দীঘিনালায় বিজিবি’র নতুন নাটক, আতঙ্কে এলাকাবাসী

82
2

সিএইচটিনিউজ.কম
Dighinala2দীঘিনালা প্রতিনিধি: খাগড়াছড়ির দীঘিনালায় পাহাড়ি জনগণের প্রতিবাদী কণ্ঠকে রুদ্ধ করে ভূমি বেদখল জায়েজ করতে বিজিবি আবারো একটি নতুন নাটক মঞ্চস্থ করেছে গত ৩ আগস্ট । ওইদিন রাত সাড়ে ৮টার দিকে বাবুছড়া বাজার সংলগ্ন গোরস্থান নামক স্থানে বিজিবি ৫১ ব্যাটালিয়নের উপঅধিনায়কের গাড়িতে ইট-পাটকেল নিক্ষেপ করে গাড়ির কাঁচ ভেঙে দেয়া হয়েছে অভিযোগ করে পরিকল্পিত ও ষড়যন্ত্রমূলকভাবে ৮ জনের নাম উল্লেখ করে পনের (১৫) জনের বিরুদ্ধে দীঘিনালা থানায় মামলা দায়ের করেছে গাড়ির চালক ল্যান্স নায়েক সাবদার। অথচ সে ধরনের কোন ঘটনাই ঘটেনি। অবশ্য মামলায় দীর্ঘদিন ধরে চট্টগ্রামে চাকুরিরত একজনকেও আসামী করা হয়েছে।  এ নিয়ে এলাকাবাসী আতঙ্কে রয়েছেন।

এলাকাবাসীর কাছ থেকে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, সেদিন (৩ আগস্ট রবিবার)  সন্ধ্যা ৬.৩০টার পরে ঐ এলাকায় তারা বিজিবির কোন গাড়ি দেখেননি। এটি বিজিবি’র নাটক ছাড়া আর কিছুই নয় বলে এলাকাবাসী মনে করছেন। মূলত এর মূল উদ্দেশ্যে হচ্ছে এলাকার জনগণকে চাপের মধ্যে রেখে এবং জনগণের প্রতিবাদী কণ্ঠকে রুদ্ধে করে দিয়ে তাদের হীন উদ্দেশ্য পাকাপোক্ত করা, যাতে তাদের অপকর্মের বিরুদ্ধে কেউ টু শব্দ করতে না পারে।

এদিকে, বিজিবির এহেন অপকর্ম নিয়ে পুলিশ প্রশাসন পড়েছে বেকায়দায়। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক দীঘিনালা  থানার দায়িত্বরত এক কর্মকর্তা বলেন, মিথ্যা মামলা নিলেও নীতি-নৈতিকতা এবং বিবেকের সাথে প্রতারনা করা হয়, আর না নিলে সেনা-বিজিবি’র ধমক খেতে হয় এবং সাসপেন্ড অথবা শাস্তিমূলক বদলি করা হয়। তাই বাধ্য হয়ে মামলা নিতে হয়।

উল্লেখ্য যে, গত ১৪ই মে ২০১৪ইং দিবাগত রাতে বাবুছড়ার যত্ন কুমার ও শশী মোহন কার্বারী পাড়ায় ৫১ বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লেঃ কর্ণেল আবুল কালাম আজাদ এবং মেজর কামালের নেতৃত্বে মাস্তানী কায়দায় অবস্থান নেওয়ার পর একের পর এক সাজানো নাটক পরিবেশন করে সাধারণ নিরীহ পাহাড়িদের বিরুদ্ধে হয়রানিমূলক মিথ্যা মামলা করে যাচ্ছে বিজিবি। গত ১০জুন নিরীহ পাহাড়ি গ্রামবাসীদের উপর হামলা ও বসতভিটা থেকে উচ্ছেদ করার পর ১১১ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত ১০০ হতে ১৫০জনের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দায়ের করে নারী-পুরুষ নির্বিশেষে গ্রেফতার সহ নানা হয়রানি করা হচ্ছে।
———–

সিএইচটিনিউজ.কম’র প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ব্যবহারের প্রয়োজন দেখা দিলে যথাযথ সূত্র উল্লেখপূর্বক ব্যবহার করুন।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.