ভূমি বেদখল ও সেটলার পুনর্বাসনের ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে খাগড়াছড়িতে গণতান্ত্রিক যুব ফোরামের বিক্ষোভ

0
100

খাগড়াছড়ি ।। মহালছড়ির মাইসছড়িতে সাউপ্রু কার্বারী পাড়ায় মারমাদের শ্মশান ভূমি বেদখলের চেষ্টা এবং সাজেক, মারিশ্যা ও লংগদুর ডাকঘর মোন এলাকায় নতুন করে সেটলার বাঙালি পুনর্বাসনের ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে খাগড়াছড়িতে বিক্ষোভ মিছিল করেছে গণতান্ত্রিক যুব ফোরাম খাগড়াছড়ি জেলা শাখা।

আজ শনিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ দুপুর ১২টার দিকে খাগড়াছড়ি সদর এলাকায় বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, গণতান্ত্রিক যুব ফোরামের খাগড়াছড়ি জেলা শাখার দপ্তর সম্পাদক লিটন চাকমা ও পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের খাগড়াছড়ি জেলা শাখার সভাপতি সমর চাকমা।

বক্তারা বলেন পার্বত্য চট্টগ্রামে প্রশাসনের প্রত্যক্ষ মদদে সেটলার বাঙালি কর্তৃক ভূমি বেদখলের মাত্রা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। গত ১৬ সেপ্টেম্বর মাইসছড়ি সাউপ্রু কার্বারি পাড়ায় মারমা জাতিসত্তাদের যুগ যুগ ধরে ব্যবহৃত শ্মশানভূমি বেদখলের চেষ্টা চালিয়েছে সেটলাররা। তারা মৃতদেহ সৎকার কাজে বাধা প্রদান করেছে। এছাড়াও খাগড়াছড়ি, রাঙামাটি ও বান্দরবানের বিভিন্ন জায়গায় প্রতিনিয়ত ভূমি বেদখলের ঘটনা ঘটছে।

বক্তারা সাজেক, মারিশ্যা ও লংগদুর ডাকঘর মোন এলাকায় নতুন করে সেটলার পুনর্বাসন করার পরিকল্পনা গ্রহণের খবরে উদ্বেগ প্রকাশ করেন। তারা বলেন, পার্বত্য চট্টগ্রামে লক্ষ লক্ষ সেটলার বাঙালিকে পুনর্বাসন করে পাহাড়িদের জায়গা-জমি, ভিটেমাটি কেড়ে নেওয়া হয়েছে। আবার নতুন করে সেটলার পুনর্বাসনের মাধ্যমে পাহাড়ি উচ্ছেদের ষড়যন্ত্র করা হলে তা পার্বত্য চট্টগ্রামের জনগণ কখনো মেনে নেবে না।

বক্তারা পার্বত্য চট্টগ্রামে অব্যাহত ভূমি বেদখল ও পাহাড়ি উচ্ছেদের ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়িয়ে প্রতিরোধ সংগ্রাম গড়ে তোলার জন্য ছাত্র, যুব, নারী সমাজ তথা সর্বস্তরের জনগণের প্রতি আহ্বান জানান।

সমাবেশ থেকে বক্তারা অবিলম্বে পার্বত্য চট্টগ্রামে ভূমি বেদখল বন্ধ করা; সাজেক, মারিশ্যা ও লংগদুর ডাকঘর মোন এলাকায় সেটলার পুনর্বাসনের ষড়যন্ত্র বন্ধ করা এবং সেটলারদের পার্বত্য চট্টগ্রামের বাইরে সমতলে সরিয়ে নেয়ার দাবি জানান।


Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.