পাহাড়ে নারী ধর্ষণের প্রতিবাদে চট্টগ্রামে চার সংগঠনের মানববন্ধন

0
10

চট্টগ্রাম ।। বান্দরবানের লামা উপজেলায় এক ত্রিপুরা নারী ও খাগড়াছড়ি মহালছড়ি উপজেলায় এক মারমা কিশোরী ধর্ষণের প্রতিবাদে এবং ধর্ষণের সাথে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে চট্টগ্রাম নগরীতে মানব বন্ধন করেছে চার পাহাড়ি সংগঠন।

আজ শুক্রবার (৪ সেপ্টেম্বর ২০২০) বিকাল ৪.০০ টায় নগরীর চেরাগী পাহাড় মোড়ে পার্বত্য চট্টগ্রাম নারী সংঘ, হিল উইমেন্স ফেডারেশন, পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ (পিসিপি) ও গণতান্ত্রিক যুব ফোরাম যৌথভাবে এই মানববন্ধনের আয়োজন করে।

পার্বত্য চট্টগ্রাম নারী সংঘের সভাপতি রেশমি মারমার সভাপতিত্বে উক্ত মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, সংগঠনটির নগর শাখার সহ-সভাপতি পিংকি চাকমা, পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের চবি শাখার তথ্য ও প্রচার সম্পাদক রনেল চাকমা, যুব নেতা শুভ চাক প্রমুখ। এতে আরো সংহতি জানিয়ে বক্তব্য রাখেন, ছাত্র ইউনিয়ন চবি শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক প্রত্যয় নাথাক।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতায় পাহাড়ে পুনর্বাসিত সেটলার কর্তৃক গত ৩০ আগস্ট বান্দরবানে লামা উপজেলায় এক ত্রিপুরা নারী এবং ৩১ আগস্ট মহালছড়ি উপজেলায় এক মারমা কিশোরী সেটলার কর্তৃক গণধর্ষণের শিকার হয়। বক্তারা এসব ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়ে অভিযুক্ত ধর্ষকদের গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেন।

পাহাড়ে নারী ধর্ষণকারীদের বাঁচানোর জন্য শাসক শ্রেণী উঠেপড়ে লেগে যায় উল্লেখ করে বক্তারা আরো বলেন, খাগড়াছড়ি মহালছড়ির ধর্ষণের ঘটনাটি জানাজানি হওয়ার পর উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি ও সদর ইউপি চেয়ারম্যান রতন কুমার শীল আইনি বহির্ভুত শালিসের মাধ্যমে নামমাত্র ১০ হাজার টাকা জরিমানা করে ধর্ষক আল আমিন ও তার সহযোগীদের বাঁচানোর জন্য চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

বক্তারা রতন শীলকে চেয়ারম্যান থেকে বহিঃস্কার করে তার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেন।


Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.