যালয়, বন্দুকভাঙা উচ্চ বিদ্যালয়, সাপছড়ি উচ্চ বিদ্যালয়, হারিক্ষ্যঙ উচ্চ বিদ্যালয়, নান্যাচর কলেজ, কাউখালী কলেজ, কাউখালী পোয়াপাড়া সদর উচ্চ বিদ্যালয়সহ সর্বমোট ৩০ এর অধিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে কর্মসূচি সফল হয়েছে।

বান্দরবান জেলার আইডিয়াল বিদ্যালয়, বান্দরবান টেক্সটাইল ভোকেশনাল ইনসটিটিউট ও বিলকিশ বেগম উচ্চ বিদ্যালয়েও ইতি-তনু-থুইম্রারাচিং-সবিতা খুনের প্রতিবাদহ বিভিন্ন দাবিতে ক্লাশ বর্জন ও কালো ব্যাজ ধারণ কর্মসূচি সফল হয়েছে।

এদিকে ইতি চাকমা খুনের প্রতিবাদে রাঙামাটির বাঘাইছড়ি উপজেলার সাজেক বাঘাইহাট উচ্চ বিদ্যালয়ে ক্লাশ বর্জন কর্মসূচি আয়োজন করার প্রাক্কালে বাঘাইহাট সেনা জোন থেকে কর্মসূচি করা যাবে না বলে হুমকি দেয়া হয়। বাঘাইহাট জোনের এফআই ফিরোজ সাজেক নারী সমাজের সভাপতি নিরুপা চাকমা ও বাঘাইহাট উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শাক্যবোধি চাকমাকে মোবাইলের মাধ্যমে হুমকি দিয়ে বলে, কোনো ধরণের ক্লাশ বর্জন ও কালো ব্যাজ ধারণ কর্মসূচি করা হলে ‘পদক্ষেপ’ নেয়া হবে।

17619395_1754055228258354_1601594191_n

রাঙামাটি সদরের বড় মহাপ্রুম উচ্চ বিদ্যালয়ে সেনাবাহিনী ও পুলিশ হুমকিমূলক সাজসজ্জ্বা গ্রহণ করে ভয়ভীতি দেখানো সত্ত্বেও  ছাত্রছাত্রীরা ভয়ভীতি উপেক্ষা করে  কর্মসূচি সফর করেছে। এছাড়া রামগড় বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে কর্মসূচি পালন করার প্রস্তুতি নেয়ার সময় গণতান্ত্রিক যুব ফোরাম রামগড় উপজেলা শাখার সভাপতি বাবু মারমা ও পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ রামগড় সরকারি ডিগ্রী কলেজ শাখার সদস্য টিটো চাকমাকে রামগড় দপ্তরের বিজিবি’র একটি টিম এসে বাধা দেয় এবং তাদের মারধর করে কর্মসূচি ভন্ডুল করে দেয়। এ সময় তারা কর্মসূচির ব্যানার ও প্ল্যাকার্ড কেড়ে নেয়। এছাড়াও খাগড়াছড়ি সদরের বিভিন্ন স্কুল কলেজে কর্মসূচি পালন করার সময় সেনাবাহিনী অতিরিক্ত টহল দিয়ে ছাত্রছাত্রীদের মধ্যে আতংক সৃষ্টির চেষ্টা করলেও ছাত্র-ছাত্রীরা সফলভাবে কর্মসূচি সফল করতে সক্ষম হয়েছে বলে সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।

