ন্যায্য কোটা বাদ দেয়ার সুপারিশের পরিপ্রেক্ষিতে পিসিপি’র উদ্বেগ

0
1

ঢাকা : কোটা পর্যালোচনা কমিটি কর্তৃক ‘কোটা প্রায় তুলে দেয়ার’ সুপারিশের পরিপ্রেক্ষিতে গভীর উদ্বেগ উৎকণ্ঠা প্রকাশ করে বিবৃতি দিয়েছে পূর্ণস্বায়ত্তশাসনপন্থী বৃহত্তর পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ(পিসিপি)।

আজ ১৫ আগস্ট সংবাদ মাধ্যমে প্রদত্ত এক যুক্ত বিবৃতিতে পিসিপি’র সভাপতি বিনয়ন চাকমা ও সাধারণ সম্পাদক অনিল চাকমা মন্ত্রী পরিষদ সচিবের বক্তব্যেরও তীব্র আপত্তি ও নিন্দা জানান।

বিবৃতিতে নেতৃদ্বয় সংবিধানে সরকারি চাকুরিতে নিয়োগের ক্ষেত্রে পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীর জন্য বিশেষ ব্যবস্থার (২৯ নং ধারা) উল্লেখ থাকলেও তা পাশ কাটিয়ে কোটা পুরোপুরি উঠিয়ে দেয়ার সুপারিশকে অগ্রহণযোগ্য এবং তা অনগ্রসর সংখ্যালঘু জাতি ও সম্প্রদায়সমূহকে বঞ্চিত করার ষড়যন্ত্র ছাড়া কিছুই নয় বলে মন্তব্য করেন।

নেতৃদ্বয় বিবৃতিতে সর্তক বাণী উচ্চারণ করে আরও বলেন, যুগ যুগ ধরে শোষিত-নিপীড়ত অর্থনৈতিক ও শিক্ষা-দীক্ষায় অনগ্রসর সংখ্যালঘু জাতিসত্তা ও সম্প্রদায়সমূহকে যদি বিকাশের পথ রুদ্ধ করে দেয়া হয়, ন্যুনতম কোটা থেকেও বঞ্চিত করা হয়, তাহলে অসন্তোষ দেখা দেবে। সেক্ষেত্রে পার্বত্য চট্টগ্রামের ছাত্র সমাজ ন্যায্য প্রাপ্তি আদায়ে আন্দোলন গড়ে তুলতে বাধ্য হবে।

উল্লেখ্য যে, কোটা পুরোপুরি উঠিয়ে দেয়ার সপক্ষে যৌক্তিকতা তুলে ধরতে মন্ত্রী পরিষদ সচিব অনগ্রসর সংখ্যালঘু জাতি ও সম্প্রদায়ের প্রতি ইঙ্গিত করে বলেছেন, ‘আমরা পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে দেখেছি, “ওনারা” অনেক অগ্রসর হয়েছেন।’।
———————
সিএইচটি নিউজ ডটকম’র প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ব্যবহারের প্রয়োজন দেখা দিলে যথাযথ সূত্র উল্লেখপূর্বক ব্যবহার করুন।     


Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.