বান্দরবানের লামা উপজেলায় এক কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগ

0
27
প্রতীকী ছবি

বান্দরবান ।। বান্দরবানের লামা উপজেলায় ১৩ বছরের এক কিশোরীকে [বাঙালি] ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

শওকত (২২) নামে এক যুবক ওই কিশোরীকে রাস্তা থেকে জোরপূর্বক তুলে নিয়ে জঙ্গলের ভিতর ধর্ষণ করেছে বলে ভিকটিমের পরিবার অভিযোগ করেছেন।

রবিবার (৪ অক্টোবর) দুপুরে ভিকটিম তার বোনের বাড়ি পার্শ্ববর্তী চকরিয়া ডুলাহাজরা ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ড পূর্ব রংমহল এলাকায় বেড়াতে যাওয়ার সময় এ ঘটনা ঘটে।

নির্যাতনের শিকার ওই কিশোরীকে চকরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হলে তার স্বাস্থ্যের অবনতি হলে তাকে কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালে রেফার করা হয়।

ভিকটিম কিশোরীর বাড়ি বান্দরবানের লামা উপজেলার ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নের পশ্চিম পাগলীর আগার আলি বাপেরজুম এলাকায়।

ভিকটিমের পরিবারের লোকজন জানান, আজ সোমবার (০৫ অক্টোবর) মেয়েটিকে চিকিৎসার জন্য কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালে নেয়া হয়েছে। তার স্বাস্থ্যের অবস্থা ভালো না।

ভিকটিমের পিতা জানান, রবিবার দুপুরে তার ১৪ বছরের কন্যা বাড়ি থেকে পায়ে হেঁটে ডুলাহাজরা রংমহল এলাকায় তার বড় মেয়ের বাড়িতে যাচ্ছিল। এ সময় পথিমধ্যে নির্জন স্থানে একা পেয়ে একই এলাকার আবুল কালামের ছেলে শওকত(২২) তাকে জোরপূর্বক সামাজিক বনায়নের ভেতর তুলে নিয়ে ধর্ষণ করে। এ সময় তার আর্তচিৎকার শুনে ঘটনাস্থলের অদূরে জঙ্গল কাটার কাজে নিয়োজিত এক শ্রমিক এগিয়ে গেলে ধর্ষক শওকত দ্রুত পালিয়ে যায়।

ধর্ষণকারী শওকত এর আগে এরকম আরো দুটি ঘটনা ঘটিয়েছে অভিযোগ করে স্থানীয়রা তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানিয়েছেন।

এ ঘটনায় জানতে চাইলে চকরিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শাকের মোহাম্মদ যুবায়ের সাংবাদিকদের বলেন, এ ধরনের ঘটনায় থানায় কেউ অভিযোগ দেননি। অভিযোগ পেলে জড়িত ব্যক্তির বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।


Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.