বগাছড়ির ক্ষতিগ্রস্ত পাহাড়িদের পুনর্বাসন, হামলাকারীদের গ্রেফতার-শাস্তির দাবিতে চট্টগ্রামে মানববন্ধন

0
0

সিএইচটিনিউজ.কম
ctg human chain prgm 2, 15.02.2015চট্টগ্রাম: রাঙামাটির নান্যাচর উপজেলার বগাছড়িতে সেনা-সেটলার হামলায় ক্ষতিগ্রস্ত পাহাড়িদের ক্ষতিপূরণ প্রদানসহ নিজ বসতভিটায় পুনর্বাসন এবং হামলাকারীদের গ্রেফতার ও শাস্তির দাবিতে আজ রবিবার(১৫ ফেব্রুয়ারি) সকাল ১০ টায় চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের সামনে মানববন্ধন কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহত্তর পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ (পিসিপি) চট্টগ্রাম মহানগর ও চবি শাখা এবং গণতান্ত্রিক যুব ফোরাম মহানগর শাখার যৌথ উদ্যোগে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে রসকিত চাকমার সঞ্চালনায় ও গণতান্ত্রিক যুব ফোরামের চট্টগ্রাম মহানগর শাখার সভাপতি জিকু মারমার সভাপতিত্বে সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন পিসিপি’র চট্টগ্রাম মহানগর শাখার সভাপতি বিপুল চাকমা, চ.বি শাখার তথ্য ও পচার সম্পাদক সুনয়ন চাকমা ও গণতান্ত্রিক যুব ফোরামের নেতা বিজয় চাকমা। এতে আরো সংহতি জানিয়ে বক্তব্য রাখেন গণসংহতি আন্দোলন চট্টগ্রাম মহানগর শাখার সদস্য উবাথোয়াই মারমা, বাসদ (মার্কসবাদী) এর কোতোয়ালী থানা শাখার সাধারণ সম্পাদক বিশ্বময় দেব ও বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশন চট্টগ্রাম মহানগর শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক শওকত আলী। এছাড়া প্রগতিশীল মারমা ছাত্র সমাজ থেকেও সংহতি জানানো হয়।

বক্তারা বলেন, হামলার পর দুই মাস কেটে গেলেও তিনটি পাহাড়ি গ্রামের ক্ষতিগ্রস্ত ৫৭টি পরিবার এখনো খোলা আকাশের নীচে মানবেতর জীবন যাপন করছে। প্রতিশ্রুতি সত্ত্বেও তাদেরকে এখনো পুনর্বাসন করা হয়নি। পুনর্বাসনের ১ম কিস্তিতে ১৫টি ঘর নির্মাণের কথা থাকলেও প্রশাসনের পক্ষ থেকে মাত্র ৩টি ঘর নির্মাণ করা হয়েছে। তবে তাও এখনো অসম্পূর্ণ এবং সে ঘরগুলো সেনা সদস্যরা নিজেরাই বেদখল করে রেখেছে।

হামলাকারীদের বিরুদ্ধে আদালতে ৭টি মামলা দায়ের করা হলেও তারা এখনো দিব্যি ঘুরে বেড়াচ্ছে এবং স্থানীয় প্রশাসন ও সেনাবাহিনী তাদের পক্ষে কাজ করছে বলে বক্তারা অভিযোগ করেন।

বক্তারা পাবর্ত্য চট্টগ্রামে অব্যাহত ভূমি বেদখল ও নিপীড়ন-নির্যাতনের বিরুদ্ধে সংগঠিত হয়ে প্রতিবাদ-প্রতিরোধ জোরদার করার আহ্বান জানান।

মানববনধন থেকে বক্তারা অবিলম্বে ক্ষতিগ্রস্ত পাহাড়িদের ক্ষতিপূরণ প্রদানসহ নিজ বাস্তুভিটায় যথাযথ পুনর্বাসন, হামলাকারীদের গ্রেফতার ও শাস্তি নিশ্চিত করা, ক্ষতিগ্রস্ত পাহাড়িদের বিরুদ্ধে দায়েরকৃত মিথ্যা মামলা  তুলে নেয়া, ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা থেকে সেনা সদস্যদের প্রত্যাহার ও ক্ষতিগ্রস্তদের পুনর্বাসন কার্যক্রম শেষ না হওয়া পর্যন্ত নিয়মিত রেশনের ব্যবস্থা করার দাবি জানান।
———————

সিএইচটিনিউজ.কম’র প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ব্যবহারের প্রয়োজন দেখা দিলে যথাযথ সূত্র উল্লেখপূর্বক ব্যবহার করুন।


Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.