বাঘাইছড়িতে সেনা অভিযানের নামে হয়রানি-নির্যাতন বন্ধের দাবি জানিয়েছে ইউপিডিএফ

0
0
নিজস্ব প্রতিবেদক
সিএইচটিনিউজ.কম
 
রাঙামাটি জেলার বাঘাইছড়িতে ৫ টেলিটক কর্মীকে উদ্ধারে সেনা অভিযানের নামে নিরীহ লোকজনকে নির্যাতন ও হয়রানি বন্ধের দাবি জানিয়েছে ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট(ইউপিডএফ)। বাঘাইছড়ি উপজেলার ইউপিডিএফ’র প্রধান সংগঠক সমশান্তি চাকমা আজ বৃহস্পতিবার সংবাদ মাধ্যমে প্রদত্ত এক বিবৃতিতে এ দাবি জানান।বিবৃতিতে তিনি সেনা অভিযানের নামে সাধারণ নিরীহ লোকজনকে নির্যাতন ও হয়রানির তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন।

তিনি অভিযোগ করে বলেন, “৯ জুলাই থেকে চলা সেনা অভিযানে সাধারণ নিরীহ পাহাড়িদেরকে অহেতুক মারধর ও হয়রানি করা হচ্ছে। আজ ১৮ জুলাই বৃহস্পতিবার সকালে সেনাবাহিনীর সদস্যরা বঙ্গলতলী, বালুখালী, তিনধাল্যা ও রূপকারীসহ বিভিন্ন এলাকায় অপারেশন চালায়। এ সময় তারা বালুখালী গ্রামের জলঙ্গ কুমার চাকমার ছেলে জ্ঞানাঙ্কর চাকমাকে (৩৫) মারধর ও তার বড় ভাই সরণাঙ্কর চাকমার বাড়ি তল্লাশি করে। এছাড়া সেনারা একই গ্রামের লক্ষীরাজ চাকমা (৩২) ও স্নেহ কুমার চাকমাকে (৪৫) আটক করে নিয়ে যায়।
এর আগে সেনা সদস্যরা পশ্চিম বালুখালী গ্রামের পূর্ণদর্শী চাকমা (৫০), ঝগড়াবিল গ্রামের নোবেল চাকমা (১৯) ও রুবেল চাকমার (২২) কাছ থেকে মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নেয়।”
 
তিনি বলেন, বেশ কয়েকটি গ্রুপে ভাগ হয়ে সেনারা এই অভিযান চালাচ্ছে। তাদের নির্যাতন ও হয়রানির কারণে সাধারণ পাহাড়িদের মধ্যে চরম আতঙ্ক বিরাজ করছে।ইউপিডিএফ নেতা অবিলম্বে সেনা অপারেশনের নামে জনগণের উপর হয়রানি ও নির্যাতন বন্ধের দাবি জানান।

 

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.