দীঘিনালায় ইন্দ্রা চাকমার হত্যাকারীর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে কুদুকছড়িতে তিন সংগঠনের বিক্ষোভ

0
0

রাঙামাটি : খাগড়াছড়ির দীঘিনালায় ইন্দ্রা চাকমাকে হত্যাকারী মোঃ আলাউদ্দিনের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে রাঙামাটির কুদুকছড়িতে পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ, হিল উইমেন্স ফেডারেশন ও গণতান্ত্রিক যুব ফোরামের যৌথ উদ্যোগে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

21641655_1842175586112984_1447511951_nআজ রবিবার (১৭ সেপ্টেম্বর) দুপুর ২টায় বড় মহাপূরম উচ্চ বিদ্যালয় গেইট থেকে বিক্ষোভ মিছিলটি শুরু হয়ে কুদুকছড়ি বাজার প্রদক্ষিণ করে ইউপিডিএফ’র কার্যালয়ের সামনে রাস্তার উপর সমাবেশে মিলিত হয়। সমাবেশে পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ রাঙামাটি জেলা শাখার সহ-সভাপতি নিকন চাকমা সভাপতিত্বে ও সাঃ সম্পাদক আসেন্টু চাকমার সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন গণতান্ত্রিক যুব ফোরামের রাঙামাটি জেলা আহ্বায়ক ধর্মশিং চাকমা, পার্বত্য চট্টগ্রাম নারী সংঘের সাধারণ সম্পাদক কাজলী ত্রিপুরা, হিল উইমেন্স ফেডারেশনের রাঙামাটি জেলা সভাপতি মন্টি চাকমা প্রমুখ।

বক্তরা বলেন, ধর্ষণ, হত্যা পার্বত্য চট্টগ্রামে জাতিগত নিপীড়নের হাতিয়ার হিসেবে পরিণত হয়েছে। হত্যাকারী ও ধর্ষকদের যথোপযুক্ত শাস্তি না হওয়ায় অপরাধীরা উৎসাহ পাচ্ছে। তারা বলেন, খুনি আলাউদ্দিনকে স্থানীয়দের সহযোগীতায় পুলিশ গ্রেপ্তার করলেও তাতে আমরা সন্তুষ্ট নই, কারণ পার্বত্য চট্টগ্রামে এ ধরনের ঘটনায় জড়িত অপরাধীরা সহজেই মুক্তি পেয়ে যায়। কাজেই, আমরা খুনি আলাউদ্দিনের দৃষ্টিান্তমূলক কঠোর শাস্তির চাই, যাতে ভবিষ্যিতে এ ধরনের নৃশংস ঘটনা ঘটতে না পারে।

বক্তারা পার্বত্য চট্টগ্রামে পাহাড়ি নারীদের পূর্ণ নিরাপত্তা এবং ধর্ষণ ও হত্যা বন্ধের জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানান।

সমাবেশ থেকে বক্তারা অভিযোগ করে আরো বলেন, গত ১৬ সেপ্টেম্বর পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের রাঙামাটি জেলা শাখার আয়োজিত শিক্ষা প্রোগ্রামের মঞ্চ সেনাবাহিনী কর্তৃক ভাঙচুর এবং প্রোগ্রাম ভন্ডুল করে দেওয়া হয়েছে। তারা এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান। এছাড়া পানছড়িতে বালাতি ত্রিপুরার খুনিদের অবিলম্বে গ্রেফতারেরও দাবি জানানো হয় সমাবেশ থেকে।

উল্লেখ্য, গতকাল শনিবার সকাল ১০টার দিকে জমিতে গরু বাঁধাকে কেন্দ্র করে সেটলার মোঃ আলাউদ্দিন ইন্দ্রা চাকমাকে ধারালো দা/ছুরি দিয়ে আঘাত করে হত্যা করে। পরে স্থানীয় লোকজন আলাউদ্দিনকে ধরে পুলিশের হাতে তুলে দেয়।
——————
সিএইচটিনিউজ.কম’র প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ব্যবহারের প্রয়োজন দেখা দিলে যথাযথ সূত্র উল্লেখপূর্বক ব্যবহার করুন।


Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.