পাহাড়িদের উপর হামলাকারীদের গ্রেফতারের দাবিতে মানিকছড়িতে এলাকাবাসীর বিক্ষোভ

0
2

সিএইচটি নিউজ ডটকম
Manikchari protest photo1মানিকছড়ি : চোক্যাবিল গ্রামে পাহাড়িদের উপর হামলাকারী সেটলারদের গ্রেফতার, আটক দুই নিরীহ গ্রামবাসী রিপ্রুচাই মারমা ও উষামং মারমার নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে মানিকছড়ি-রামগড় ভূমি রক্ষা ছাত্র-যুব-নারী কমিটির ব্যানারে মানিকছড়িতে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে এলাকাবাসী। সেনাবাহিনী বাধা দেয়ার চেষ্টা করলেও  বাধা উপেক্ষা করে এলাকাবাসী এই মিছিল-সমাবেশ করে।

আজ রবিবার (৬ সেপ্টেম্বর) সকাল সাড়ে ১০টায় মানিকছড়ি উপজেলার গবমারা এলাকায় বিক্ষোভ মিছিল পরবর্তী সমাবেশে এলাকাবাসীর পক্ষে বক্তব্য রাখেন সুইনুমং মাষ্টার, কলেজ ছাত্র উষাঅং মারমা ও স্কুল ছাত্রী উক্রাসিং মারমা প্রমুখ। সমাবেশে চার শতাধিক ছাত্র-যুবক-নারী ও এলাকার লোকজন অংশগ্রহণ করেন।

বক্তারা বলেন, দীর্ঘদিন থেকে সেটলার বাঙালিরা সেনা সহযোগীতায় মনাদং পাড়া, বকরি পাড়া ও হাফছড়ি এলাকায় পাহাড়িদের জায়গা-জমি বেদখলের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। জনগণের প্রতিরোধের মুখে সেনা-সেটলারদের ষড়যন্ত্র, নীলনক্সা ভেস্তে গেলে তারা আবার নতুন চক্রান্ত নিয়ে মাঠে নেমেছে। তারই অংশ হিসাবে মানিকছড়ির লাপাইদং পাড়ায় গত ২ সেপ্টেম্বর রাতে পরিকল্পিতভাবে আবদুল মতিন নামে এক বাঙালিকে হত্যা করে উল্টো পাহাড়িদের উপর দোষ চাপাচ্ছে। এর মাধ্যমে তারা সাম্প্রদায়িক হামলা চালিয়ে পাহাড়িদের নিজ বসতভিটা ও জায়গা-জমি থেকে উচ্ছেদের ষড়যন্ত্র করছে। আব্দুল মতিন হত্যার ঘটানা সেনা সেটলারদের সাজানো নাটক ছাড়া আর কিছু নয় বক্তারা উল্লেখ করেন।

পথরোধ করে মিছিলে বাধা দেয়ার চেষ্টা করছে সেনাবাহিনী
পথরোধ করে মিছিলে বাধা দেয়ার চেষ্টা করছে সেনাবাহিনী। ছবি: সিএইচটি নিউজ ডটকম প্রতিনিধি

বক্তারা অভিযোগ করে আরো বলেন, সেনা-সেটলাররা ষড়যন্ত্রমূলকভাবে আব্দুল মতিনের হত্যার ঘটনাকে পুঁজি করে নানা ষড়যন্ত্র অব্যাহত রেখেছে। গত ৪ সেপ্টেম্বর জিয়ানগর গুচ্ছগ্রামের মো: মোজাম্মেলের নেতৃত্বে ৪০/৫০ জনের একদল সেটলার চোক্যাবিল গ্রামে পাহাড়িদের উপর হামলা চালিয়ে ৪ জনকে গুরুতর আহত করেছে। এর আগে ৩ সেপ্টেম্বর লাপাইদং পাড়ার বাসিন্দা রিপ্রুচাই মারমা ও উষামং মারমাকে সেটলারদের লেলিয়ে দিয়ে মারধর ও পুলিশের মাধ্যমে আটক করে মিথ্যা হত্যা মামলা দিয়ে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।

বক্তারা চোক্যাবিল গ্রামে ঢুকে পাহাড়িদের উপর হামলার ঘটনায় তীব্র নিন্দা জানিয়ে বলেন, সেনাবাহিনী ও প্রশাসন সবসময় সেটলারদের পক্ষে অবস্থান নিয়ে তাদেরকে পাহাড়িদের বিরুদ্ধে লেলিয়ে দিচ্ছে। যার কারণে সেটলাররা বার বার পাহাড়িদের জায়গা-জমি জোরপূর্বক বেখলের চেষ্টা করলেও তাদের বিরুদ্ধে কোন পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে না। উপরন্তু পাহাড়িদেরকেই ধরপাকড়, হয়রানি, ঘরবাড়ি তল্লাশিসহ নানা নিপীড়ন-নির্যাতন করা হচ্ছে।

সমাবেশ থেকে বক্তারা অবিলম্বে পাহাড়িদের উপর সাম্প্রদায়িক হামলার সাথে জড়িত সেটলারদের গ্রেফতার, আটক নিরীহ গ্রামবাসী রিপ্রুচাই মারমা ও ঊষামং মারমাকে নিঃশর্ত মুক্তি, সেটলারদের দিয়ে পাহাড়িদের জায়গা-জমি বেদখল বন্ধ করা, নিরাপত্তার নাম দিয়ে এলাকায় নির্মিত সেনা ছাউনী প্রত্যাহার, আবদুল মতিন হত্যার মতো সাজানো নাটক বন্ধ করা এবং গ্রামে গ্রামে সেনা তল্লাশি, হয়রানি ও অন্যায় ধরপাকড় বন্ধের জোর দাবি জানান।
——————–

সিএইচটিনিউজ.কম’র প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ব্যবহারের প্রয়োজন দেখা দিলে যথাযথ সূত্র উল্লেখপূর্বক ব্যবহার করুন।


Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.