দেশ ভাগের ইতিহাস তুলে ধরে ভারতে চাকমা ন্যাশনাল কাউন্সিলের কালো দিবস পালন

0
1

Chakmaসিএইচটি নিউজ ডেস্ক: দেশ বিভাজনের ইতিহাস সামনে এনে এবছর থেকে প্রতিবছর ১৭ই আগষ্ট কালো দিবস পালন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে চাকমা জনগোষ্ঠীদের সংগঠন চাকমা ন্যাশনাল কাউন্সিল অফ ইন্ডিয়া৷ সংস্থার ত্রিপুরা কমিটির পক্ষ থেকে বুধবার (১৭ আগস্ট) আগরতলায় প্রেস ক্লাবের সামনে কালো দিবস পালনের অঙ্গ হিসেবে একটি ধর্ণা কর্মসূচী নেওয়া হয়৷ এখানে সংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন৷

সংগঠনের পক্ষ থেকে এই দিবস পালনের তাৎপর্য ব্যাখা করতে গিয়ে জানান, এবছর থেকে প্রতি বছর উত্তর পূর্ব ভারতে বসবাসকারী চাকমা জনগোষ্ঠীর লোকেদের দ্বারা ১৭ আগষ্ট দিনটি কালো দিবস হিসেবে প্রতিপালিত হবে৷ এই সিদ্ধান্তটি ঘোষিত হয়েছে গত ২৪-২৫ মার্চ আসামের গুয়াহাটিতে অনুষ্ঠিত চাকমা ন্যাশনাল কাউন্সিল অফ ইন্ডিয়ার প্রথম জাতীয় অধিবেশনে৷ সেই ঘোষণা অনুযায়ী কালো দিবসটি একযোগে পালিত হয় আসাম, মিজোরাম, অরুণাচল ও ত্রিপুরায়৷ এছাড়া এই দিনটি কলকাতা, নয়া দিল্লী, মুম্বাই, ব্যাঙ্গালুরু ইত্যাদি শহরেও প্রবাসী ছাত্র-ছাত্রী ও কর্মসূত্রে বসবাসকারী সেখানকার চাকমাদের উদ্যোগে পালিত হয়েছে৷

কালো দিবস পালনের তাৎপর্য ব্যাখ্যা করতে গিয়ে সংগঠনের নেতৃত্বরা জানিয়েছেন, ১৯৪৭ সালের ১৭ আগষ্টের রাতটি ছিল সমগ্র চাকমা জনসমাজের পক্ষে চরম দুঃস্বপ্ণময় রাত এবং আরও একটি কালো অধ্যায়ের সূচনা৷ সেদিন থেকে আজ অবধি ৭০ বছর অতিক্রান্ত হয়ে গেলেও চাকমা সমাজ যে প্রশ্ণটির সদুত্তর খঁুজে ফেরে, সেই প্রশ্নটি হচ্ছে, কোন্ নীতি অনুসরণ করে বেঙ্গল বাউন্ডারী কমিশন ৯৮.৫ শতাংশ অমুসলিম অধ্যুষিত পার্বত্য চট্টগ্রাম জেলাকে পাকিস্তানের অন্তর্ভূক্তির ঘোষণা দিয়েছিল৷

সূত্র: জাগরণ


Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.