ভূমি বেদখলের প্রতিবাদে লক্ষ্মীছড়িতে বিক্ষোভ সমাবেশ

0
1

সিএইচটি নিউজ ডটকম
লক্ষ্মীছড়ি (খাগড়াছড়ি) প্রতিনিধি: লক্ষ্মীছড়ি ও মানিকছড়িতে সেনা, সেটলার ও ভূমিদস্যু কর্তৃক পাহাড়িদের জায়গা-জমি বেদখলের প্রতিবাদে লক্ষ্মীছড়িতে বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে এলাকাবাসী। লক্ষ্মীছড়ি উপজেলা ভূমি রক্ষা কমিটির উদ্যোগে লক্ষ্মীছড়ি উপজেলা সদর ও বাদী পাড়ায় পৃথকভাবে দু’টি সমাবেশের আয়োজন করা হয়।

Laxmichariবুধবার (৪ নভেম্বর) সকাল ১১টার দিকে লক্ষ্মীছড়ি উপজেলা সদরের কুশীনগর বনবিহার গেট এলাকায় অনুষ্ঠিত সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন ভূমি রক্ষা কমিটির নেতা নয়ন জ্যোতি চাকমা। এতে অন্যান্যের মধ্যে আরো বক্তব্য রাখেন- সমাজ সেবক ও বর্মাছড়ি ইউপি’র সাবেক চেয়ারম্যান স্বপন চাকমা, উপজেলা পরিষদের সদস্য মেরিনা চাকমা, লক্ষ্মীছড়ি ইউপি’র ৩নং ওয়ার্ডের মেম্বার নিচাই প্রু মারমা, সমাজে সেবক রতন চাকমা ও পিসিপি’র সাবেক নেতা আপ্রুসি মারমা প্রমুখ।

অপরদিকে, দুপুর ২টায় লক্ষ্মীছড়ি ইউনিয়নের বাদী পাড়ায় অনুষ্ঠিত সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন ভূমি রক্ষা কমিটির আহ্বায়ক বিজয়গিরি চাকমা। ইউপি মেম্বার অসীম চাকমার সঞ্চালনায় সমাবেশে আরো বক্তব্য রাখেন- ১নং লক্ষ্মীছড়ি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রাজেন্দ্র চাকমা, শুকনাছড়ি মৌজার হেডম্যান সুপ্রীতি বিকাশ দেওয়ান ও বর্মাছড়ি ইউপি চেয়ারম্যান প্রতুল কান্তি চাকমা প্রমুখ।

পৃথক সমাবেশে বক্তারা বলেন, সেনাবাহিনীর প্রত্যক্ষ সহযোগীতায় সেটলার ও ভূমি দস্যুরা লক্ষ্মীছড়ি ও মানিকছড়িতে পাহাড়িদের জায়গা-জমি বেদখল করছে। লক্ষ্মীছড়ি উপজেলায় রান্যামা ছড়া সহ বিভিন্ন জায়গায় গাজী ও আনিস কোম্পানী কর্তৃক বিভিন্ন বাগান সৃজনের নামে পাহাড়িদের জায়গা-জমি বেদখল করেছে। এছাড়া বান্যাছোলা, ভোলাছোলা, দোজরী এলাকায় ভাণ্ডার শরীফ ও চা বাগান সম্প্রসারণের নামে পাহাড়িদের জায়গা বেদখল করা হচ্ছে।

বক্তারা মানিকছড়িতে ভূমি বেদখলের ঘটনা উল্লেখ করে বলেন, মানিকছড়ি উপজেলার মনাদং পাড়াসহ বিভিন্ন স্থানে সেটলাররা পাহাড়িদের জায়গা-জমি বেদখলে নানা ষড়যন্ত্র করছে। আর সেনাবাহিনী তাদেরকে প্রত্যক্ষ-পরোক্ষভাবে সহযোগিতা করে যাচ্ছে। সেটলারদের সহযোগিতার লক্ষ্যে সম্প্রতি মনাদং পাড়ায় পাহাড়িদের জায়গা বেদখল করে একটি সেনাক্যাম্প স্থাপন করা হয়েছে।

বক্তারা অভিযোগ করে বলেন, গতকাল (৩ নভেম্বর) সেনাবাহিনী বর্মাছড়ি ইউনিয়নের কুতুকছড়ি দশবল বৌদ্ধ বিহারের জায়গায় ‘পরিত্যক্ত পুলিশ ক্যাম্প’ নামে একটি সাইনবোর্ড লাগিয়ে দিয়েছে। এটি চরম অন্যায় এবং পাহাড়িদের ধর্মীয় স্বাধীনতার উপর চরম আঘাতের সামিল।

বক্তারা অবিলম্বে লক্ষ্মীছড়ি ও মানিকছড়িতে সেটলার ও ভূমি দস্যু কর্তুক পাহাড়িদের জায়গা-জমি বেদখল বন্ধ করা, মনাদং পাড়ায় স্থাপিত সেনা ক্যাম্প প্রত্যাহার, দশবল বৌদ্ধ বিহারে লাগানো সাইনবোর্ড সরিয়ে নেয়া ও ধর্মীয় স্বাধীনতা নিশ্চিতের দাবি জানান।
—————

সিএইচটিনিউজ.কম’র প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ব্যবহারের প্রয়োজন দেখা দিলে যথাযথ সূত্র উল্লেখপূর্বক ব্যবহার করুন।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.