নাইক্ষ্যংছড়ির বাইশারিতে ভূমি বেদখলের প্রতিবাদে গণসমাবেশ

0
0

নিজস্ব প্রতিনিধি, সিএইচটিনিউজ.কম
Naikyongchariনাইক্ষ্যংছড়ি(বান্দরবান): ভূমি বেদখল, পাহাড়ি গ্রামবাসীদের উচ্ছেদের প্রতিবাদে ও ডাকাতদের গ্রেফতারের দাবিতে বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার বাইশারীতে ভূমি রক্ষা কমিটি ও গণতান্ত্রিক যুব ফোরামের যৌথ উদ্যোগে বৃহস্পতিবার এক গণসমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সমাবেশটি নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা সদরে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা থাকলেও জেএসএস, আওয়ামী লীগ ও প্রশাসনের বাধার কারণে সেখানে সমাবেশ করা সম্ভব হয়নি বলে জানিয়েছেন আয়োজকরা।

বৃহস্পতিবার বিকাল ৩টায় বাইশারী ইউনিয়নের নারিচবুনিয়া মগ বাজারে অনুষ্ঠিত সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন উমং চাক। সমাবেশে বক্তব্য রাখেন গণতান্ত্রিক যুব ফোরামের কেন্দ্রীয় যুগ্ম সম্পাদক এসিংমং মারমা, স্থানীয় যুব নেতা মংনুচিং মারমা, স্থানীয় বাসিন্দা ও গণতান্ত্রিক যুব ফোরামের কেন্দ্রীয় সদস্য শুভ চাক ও ক্ষতিগ্রস্ত পুমং মারমা। এছাড়া ভূমি দস্যুদের কর্তৃক ক্ষতিগ্রস্ত স্থানীয় বাঙালিদের মধ্যে  সাবেক মেম্বার আবু তৈয়ব ও আলহ্বাজ সুরুত আলম বক্তব্য রাখেন।

সমাবেশে ছয় শতাধিক লোক অংশগ্রহণ করেন। এতে ভূমি দস্যু কর্তৃক ক্ষতিগ্রস্ত স্থানীয় বাঙালিরাও যোগ দেন।

সমাবেশে বক্তারা নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা সদরে সমাবেশ করতে বাধা দেয়ায় জেএসএস, আওয়ামী লীগ ও প্রশাসনের প্রতি তীব্র নিন্দা জানান।

বক্তারা বলেন, আওয়ামী লীগ, বিএনপি সহ ধনীক শ্রেণীর দলের লোকেরা এখানে ভূমি দস্যুতা চালিয়ে যাচ্ছে। এরা সব সময় গরীব জনগণকে শোষণ, নির্যাতন করে। জেএসএসও এখন তাদের পক্ষ নিয়েছে। তাদের দ্বারা গরীব জনগণের কোনদিন মুক্তি আসবে না।

বক্তারা সেটলার ও রোহিঙ্গাদের পার্বত্য চট্টগ্রাম থেকে সরিয়ে সমতলে যথাযথ পুনর্বাসন, বেদখলকৃত জায়গা-জমি ফেরত প্রদান ও নিরীহ গ্রামবাসীদের নিরাপত্তার দাবি জানান। বক্তারা স্থানীয় ভূমি দালাল ও প্রভাবশালীদের প্রতিও হুঁশিয়ারী উচ্চারণ করেন।

এছাড়া সমাবেশ থেকে বক্তারা অবিলম্বে রাবার বাগান কোম্পানী পিএইচপি ও নাজমা খাতুন সহ সকল রাবার কোম্পানী কর্তৃক স্থানীয় পাহাড়ি ও বাঙালিদের ভূমি বেদখল বন্ধ করা, ক্ষতিগ্রস্ত পাহাড়ি ও বাঙালিদের পুনর্বাসন ও যথাযথ ক্ষতিপূরণ প্রদান, ডাকাতির ঘটনার সাথে জড়িতদেরকে খুঁজে বের করে গ্রেফতার ও শাস্তি প্রদান করা, ভূমি দস্যু আওয়ামী লীগের বাইশারী ইউনিয়ন সভাপতি মো: আলম ও তার সহযোগী আল আমিনকে অবিলম্বে গ্রেফতারের জোর দাবি জানিয়েছেন।

সমাবেশ শেষে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়।
—————–

সিএইচটিনিউজ.কম’র প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ব্যবহারের প্রয়োজন দেখা দিলে যথাযথ সূত্র উল্লেখপূর্বক ব্যবহার করুন।


Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.