দীঘিনালায় সেনা-সংস্কার-মুখোশদের অভিনব কাণ্ড!

0
1

দীঘিনালা : খাগড়াছড়ির দীঘিনালা উপজেলার আমতলিতে আজ রবিবার (১৭ জুন ২০১৮) দুপুরে এক অভিনব কাণ্ড করলো সেনাবাহিনী, সংস্কারবাদী জেএসএস ও নব্য মুখোশ দুর্বৃত্তরা। এতদিন একটু লুকোচুরি খেলা চললেও আজকে প্রকাশ্যে তাদের এই মিলিত কাণ্ড দেখে এলাকার জনগণ চরম ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন।

জানা যায়, আজ দুপুর ২টার দিকে দীঘিনালা সেনা জোন থেকে সেনাবাহিনীর একটি গাড়ি আমতলি হয়ে বিনন্দচুগ আর্মি ক্যাম্পে যায়। এর কিছুক্ষণ পর সংস্কারবাদী জেএসএস ও মুখোশ বাহিনীর ১৪-১৫ জনের একদল সশস্ত্র দুর্বৃত্ত তিনটি সিএনজিতে করে আমতলি গ্রামে গিয়ে উপস্থিত হয়ে ত্রাস সৃষ্টি করে। এ সময় তারা ইউপিডিএফ সদস্য রুপেশ চাকমার বাড়ি ঘিরে ফেলে এবং বাড়ির ভিতর প্রবেশ করে তল্লাশিসহ তার স্ত্রীকে অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ ও হুমকি-ধামকি দেয় এবং তার মোবাইল ফোনটিও ছিনিয়ে নেয়। পরে দুর্বৃত্তরা আমতলি বাজারে গিয়ে তান্ডবলীলা চালায়।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সংস্কার-মুখোশ দুর্বৃত্তরা আমতলি বাজারে এসে দোকানদারদের দোকান বন্ধ করার নির্দেশ দেয়। কেউ তাদের এই নির্দেশ না মানলে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা দিতে হবে বলে হুমকি দিতে থাকে। তারা যখন আমতলি বাজারে এই কাণ্ড করছিল ঠিক সে সময় বিনন্দচুগ ক্যাম্পে যাওয়া সেনাবাহিনীর গাড়িটি সেখানে এসে পৌঁছে। কিন্তু সেনাদের আসতে দেখেও দুর্বৃত্তরা সশস্ত্রভাবে সেখানে নির্ভয়ে অবস্থান করে। সেনা সদস্যরাও তাদের গাড়ি থেকে সেখানে নেমে পড়ে এবং নাটকীয়ভাবে এক সেনা সদস্য সংস্কারবাদী জেএসএস’র এক সশস্ত্র কর্মীর কাছ থেকে একটি অস্ত্র (এসএমজি) কেড়ে নিয়ে দু’য়েক লাথিও মারে। এ সময় সংস্কারবাদী দলের ওই সশস্ত্র সদস্য নিজেকে “গণতান্ত্রিক” (নব্য মুখোশ) পরিচয় দিলে সেনা সদস্যটি হেসে উঠে এবং পিঠ চাপড়িয়ে তাকে আদর করতে থাকে। পরে সেনারা সেখান থেকে চলে যাওয়ার সময় অস্ত্রটি সংস্কারবাদী সদস্যকে ফেরত দেয়।

সংস্কার-মুখোশ দুর্বৃত্তরা আমতলি বাজারে থাকা পরান্ন্যা চাকমা (২২ ) ও বড়াদাম উচ্চ বিদ্যালয়ের ৯ম শ্রেণীর ছাত্র স্বপন জ্যোতি চাকমাকে(১৪)- মারধর করে এবং তাদের কাছ থেকে ২টি ও দোকানদার বাচ্চু চাকমার স্ত্রীর কাছ থেকে ১টি মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নেয় বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

সশস্ত্র দুর্বৃত্ত দলটির মধ্যে সংস্কারবাদী জেএসএস’র জনপ্রিয় চাকমা, জ্যোতিময় চাকমা, বর্ণ চাকমা ও রাজিব চাকমা এবং নব্য মুখোশ বাহিনীর সর্দার জলেয়্যা চাকমা ওরফে তরুকে চিনতে পেরেছেন বলে এলাকাবাসী জানিয়েছেন।

প্রায় আধ ঘন্টার অধিক সেখানে অবস্থান করার পর দুর্বৃত্তরা বাঁশের ভেলা দিয়ে মাইনী নদী পার হয়ে আমতলির পশ্চিমে বোয়ালখালী ইউপি’র মুকুন্দ পাড়ার দিকে চলে যায়। বর্তমানে তারা ওই এলাকায় অবস্থান করছে বলে জানা গেছে।

সেনা-সংস্কার-মুখোশদের এই কাণ্ড দেখে এলাকার একাধিক মুরুব্বী নাম প্রকাশ না করার শর্তে সিএইচটি নিউজ ডটকমকে ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, “সংস্কারবাদী জেএসএস এতদিন আন্দোলনের নামে জনগণের সাথে বেঈমানী ও ভাওতাবাজি করার পর এখন মুখোশদের সাথে মিলে সেনাবাহিনীর এজেন্ডা বাস্তবায়ন করছে। আজকের এই ঘটনার মাধ্যমে তা একেবারেই পরিষ্কার হয়ে গেছে। এই নির্লজ্জ কর্মকাণ্ডের মাধ্যমে তারা (সংস্কারবাদীরা) নিজেদের ধ্বংসই ডেকে আনছে বলে তিনি মন্তব্য করেন।

——————
সিএইচটি নিউজ ডটকম’র প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ব্যবহারের প্রয়োজন দেখা দিলে যথাযথ সূত্র উল্লেখপূর্বক ব্যবহার করুন।


Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.