সেনা-সেটলার হামলার এক বছর

বগাছড়িতে প্রদীপ প্রজ্জ্বলন করেছে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলো

0
0

সিএইচটি নিউজ ডটকম
Bogachari1নান্যাচর (রাঙামাটি): সেনা-সেটলার হামলার এক বছর পূর্তির প্র্রাক্কালে উপযুক্ত ক্ষতিপুরণসহ নিজ বাস্তভিটায় পুনর্বাসন ও প্রতিশ্রুতি মোতাবেক বাড়িঘর তৈরির দাবিতে প্রদীপ প্রজ্জলন করেছে বগাছড়ি ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলো।

মঙ্গলবার (১৫ডিসেম্বর) বিকাল ৫টায় বগাছড়ি করুণা বনবিহার মাঠে প্রদীপ প্রজ্জলন কর্মসূচিতে প্রায় দেড়শতাধিক ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের সদস্য সারিবদ্ধভাবে মোমবাতি জালিয়ে কর্মসূচি শুরু করেন। এরপর সংক্ষিপ্ত বক্তব্যের মাধ্যমে শেষ হয়।

Bogachari3প্রদীপ প্রজ্জ্বলন অনুষ্ঠানে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের পক্ষে বক্তব্য রাখেন ঘিলাছড়ি নারী নির্যাতন প্র্রতিরোধ কমিটির সভাপতি ও ক্ষতিগ্রস্ত কাজলী ত্রিপুরা ও তুষন চাকমা।

বক্তারা বলেন, গতবছর ১৬ ডিসেম্বর বিজয় দিবসে বিনা উস্কানিতে সেনা-সেটলাররা সুরিদাশ পাড়াসহ কয়েকটি গ্রামে অগ্নিসংযোগ করে। সেনা সদস্যরা প্রকাশ্যে গুলি চালিয়ে পাহাড়িদের ভীত সন্তস্ত্র করে এবং সেই সুযোগে সেটলাররা অর্ধশতাধিক ঘর বাড়িতে অগ্নিসংযোগ, ভাংচুর ও লুটপাট চালিয়ে ব্যাপক ক্ষয়-ক্ষতি সাধন করে।

বগাছড়িতে পাহাড়িদের ভূমি কেড়ে নেয়ার জন্য সেনাবাহিনী বরাবরই সেটলারদের সহায়তা দিয়ে থাকে বলে বক্তারা অভিযোগ করেন।Bogachari2

বক্তারা আরো বলেন, সরকার ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলোকে উপযুক্ত ক্ষতিপূরণসহ নিজ বাস্তভিটায় পুনর্বাসন ও বাড়িঘর তৈরি করে দেয়ার আশ্বাস দিলেও এখনো বাস্তবায়ন করেনি। উল্টো সুরিদাশ পাড়ায় অবৈধ সেনা চৌকি বসিয়ে ভয়ভীতি সৃষ্টি করছে। সেনারা রাতে বিরাতে নিরাপত্তার নামে হুমকিমূলক টহল দিয়ে নানা হয়রানি করছে।

বক্তারা অবিলম্বে উপযুক্ত ক্ষতিপূরণসহ ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলোকে নিজ বাস্তুভিটায় পুনর্বাসন, প্রতিশ্রুতি মোতাবেক বাড়িঘর তৈরি করে দেয়া এবং হামলাকারীদের যথাযথ শাস্তির দাবি জানান।
——————

সিএইচটিনিউজ.কম’র প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ব্যবহারের প্রয়োজন দেখা দিলে যথাযথ সূত্র উল্লেখপূর্বক ব্যবহার করুন।


Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.