দিঘীনালায় সেনাসদস্য কর্তৃক তিন নারীর উপর হামলা ও ধর্ষণ চেষ্টার প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল করেছে এলাকার নারীরা

0
1

দিঘীনালা প্রতিনিধি, সিএইচটিনিউজ.কম
খাগড়াছড়ির দিঘীনালা উপজেলার বানছড়া এলাকায় বড়াদাম ক্যাম্পের সেনাসদস্য কর্তৃক তিন পাহাড়ি নারীর উপর হামলা ও ধর্ষণ চেষ্টার প্রতিবাদে দিঘীনালায় বিক্ষোভ মিছিল করেছে এলাকার নারীরা। আজ ১১ ডিসেম্বর বুধবার দুপুর ১২টায় দিঘীনালা কলেজের সামনে থেকে মিছিলটি শুরু হলে পুলিশ বাধা দেয়। এসময় নারীদের সাথে পুলিশের কথা কাটাকাট ও সামান্য ধস্তাধস্তির ঘটনা ঘটে। পুলিশ নয়ন চাকমা ও সুভাষ চাকমা নামে স্থানীয় দু’জনকে আটক করতে চাইলে নারীদের প্রতিরোধের কারণে তা ব্যর্থ হয়। পরে মিছিলটি উপজেলা পরিষদ এলাকায় গিয়ে শেষ হয়।

এসময় প্রতিবাদী নারীরা সেনাক্যাম্পটি প্রত্যাহার সহ দোষী ব্যক্তিদের শাস্তির দাবি জানিয়ে বিভিন্ন শ্লোগান দেয়। সেনা সদস্যরা তিন নারীকে মারধর ও ধর্ষণ চেষ্টা চালিয়েছে বলে তারা অভিযোগ করেছে।

পরে তারা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর বরাবরে একটি স্মারকলিপি পেশ করে। স্মারকলিপিতে ক্যাম্প প্রত্যাহার, দোষী সেনা সদস্যদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি, ভবিষ্যতে যাতে এ ধরনের ঘটনা না ঘটে তার জন্য প্রয়োজনী ব্যবস্থা গ্রহণ ও জায়গার মালিককে উপযুক্ত ক্ষতিপূরণসহ জায়গা ফেরতদানের দাবি জানান।

উল্লেখ্য, ২০০৩ সালে বড়াদাম সেনা ক্যাম্পটি স্থানান্তর করে অনুমতি ও ক্ষতিপূরণ ব্যতীত বানছড়া এলাকার ভদ্ররাজ চাকমার জমিতে স্থাপন করা হয়। তখন থেকে সেনাবাহিনী ক্যাম্পের পার্শ্ববর্তী ভদ্ররাজ চাকমা সহ স্থানীয় পাহাড়িদের ভোগদখলীয় জায়গা বেদখল করে ক্যাম্প সম্প্রসারণের কাজ চালিয়ে আসছে। গতকাল মঙ্গলবার(১০ ডিসেম্বর) ভদ্ররাজ চাকমার স্ত্রী সান্ত্বনা চাকমা সহ তিন নারী নিজ জমিতে কাজ করতে গেলে উক্ত ক্যাম্পের কমান্ডার আবদুল্লার নেতৃত্বে সেনা সদস্যরা বাধা দেয় এবং তাদের উপর হামলা চালায়। সেনা সদস্যদের লাঠির আঘাতে সান্ত¦না চাকমা(৪৫), আয়না চাকমা(১৮) ও অরসিনা চাকমা (সীমা) আহত হয়।


Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.