দীঘিনালায় পিসিপি’র প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর কর্মসূচি পালনে সেনাবাহিনী কর্তৃক বাধাদানের অভিযোগ

0
1

দীঘিনালা: খাগড়াছড়ির দীঘিনালায় প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর কর্মসূচি পালনে সেনাবাহিনী কর্তৃক বাধাদানের অভিযোগ করেছে বৃহত্তর পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ (পিসিপি)।

বৃহস্পতিবার (১৯ মে) রাতে পিসিপি’র কেন্দ্রীয় সভাপতি সিমন চাকমা ও সাধারণ সম্পাদক বিপুল চাকমা সংবাদ মাধ্যমে প্রদত্ত এক বিবৃতিতে এ অভিযোগ করেন। তবে যে কোন মূল্যে আগামীকালকের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর সমাবেশ সফল করতে ছাত্র-জনতার প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন তারা।

# পিসিপি প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী সমাবেশের প্যান্ডেল ও মঞ্চ নির্মাণে বাধা দিতে যাচ্ছে সেনাবাহিনীর সদস্যরা। ছবিটি বানছড়া উচ্চ বিদ্যালয় মাঠ থেকে তোলা।
# সমাবেশ স্থল বানছড়া উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে মঞ্চ ও প্যান্ডেল নির্মাণে বাধা দিতে যাচ্ছে সেনাবাহিনীর সদস্যরা। 

বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ বলেন, আগামীকাল ২০ মে অনুষ্ঠিতব্য পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের ২৭তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালনের জন্য দিঘীনালা উপজেলার বানছড়া উচ্চবিদ্যালয় মাঠে সংগঠনের কর্মীগণ মঞ্চ ও প্যান্ডেল নির্মাণ করছিল। মঞ্চ নির্মাণের এক পর্যায়ে বিকাল তিনটার দিকে দীঘিনালা জোনের সেনাবাহিনীর একটি টিম দুইটি জীপে করে মঞ্চস্থলের এলাকা ঘিরে রাখে এবং মঞ্চনির্মাণকারীদের মঞ্চ নির্মাণ করতে বাধা দেয়। তারা এই সময় জোরপূর্বক পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের কর্মীসহ মঞ্চস্থলের শ্রমিকদের সেখান থেকে তাড়িয়ে দেয়। এরপর তারা মঞ্চ ও প্যান্ডেল নির্মাণের জন্য সমাবেশস্থলে রাখা বাঁশ ও অন্যান্য সরঞ্জাম তছনছ করে দিয়ে ছড়িয়ে ছিটিয়ে রাখে। পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের কর্মীরা প্রতিবাদ করতে চাইলে তাদের হুমকি ধামকি দেয়া হয়। তারা সমাবেশ এলাকায় ত্রাসের পরিবেশ সৃষ্টি করে।

সেনাবাহিনী কর্তৃক মঞ্চ ও প্যান্ডেল নির্মাণে বাধা প্রদানকে চরম অগণতান্ত্রিক-ফ্যাসিবাদী-অন্যায্য কাজ হিসেবে উল্লেখ করে এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে নেতৃবৃন্দ বলেন, একদেশে দুই নীতি চলতে পারে না। দেশের বাকি অংশে যখন গণতান্ত্রিক সাধারণ প্রশাসন চলে তখন পার্বত্য চট্টগ্রামে পরিচালিত হয় সেনাশাসন তথা সেনা সন্ত্রাস। নেতৃবৃন্দ বলেন, শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন বর্তমান আওয়ামীলীগ সরকার একদিকে পার্বত্য চট্টগ্রাম থেকে সেনাক্যাম্প তুলে নেয়ার মিথ্যা আশ্বাস দেয়, অন্যদিকে তাদেরই সরকারের সময় সেনাবাহিনীর কর্তৃত্ব ও তৎপরতা বাড়িয়ে দেয়া হয়। নেতৃবৃন্দ সরকারের প্রতি হুশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেন, পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ গণতান্ত্রিক অধিকার সমুন্নত রাখার স্বার্থে আগামীকালকের ২৭তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর সমাবেশ যেকোন মূল্যে সফল করতে বদ্ধ পরিকর। নেতৃবৃন্দ আগামীকালকের সমাবেশ সফল করতে পার্বত্য চট্টগ্রামের ছাত্র যুব জনগণের প্রতি উদাত্ত আহ্বান জানান।

এদিকে, প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠান আয়োজনে সেনাবাহিনী কর্তৃক বাধাদানের প্রতিবাদে সন্ধ্যায় পিসিপি’র নেতা-কর্মীরা তাৎক্ষণিকভাবে খাগড়াছড়িতে বিক্ষোভ মিছিল করেছে ।

উল্লেখ্য, বৃহত্তর পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ(পিসিপি) ১৯৮৯ সালের ২০ মে প্রতিষ্ঠত হয়। পার্বত্য চট্টগ্রামের ছাত্র সমাজকে একত্রিত করে পিসিপি পূর্ণস্বায়ত্তশাসন প্রতিষ্ঠার জন্য সংগ্রাম করে যাচ্ছে। বিভিন্ন চড়াই উৎরাই পেরিয়ে পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ আগামীকাল সংগঠনের ২৭তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন করতে যাচ্ছে।
—————–

সিএইচটিনিউজ.কম’র প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ব্যবহারের প্রয়োজন দেখা দিলে যথাযথ সূত্র উল্লেখপূর্বক ব্যবহার করুন।


Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.