নান্যাচরের বগাছড়িতে ভূমি বেদখলের ষড়যন্ত্র

0
1

নান্যাচর : রাঙামাটির নান্যাচর উপজেলায় বগাছড়ির ১৪ মাইল নামক স্থানে (ছুড়িদাস পাড়ায়) নতুন করে ভূমি বেদখলের ষড়যন্ত্র চলছে বলেছে বলে বিশ্বস্ত সূত্রে খবর পাওয়া গেছে। এ ষড়যন্ত্রে সাথে জড়িত রয়েছেন খোদ নানিয়ারচর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শক্তিমান চাকমা।

এ ব্যাপারে নাম প্রকাশ না করার শর্তে কয়েকজন সেটেলার সিএইচটি নিউজ ডটকম-কে বলেন, নান্যাচর উপজেলা চেয়ারম্যান শক্তিমান চাকমা কয়েকদিন ধরে বগাছড়ি এলাকার কতিপয় সেটেলার সর্দারকে পাহাড়িদের জমি দখল করতে উস্কানি দিয়ে যাচ্ছেন। এবং একইসাথে তিনি একটি স্থানীয় স্বার্থন্বেষী মহলকেও প্ররোচিত করছেন।

তাঁরা আরো জনান, ইতোমধ্যে একটি বিশেষ নিরাপত্তা বেষ্টনীর ভেতর ভূমি বেদখলের ছক তৈরীর শেষ পর্যায়ে রয়েছে। সেটলারদের কাছ থেকে তথাকথিত জমির কবুলিয়ত জমা নেয়ার প্রক্রিয়া প্রায়ই সম্পন্ন হয়েছে। শিগগিরি দখল প্রক্রিয়া শুরু হবে। ভূমি বেদখল ও সেটেলার বসতিস্থাপন প্রক্রিয়াকে নির্বিঘ্ন করতে নব্য মুখোশ বাহিনীকে লাঠিয়াল হিসেবে কাজে লাগানোর সিদ্ধান্ত হয়েছে। নিরাপত্তার অজুহাতে সেনাবাহিনী ছুড়িদাস পাড়ায় তথাকথিত অস্থায়ী নিরাপত্তা চৌকি বসানোর চক্রান্তের কথাও তারা ফাঁস করে দেন।
তবে সেটেলাদের একটি অংশ পাহাড়িদের সাথে নতুন করে সংঘাতময় পরিস্থিতিতে যেতে ইচ্ছুক নয় বলেও জানান তারা।

ভূমি বেদখল করার ষড়যন্ত্রের বিষয়ে প্রতিক্রিয়া জানতে চাওয়া হলে ১৪ মাইল এলাকার কয়েকজন স্থানীয় মুরুব্বী ও যুবক নাম প্রকাশ না করার শর্তে সিএইচটি নিউজ ডটকমকে বলেন, যদি নতুন করে ভূমি বেদখল ও সেটলার বসতি নির্মাণের চেষ্টা করা হয় তাহলে অকল্পনীয় গণপ্রতিরোধ শুরু হবে। তাঁরা ২০১৪ সালের ১৬ ডিসেম্বরের সেনা-সেটলার যৌথ আক্রমণের সময় তীব্র গণপ্রতিরোধের ঘটনা স্মরণ করে আরো বলেন, প্রতিটি ইঞ্চি ভূমি রক্ষার্থে যা যা করা দরকার তাই করা হবে। চক্রান্ত-ষড়যন্ত্রকারী যেই হউক জনগণ তাঁদের ক্ষমা করবে না।

উল্লেখ্য, সম্প্রতি হিল উইমেন্স ফেডারেশন-এর দুই নেত্রী অপরহণ ঘটনায় নব্য মুখোশবাহিনীর (নব্য রাজাকার) পাশাপাশি একটি চিহ্নিত স্বার্থান্বেষী মহল এবং নানিয়ারচর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শক্তিমান চাকমা বিভিন্ন মহল থেকে প্রবল চাপে পড়ে যান। শক্তিমান চাকমা এ ঘটনায় প্রধান কুশীলব হিসেবে নেপথ্যে থেকে কলকাঠি নেড়েছেন বলে স্থানীয়দের অভিযোগ। ঘটনার পর থেকে তার বিরুদ্ধে গণঅসন্তোষ তীব্রভাবে ধুমায়িত হচ্ছে। তাই উক্ত ঘটনাকে ধাপাচাপা দিতে তিনি এখন মরিয়া হয়ে উঠেছেন।
_______
সিএইচটিনিউজ ডটকম’র প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ব্যবহারের প্রয়োজন দেখা দিলে যথাযথ সূত্র উল্লেখপূর্বক ব্যবহার করুন।


Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.