দিঘীনালায় সন্তু গ্রুপের সন্ত্রাসী কর্তৃক কর্মী হত্যার ঘটনায় ইউপিডিএফের নিন্দা ও প্রতিবাদ

0
1

নিজস্ব প্রতিবেদক, সিএইচটিনিউজ.কম
UPDF flagখাগড়াছড়ির দিঘীনালায় সন্তু গ্রুপের সশস্ত্র সশস্ত্র সন্ত্রাসী কর্তৃক ব্রাশ ফায়ার করে ইউপিডিএফ সদস্য সুদৃষ্টি চাকমা(৩৫)-কে হত্যা ও আরেক সদস্য হৃদ্ধি চাকমা(৩০)-কে আহত করার ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট(ইউপিডিএফ)-এর খাগড়াছড়ি জেলা ইউনিটের সমন্বয়ক প্রদীপন খীসা।

আজ ৯ মার্চ রবিবার দুপুরে সংবাদ মাধ্যমে প্রদত্ত বিবৃতিতে তিনি বলেন, আজ সকালে সুদৃষ্টি চাকমা ও ঋদ্ধি চাকমা সাংগঠনিক কাজে বাবুছড়ার রাস্তামাথায় বের হন। তারা একটি দোকানে বসে লোকজনের সাথে কথাবার্তা বলছিলেন। এ সময় হঠাৎ করে আগে থেকে ওঁৎ পেতে থাকা সন্তু গ্রুপের সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা দোকানে ঢুকে খুব কাছ থেকে তাদেরকে লক্ষ্য করে প্রকাশ্যে ব্রাশ ফায়ার করে। এতে ঘটনাস্থলেই সুদৃষ্টি চাকমা নিহত হন এবং হৃদ্ধি চাকমা দুই পায়ে গুলিবিদ্ধ হন। আহত অবস্থায় হৃদ্ধি চাকমাকে উদ্ধার করে খাগড়াছড়ি সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

বিবৃতিতে তিনি, এ ঘটনাকে ন্যাক্কারজনক ও কাপুরুষোচিত উল্লেখ করে বলেন, পার্বত্য চট্টগ্রামের জুম্ম জনগণের ঐক্য আকাঙ্ক্ষাকে নস্যাৎ করার জন্য সন্তু লারমা সরকারের বিশেষ এজেন্ডা বাস্তবায়নে তার সশস্ত্র সন্ত্রাসী বাহিনীকে লেলিয়ে দিয়ে এ হত্যাকান্ড সংঘটিত করেছে। এর মধ্যে দিয়ে সন্তু লারমা পার্বত্য চট্টগ্রামে আবার খুনের রাজত্ব কায়েম করতে শুরু করেছে।

বিবৃতিতে তিনি সন্তু লারমার প্রতি আহ্বান জানিয়ে বলেন, পার্বত্য চট্টগ্রামের জনগণের ঐক্য আকাঙ্ক্ষার প্রতি সম্মান দেখিয়ে অচিরেই এ ধরনের ঘৃণ্য খুন-খারাবির রাজনীতি বন্ধ করুন, নইলে জনগণ এর উপযুক্ত জবাব দেবে।

বিবৃতিতে তিনি সুদৃষ্টি চাকমার হত্যাকারী সন্তু গ্রুপের সশস্ত্র সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার করে আইনের আওতায় নিয়ে আসার দাবি জানান।

উল্লেখ্য, রবিবার সকাল সোয়া ৮টার সময় সন্তু লারমার নেতৃত্বাধীন জনসংহতি সমিতির সশস্ত্র সন্ত্রাসীদের ব্রাশ ফায়ারে ইউপিডিএফ সদস্য বাবুছড়ার মগ্যা কার্বারী পাড়ার মৃত নিতাই চাকমার ছেলে সুদৃষ্টি চাকমা(৩৫) নিহত হন। এছাড়া এ ঘটনায় ইউপিডিএফের আরেক সদস্য ঋদ্ধি চাকমা (৩০) গুলিবিদ্ধ হয়ে আহত হন।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.