পানছড়িতে শিশু ধর্ষণের প্রতিবাদে খাগড়াছড়িতে “সম্মিলিত ছাত্র জনতা”র বিক্ষোভ

0
3

সিএইচটিনিউজ.কম
Khagrachari protest, 19.10.2014

খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি: “পার্বত্য চট্টগ্রামসহ সারাদেশে নারী ও শিশু ধর্ষনের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াও” এই শ্লোগানে পানছড়িতে ৪ বছরের শিশু ধর্ষণের প্রতিবাদে খাগড়াছড়ি শহরে বিক্ষোভ মিছিল করেছে সম্মিলিত ছাত্র জনতা।

আজ ১৯ অক্টোবর ২০১৪, রবিবার সকাল ১১টায় ‘ধর্ষণের বিরুদ্ধে সম্মিলিত ছাত্র জনতা’র ব্যানারে খাগড়াছড়ি সরকারি কলেজের দক্ষিন গেইট থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়। মিছিলটি চেঙ্গী স্কোয়ার হয়ে শহরের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে শাপলা চত্বরে প্রতিবাদ সমাবেশ করে পুনরায় কলেজের দক্ষিণ গেইটে এসে শেষ হয়।

সমাবেশে প্রগতিশীল মারমা ছাত্র সমাজ(প্রমাছাস)খাগড়াছড়ি সরকারি কলেজ সভাপতি উক্যচিং মারমার সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ মারমা স্টুডেন্ট কাউন্সিলের জেলা সভাপতি সাপ্রু মারমা, প্রমাছাস’র চট্টগ্রাম মহানগর শাখার ওয়াকিমং চৌধুরী, ত্রিপুরা স্টুডেন্ট ফোরাম(টিএসএফ) উপজেলা শাখার নির্মল ত্রিপুরা, বাংলাদেশ নারী মুক্তি কাউন্সিলের কৃষ্টি চাকমা, বৃহত্তর পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ(পিসিপি) খাগড়াছড়ি সরকারি কলেজ শাখার সহ-সাধারণ সম্পাদক জেসীম চাকমা। এছাড়া সমাবেশে আরও বক্তব্য রাখেন ময়মনসিংহ নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজী বিভাগের ছাত্র নয়ন চাকমা।

বক্তারা বলেন, পানছড়িতে ৪ বছরের শিশু ধর্ষনকারীকে গ্রেপ্তার  করা হলেও এখনো শাস্তির ব্যবস্থা করা হয়নি। পার্বত্য চট্টগ্রামের সমস্যা দিন দিন প্রকট হচ্ছে। গত ১০ জুন দীঘিনালা বাবুছড়ায় ৫১ নং বিজিবি সদর দপ্তর স্থাপনের নামে যে ২১ পাহাড়ি পরিবার উচ্ছেদের শিকার হয়ে ২ নং বাঘাইছড়ি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে আশ্রয় নিয়েছে, কিন্তু দু:খজনক হলেও সত্য ঐ পরিবারগুলো জেএসসি ও এসএসসি পরীক্ষার জন্য সকলের কথা বিবেচনা করে শেষ আশ্রয়স্থল স্কুলটিও ছেড়ে যেতে বাধ্য হয়েছে।

এদিকে গত ১৫ অক্টোবর কাউখালীতে সেটলার কর্তৃক এক পাহাড়ি নারী ধর্ষনের শিকার হয়েছে। পুলিশ বিষয়টি অবগত থাকা সত্বেও এখনো দোষীদের গ্রেপ্তার করেনি।

বক্তারা অভিযোগ করে বলেন,পানছড়িতে শিশু ধর্ষনের ঘটনা ধামাচাপা দেওয়ার জন্য বিভিন্ন মহল হুমকি দিচ্ছে। তারই প্রমাণ স্বরুপ যুবলীগের পানছড়ি উপজেলার সাধারণ সম্পাদক মো: এমরান হোসেন বলেছেন, আমাদের কথা না শুনলে ১৯৮৬ সালের পাহাড়ি হত্যাযজ্ঞের মত ঘটনার পুরাবৃত্তি ঘটবে।

সমাবেশে থেকে বক্তারা ধর্ষণকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি এবং বাবুছড়ায় ২১ পরিবারকে নিজ নিজ বাস্তুভিটা ফিরিয়ে দেওয়ার দাবি জানান।

উল্লেখ্য, গত ১৬ অক্টোবর পানছড়ি উপজেলার পুজগাঙ ইউনিয়নের কানুনগো পাড়ায় মো: লালন মিয়া(৩৫) ৪বছরের এক পাহাড়ি শিশুকে নৃশংসভাবে ধর্ষন করে। এক পর্যায়ে শিশুটি গুরুতর আহত হলে তাকে খাগড়াছড়ি সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এ ঘটনায় শিশুটির পিতা বাদী হয়ে পানছড়ি থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করলে পুলিশ অভিযুক্ত লালন মিয়াকে(৩৫) আটক করে জেল হাজতে প্রেরণ করে।
————

সিএইচটিনিউজ.কম’র প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ব্যবহারের প্রয়োজন দেখা দিলে যথাযথ সূত্র উল্লেখপূর্বক ব্যবহার করুন।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.