নান্যাচরে সেনাবাহিনী কর্তৃক দুই নিরীহ ব্যক্তি আটক

0
0

নান্যাচর(রাঙামাটি) প্র্রতিনিধি
সিএইচটিনিউজ.কম

রাঙামাটির নান্যাচর উপজেলার সাপমারা থেকে আজ ৯ ফেব্রুয়ারী ২০১১ সকাল আনুমানিক ৮:৩০টার সময় সেনাবাহিনী দুই নিরীহ ব্যক্তিকে আটক করে নিয়ে গেছে বলে খবর পাওয়া গেছে৷সূত্র জানায়, নান্যাচর সেনা জোনের অধীন বুড়িঘাট আর্মি ক্যাম্প থেকে ২০/২২ জনের একদল সেনা জওয়ান ভোরে সাপমারা এলাকায় অপারেশনে যায়৷তারা সাপমারা প্রাইমারী স্কুলে অবস্থান করে অপারেশন পরিচালনা করার সময় নান্যাচর বাজারে আসার পথে রাজীব কান্তি চাকমা(২৬) পিতা: সূর্য মোহন চাকমা, গ্রাম- লাঙেল পাড়া ও বাত্যা চাকমা(২৮) পিতা: অল চাকমা, গ্রাম-ঐ সেনাদের মুখে পড়েন। এসময় সেনারা তাদের কাছে নানাবিধ প্রশ্ন জিজ্ঞাসা করে । পরে সেনারা তাদেরকে মারধর করে এবং ক্যাম্পে ধরে নিয়ে যায়৷এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত (সন্ধ্যা : ৭:৩০টা) তাদেরকে ছেড়ে দেয়া হয়নি।

উল্লেখ্য যে, উক্ত দুই ব্যক্তি খুবই নিরীহ ও গরীব ।তারা অন্যের বাড়িতে কাজ করে জীবিকা নির্বাহ করে থাকে।

শুধু তাই নয়, আজ ভোর থেকে সেনারা তিন/চার গ্রুপে বিভক্ত হয়ে নান্যাচরের বিভিন্ন এলাকায় অপারেশন চালায় ।তারা সাপমারা, খুল্যাং পাড়া ও টিএন্ডটি এলাকায় অবস্থান নিয়ে এ অপারেশন কার্যক্রম পরিচালনা করে৷ সকাল ৯টার সময় একদল সেনা খুল্যাং পাড়ার ঈশ্বর চন্দ্র চাকমা, পিতা- চন্দ্রসুখ চাকমার চা দোকানে হানা দেয়৷সেনারা ঈশ্বর চন্দ্র চাকমাকে এক লাঠি দেয় এবং তার দোকান চেক করে৷সেনারা ঈশ্বর চন্দ্র চাকমা ও মানেক লাল চাকমা (মেরেয়ে) কে দোকান থেকে ধরে নিয়ে যাওয়ার জন্য নানা অজুহাত সৃষ্টির চেষ্টা করে।তাদেরকে আটক করার মতো কোন উপায় না পেয়ে ইউপিডিএফ কর্মীদের দোকানে বসাতে পারবেনা এবং ইউপিডিএফ কর্মীরা দোকানে আসলে খবর দিতে হবে বলে সেনারা নির্দেশ দিয়ে চলে যায়৷চলে যাবার সময় সেনারা ঈশ্বর চন্দ্র চাকমাসহ কয়েক জনের মোবাইল নাম্বারও তাদেরকে দিতে বাধ্য করে।


Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.