ফটিকছড়ির কাঞ্চনপুর এলাকায় চা-বাগানের ভূমিস্যুদের প্ররোচনায় পাহাড়িদের বসতবাড়িতে হামলা

1
0

সিএইচটি নিউজ ডটকম
400px-FatikchhariUpazilaনিজস্ব প্রতিনিধি : খাগড়াছড়ির লক্ষ্মীছড়ি উপজেলার পার্শ্ববর্তী ফটিকছড়ির কাঞ্চনপুর এলাকার সরকারী ডেবা নামক স্থানে কর্ণফুলী চা বাগানের ভূমিদস্যুদের প্ররোচনায় পাহাড়িদের বসতবাড়িতে হামলা, অগ্নিসংযোগ ও ভাঙচুর করেছে দুর্বৃত্তরা। গতকাল বুধবার (১৩ জানুয়ারি) বেলা ২:১৫টায় এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় সূত্রে প্রাপ্ত তথ্যে জানা যায়, প্রায় ২ বছর আগে পাহাড়িরা উক্ত এলাকায় ঘরবাড়ি তৈরি করে বসবাস করতে শুরু করে। যেখানে পাহাড়িরা বসতি গড়ে তোলে ঐ জায়গাটি কর্ণফুলী চা বাগান (ব্র্যাক পরিচালিত) এর ভূমিদস্যুরা তাদের বাগানের আওতাভূক্ত জায়গা বলে দাবি করে সেখান থেকে পাহাড়িদের তাড়িয়ে দিতে কৌশলে স্থানীয় বাঙালিদের উস্কে দিলে পূর্ব কাঞ্চনপুর থেকে শতাধিক লোক গিয়ে পাহাড়িদের বসতিতে হামলা চালায় এবং ঘরবাড়িতে অগ্নিসংযোগ করে। এতে ৭টি বাড়ি পুড়ে ছাই হয়ে যায়। এ সময় হামলাকারীরা অপর ৮টি বাড়ি ভাংচুর ও লুটপাট করে।

যাদর ঘরবাড়িতে অগ্নিসংযোগ করা হয় তারা হলেন- ১. দেব কুমার চাকমা (৪৫), ২.অমিত কুমার চাকমা (৩০), ৩. জ্ঞান চাকমা (২৭), ৪. অমর জ্যোতি চাকমা (২৩), ৫. লিন্টু চাকমা (৩৫), ৬. বাবুল্যা চাকমা (৪৫), ৭. সুরেশ চাকমা(৩০)।

এছাড়া যাদের বাড়িঘর ভাংচুর ও লুটপাট করা হয় তারা হলেন- ১. বুদ্ধমনি চাকমা(৬৫), ২. সন্তু চাকমা (৩০), ৩.মরচ্ছো চাকমা(৩৫), ৪. লেঙ্গু চাকমা(৪০), ৫. কেঙ্গেরা চাকমা(৩০), ৬. জুনাথ চাকমা(৪৫), ৭. সুজেন্দ্র চাকমা(৩৫), ৮. বসন্ত চাকমা(৩২)।

চা বাগানের ম্যানেজার ইলিয়াস আহম্মেদ-এর নেতৃত্বে এ হামলা চালানো হয়েছে বলে ক্ষতিগ্রস্ত পাহাড়িরা অভিযোগ করেছেন। হামলার সময় ফটিকছড়ি থানার ৮ জন পুলিশ সদস্যও হামলাকারীদের সাথে ছিল বলে তারা জানিয়েছেন।
—————–

সিএইচটিনিউজ.কম’র প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ব্যবহারের প্রয়োজন দেখা দিলে যথাযথ সূত্র উল্লেখপূর্বক ব্যবহার করুন।


Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.