পিসিপি’র মাটিরাঙ্গা ও গুইমারা উপজেলা শাখার কাউন্সিল সম্পন্ন

0
1

গুইমারা : ‘জাতীয় ক্রান্তিলগ্নে নিজেদেরকে দক্ষ ও যোগ্য নেতৃত্ব হিসেবে গড়ে তুলে অধিকার প্রতিষ্ঠার আন্দোলনে ছাত্র সমাজকে সংগঠিত করে লড়াই সংগ্রাম জোরদার করুন’  এই স্লোগানকে সামনে রেখে বৃহত্তর পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ(পিসিপি)-এর মাটিরাংগা উপজেলা শাখার ৯ম ও গুইমারা উপজেলা শাখার ৮ম কাউন্সিল যৌথভাবে সম্পন্ন হয়েছে।

PCP flag2আজ শুক্রবার (২৪ শে মার্চ ২০১৭), গুইমারা উপজেলা সদর এলাকায় অনুষ্ঠিত কাউন্সিল অধিবেশন শুরুতে গণতান্ত্রিক আন্দোলনে যারা শহীদ হয়েছেন তাদের প্রতি সম্মান জানিয়ে ২ মিনিট নিরবতা পালন করা হয়।

কাউন্সিলে বৃহত্তর পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ (পিসিপি) মাটিরাঙ্গা উপজেলা শাখার বিদায়ী কমিটি’র সভাপতি দিপংকর ত্রিপুরার সভাপতিত্বে ও কুলিন চাকমার সঞ্চলনায় বক্তব্য রাখেন, ইউনাইটেড পিপল্স ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট (ইউপিডিএফ)-এর মাটিরাংগা ও গুইমারা উপজেলার ইউনিটের সমন্বয়ক পণব ত্রিপুরা, বৃহত্তর পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ (পিসিপি) কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সাধারণ সম্পাদক রতন স্মৃতি চাকমা, খাগড়াছড়ি জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক অমল ত্রিপুরা, খাগড়াছড়ি সরকারি কলেজ শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক থুইলা প্রু মারমা, গণতান্ত্রিক যুব ফোরামের মাটিরাঙ্গা উপজেলা শাখার সহ-সভাপতি শুভ চাকমা ও হিল উইমেন্স ফেডারেশনের খাগড়াছড়ি জেলা শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক রেশমি মারমা প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, পার্বত্য চট্টগ্রামে বর্তমান যে পরিস্থিতি বিরাজ করছে এই পরিস্থিতিকে মোকাবেলা করতে হলে সংগ্রাম ছাড়া কোনো বিকল্প পথ নেই। সরকার ও শাসক গোষ্ঠী পার্বত্য চট্টগ্রামে সেনা শাসন বৈধতা দিয়ে এই পার্বত্য চট্টগ্রামকে নিয়ে যেভাবে ছিনিমিনি খেলা খেলছে এবং পাহাড়ি জাতিসত্তার উপর দমন পীড়ন চালাচ্ছে তা কোনভাবেই মেনে নেওয়া যায় না।

বক্তারা দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করে বলেন, বন্দুকের নল দেখিয়ে ছাত্র সমাজকে দমিয়ে রাখা যাবে না। যেমনি রাষ্ট্রীয় বাহিনী লেলিয়ে দিয়েও ’৮৯ সালে ছাত্র গণআন্দোলন ও ’৯২ সালে পার্বত্য চট্টগ্রামের ঐতিহাসিক লোগাঙ লংমার্চ স্তব্দ করা যায়নি। অত্যাচার-নিপীড়ন চালিয়ে জুম্ম জনণের ন্যায়সঙ্গত আন্দোলনকে কিছুতেই ধ্বংস করা যাবে না।

তারা অভিযোগ করে বলেন, খাগড়াছড়ি সরকারি কলেজের ছাত্রী ইতি চাকমার নির্মম হত্যাকা-কে ধামাচাপা দেওয়ার চক্রান্ত চলছে, তদন্ত নামে নানান হয়রানি শিকার হচ্ছে তার পরিবার ও বন্ধু-বান্ধবীরা। কিন্তু ইতি চাকমার প্রকৃত হত্যাকারীদের এখনো পর্যন্ত গ্রেফতার করতে পারেনি প্রশাসন।

বক্তারা আরো বলেন, সরকার পাঠ্য পুস্তকে সাম্প্রদায়িক বক্তব্য দিয়ে মৌলবাদকে উস্কে দিচ্ছে। তাই সে সব বিষয়ে ছাত্র সমাজকে সজাগ থাকতে হবে এবং পিসিপি’র শিক্ষা সংক্রান্ত পাঁচ দফা দাবি আদায়ের লক্ষ্যে আরো কঠোর আন্দোলন করতে হবে।

বক্তারা, নারী নির্যাতন, ভূমি বেদখল ও নিজেদের অস্তিত্ব রক্ষার্থে ঐক্যবদ্ধ হয়ে লড়াই সংগ্রামে এগিয়ে আসতে ছাত্র সমাজের প্রতি আহ্বান জানান।

পরে উপস্থিত সবার সম্মতিক্রমে নেপাল ত্রিপুরাকে সভাপতি, প্রদীপ ত্রিপুরাকে সাধারণ সম্পাদক ও রেহেনা চাকমাকে সাংগঠনিক সম্পাদক করে ১৯ সদস্য বিশিষ্ট মাটিরাঙ্গা উপজেলা কমিটি এবং অভি চাকমাকে সভাপতি, সুশীল ত্রিপুরাকে সাধারণ সম্পাদক ও মংশেনু মারমাকে সাংগঠনিক সম্পাদক নির্বাচিত করে ২১ সদস্য বিশিষ্ট গুইমারা উপজেলা কমিটি গঠন করা হয়।

নতুন কমিটির সদস্যদের শপথনামা পাঠ করান পিসিপি’র কেন্দ্রীয় সহ-সাধারণ সম্পাদক রতন স্মৃতি চাকমা।
———————

সিএইচটি নিউজ ডটকম’র প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ব্যবহারের প্রয়োজন দেখা দিলে যথাযথ সূত্র উল্লেখপূর্বক ব্যবহার করুন।


Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.