বোরকা সন্ত্রাসীদের খুন, অপহরণ, মুক্তিপণ আদায় ও চাঁদাবাজির প্রতিবাদে লক্ষ্মীছড়িতে বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত

0
0

লক্ষীছড়ি(খাগড়াছড়ি) প্রতিনিধি
সিএইচটিনিউজ.কম

লক্ষ্মীছড়িতে বোরকা পার্টি সন্ত্রাসীদের খুন, অপহরণ, মুক্তিপণ আদায় ও চাঁদাবাজিসহ সন্ত্রাসী কার্যকলাপের প্রতিবাদে ও অপহৃত ধন কুমার চাকমাকে উদ্ধারের দাবিতে লক্ষ্মীছড়ি ইউনিয়নের যতীন্দ্র কাবারী পাড়া ও দুল্যাতলী ইউনিয়নের চিল্যাতলীতে বিক্ষোভ সমাবেশ হয়েছে৷ বোরকা পার্টি প্রতিরোধ কমিটির ব্যানারে এই বিক্ষোভ সমাবেশের আয়োজন করা হয়।

সমাবেশে বক্তারা অবিলম্বে বোরকা সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ, অপহৃত ধন কুমার চাকমাকে উদ্ধারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ ও নির্মল চাকমার খুনীদের গ্রেফতারের দাবি জানান৷ অন্যথায় সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে ব্যাপক গণপ্রতিরোধ গড়ে তোলা হবে বলে তারা হুঁশিয়ারী উচ্চারণ করেন। এছাড়া সমাবেশ থেকে আগামী রবিবার থেকে এক সপ্তাহের জন্য লক্ষ্মীছড়ি বাজার বয়কট কর্মসূচী ঘোষণা করা হয়েছে।

আজ ৬ অক্টোবর দুপুর সকাল সাড়ে ১১টায় ১নং লক্ষ্মীছড়ি্ ইউনিয়নের মরাচেঙ্গীর যতীন্দ্র কার্বারী পাড়ায় অনুষ্ঠিত বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট (ইউপিডিএফ)-এর লক্ষ্মীছড়ি ইউনিটের নেতা অন্তর বড়ুয়া ও প্রত্যয় চাকমা। সমাবেশে পাঁচ শতাধিক নারী-পুরুষ অংশ নেন। সমাবেশ শুরু হওয়ার আগে এক বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়।

অন্যদিকে দুপুর ১২টায় দুল্যাতলী ইউনিয়নের চিল্যাতলীতে অনুষ্ঠিত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন বোরকা পার্টি প্রতিরোধ কমিটির আহ্বায়ক সুজেন্দ্র চাকমা, ইউপিডিএফ লক্ষ্মীছড়ি ইউনিটের প্রতিনিধি লক্ষ্মীধন চাকমা ও সিন্দুকছড়ি ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের মেম্বার নিল কুমার চাকমা।

বক্তারা অভিযোগ করে বলেন,একটি বিশেষ মহলের মদদে ও আশ্রয়ে বোরকা পার্টির সন্ত্রাসীরা লক্ষ্মীছড়িতে অবাধে খুন, অপহরণ, মুক্তিপণ আদায় ও চাঁদাবাজি করে যাচ্ছে। লক্ষ্মীছড়ি জোনের পাশে ব্যবসায়ীসহ সাধারণ মানুষের কাছ থেকে প্রতিদিন জোরপূর্বক অবৈধ চাঁদা তুললেও প্রশাসনের পক্ষ থেকে আজ পর্যন্ত তাদের বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা নেয়া হয়নি। বরং যারা এই বোরকাদের সন্ত্রাস প্রতিরোধ করতে চায় তাদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দেয়া হচ্ছে।

মেম্বার নিল কুমার চাকমা বলেন, “বোরকা সন্ত্রাসীদের কারণে লক্ষ্মীছড়িতে বসবাস করা কঠিন হয়ে পড়েছে। জনগণের জীবনে আর সুখ শান্তি নেই। সব সময় তাদেরকে চাঁদা দিতে হয়। না দিলে মেরে ফেলার হুমকী দেয়।” তিনি বোরকাদের সন্ত্রাস ও চাঁদাবাজির বিরুদ্ধে গণপ্রতিরোধ গড়ে তোলার জন্য সর্বস্তরের জনগণের প্রতি আহ্বান জানান।

সমাবেশ থেকে বক্তারা বোরকা পার্টির অব্যাহত খুন, সন্ত্রাস, অপহরণ, মুক্তিপণ আদায় ও চাঁদাবাজির প্রতিবাদে আগামী ৯ অক্টোবর থেকে ১৫ অক্টোবর এক সপ্তাহের জন্য লক্ষ্মীছড়ি বাজার বয়কট কর্মসূচী ঘোষণা করেন৷ বয়কট সফল করার জন্য লক্ষ্মীছড়ির সর্বস্তরের জনগণের প্রতি তারা আহ্বান জানান।

এছাড়া বিকেলসাড়ে ৩টায় লক্ষ্মীছড়ি উপজেলার বর্মাছড়ি ইউনিয়নের কুদুকছড়িতে অনুষ্ঠিতবিক্ষোভ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন লাবোছড়ি গ্রামের বিশিষ্ট মুরুব্বী ললিতকুমার চাকমা, ৮৫নং বর্মাছড়ি মৌজার হেডম্যান সাথোয়াই মারমা, কুদুকছড়িগ্রামের মুরুব্বী চাইলাপ্র- মারমা, হ্লে কুমার চাকমা, ব্যবসায়ী চাম্পাচাকমা, কুদুকছড়ি বাজারের ব্যবসায়ী নির্মল বড়ুয়া, পাহাড়ি ছাত্র পরিষদেরবর্মাছড়ি ইউনিয়ন শাখার নেতা উসাখই মারমা ও ইউনাইটেড পিপল ডেমোক্র্যাটিকফ্রন্টের (ইউপিডিএফ) বর্মাছড়ি ইউনিটের প্রতিনিধি রাজেশ চাকমা এবং অমরচাকমা

 


Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.