তিন পার্বত্য জেলার বিভিন্ন উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজসমূহের হাজারো ছাত্র-ছাত্রী স্বতঃস্ফূর্তভাবে ক্লাশ বর্জন ও কালো ব্যাজ ধারণ করায় ৫ নারী সংগঠনের পক্ষ থেকে হিল উইমেন্স ফেডারেশনের সভাপতি নিরুপা চাকমা অংশগ্রহণকারী সকলের প্রতি আন্তরিক ধন্যবাদ ও অভিনন্দন জ্ঞাপন করেছেন। তিনি বলেন, নারীদের নিরাপত্তার কথা ভেবে আমরা শংকিত না হয়ে পারি না। নারী নির্যাতন খুন ইত্যাদি অপরাধ সংঘটিত হবার পরে অপরাধীদের গ্রেপ্তার করা ও তাদের বিচার করার দীর্ঘ সূত্রিতার কারণে  অপরাধীরা আরো বেশি অপরাধ সংঘটিত করার সুযোগ পাচ্ছে। গত ২৭ মার্চ ইতি চাকমা খুন হবার পরে উগ্র সাম্প্রদায়িক একটি অংশ খাগড়াছড়ি কলেজের বাঙালি ছাত্র-ছাত্রীদের প্রতিবাদ সমাবেশে যেতে বাধা প্রদান করেছে। এছাড়া গত ২৩ মার্চ ২০১৭ খাগড়াছড়ি সরকারি কলেজের কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করার কারণে সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট খাগড়াছড়ি কলেজ শাখার নেতা অরিন্দম কৃষ্ণ দে, সত্যজিত সেন পিন্টুকে মারধর করা হয়েছে।

17619745_1754055141591696_50504849_n
তিনি জানান, ইতি চাকমা খুনসহ পার্বত্য চট্টগ্রামে নারীর উপর নির্যাতন বন্ধ করার দাবি জানিয়ে আগামীকাল ৫ নারী সংগঠনের পক্ষ থেকে খাগড়াছড়িতে এক সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হবে। উক্ত সম্মেলন থেকে বৃহত্তর কর্মসূচি দেয়া হবে বলে তিনি জানান।

অবিলম্বে ইতি চাকমা খুনীদের গ্রেফতার ও সাজা প্রদানপূর্বক তনু-থুইম্রা চিং-সবিতা চাকমাসহ বিভিন্ন সময়ে খুন-ধর্ষণের অপরাধীদের বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ নেয়ার দাবি, রাঙ্গামাটি ভকেশনাল টেক্সটাইল ইন্সটিটিউটের দুশ্চরিত্র প্রিন্সিপালের অপসারণসহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, সরকারি-বেসরকারি, সামরিক-বেসামরিক সংস্থায় নিয়োজিত লম্পট চরিত্রের শিক্ষক-কর্মকর্তা-কর্মচারী-জওয়ানদের চিহ্নিত করে শাস্তির দাবি, পাঠ্যপুস্তকে ভুল ও সাম্প্রদায়িক বিদ্বেষপ্রসূত অংশ বাদ দিয়ে শিক্ষার্থীদের মধ্যে ভ্রাতৃত্ববোধ গড়ে তোলার শিক্ষা দেয়ার দাবি, পার্বত্য চট্টগ্রামে সভা সমাবেশের গণতান্ত্রিক অধিকার নিশ্চিত করার দাবিসহ বিভিন্ন দাবিতে ৫ নারী সংগঠন উক্ত কর্মসূচি গ্রহণ করে।

Sapchari
পাঁচ নারী সংগঠন যথাক্রমে হিল উইমেন্স ফেডারেশন, পার্বত্য চট্টগ্রাম নারী সংঘ, নারী আত্মরক্ষা কমিটি, সাজেক নারী সমাজ ও ঘিলাছড়ি নারী নির্যাতন প্রতিরোধ কমিটি গত ১৫ মার্চ খাগড়াছড়িতে অনুষ্ঠিত ডিসি অফিসের সামনে অবস্থান ধর্মঘট ও স্মারকলিপি প্রদানের অনুষ্ঠান থেকে আজকের এই ক্লাশ বর্জন ও কালো ব্যাজ ধারণ কর্মসূচি ঘোষণা দেয়।

হিল উইমেন্স ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় দপ্তর সম্পাদক নীতি শোভা চাকমা স্বাক্ষরিত প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।
——————

সিএইচটি নিউজ ডটকম’র প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ব্যবহারের প্রয়োজন দেখা দিলে যথাযথ সূত্র উল্লেখপূর্বক ব্যবহার করুন।


Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.