মহালছড়িতে সেনা-সেটলার হামলার ১২ বছর আজ

0
4

সিএইচটি নিউজ ডটকম
মহালছড়ি প্রতিনিধি : আজ ২৬ আগস্ট খাগড়াছড়ির মহালছড়িতে সেনা-সেটলার হামলার ১২ বছর পূর্ণ হল। ২০০৩ সালের আজকের এই দিনে সেনাবাহিনী ও সেটলার বাঙালিরা যৌথভাবে পাহাড়িদের ১০টি গ্রামে হামলা চালিয়ে প্রায় চারশত ঘরবাড়ি জ্বালিয়ে ছাই করে দেয়। সেদিন তাদের আক্রমণে নৃশংসভাবে খুন হন ৮০ বছরের বৃদ্ধ বিনোদ বিহারী খীসা।

মহালছড়ি হামলার চিত্র। ফাইল ছবি
মহালছড়ি হামলার চিত্র। ফাইল ছবি

হামলাকারীরা আট মাস বয়সী এক শিশুকে গলাটিপে হত্যা, ৯ জন জুম্ম নারীকে ধর্ষণ, ৪টি বৌদ্ধ মন্দির পুড়ে দেয়, বুদ্ধমূর্তি ভাংচুর করে এবং ব্যাপক লুটপাট চালায়। সেনা-সেটলারদের আক্রমনে সেদিন বহু পাহাড়ি আহত হয়।

এ হামলার ঘটনায় পার্বত্য চট্টগ্রামসহ দেশে-বিদেশে ব্যাপক প্রতিবাদ-বিক্ষোভের ঝড় ওঠে। সচেতন ও প্রগতিবাদী ব্যক্তি এবং বিভিন্ন সংগঠন, সংস্থা এ ঘটনার প্রতিবাদ ও নিন্দা জানান।

কিন্তু হামলার ১২ বছর অতিক্রান্ত হলেও হামলাকারী সেনা-সেটলারদের বিরুদ্ধে আজ পর্যন্ত শাস্তিমূলক কোন পদক্ষেপ নেয়া হয়নি। যার ফলে পার্বত্য চট্টগ্রামে পাহাড়িদের উপর প্রতিনিয়ত এ ধরনের সাম্প্রদায়িক হামলার ঘটনা ঘটেই চলেছে।

এ ঘটনার পর ধরাবাহিকভাবে মাইসছড়ি, সাজেক, খাগড়াছড়ি, শনখোলা পাড়া, তাইন্দং, বগাছড়ি সহ বিভিন্ন জায়াগায় বেশ কিছু সাম্প্রদায়িক হামলা সংঘটিত হয়েছে। সবচেয়ে লক্ষ্যণীয় বিষয় হচ্ছে, এসব হামলার প্রতিটি ঘটনায় পার্বত্য চট্টগ্রামে নিয়োজিত সেনাবাহিনীর কায়েমী স্বার্থবাদী অংশটি জড়িত রয়েছে। মুলত তারাই এসব সাম্প্রদায়িক হামলার মূল উস্কানিদাতা!

তাই, পার্বত্য চট্টগ্রামে সংঘটিত এসব সাম্প্রদায়িক হামলায় জড়িতদের বিচার ও শাস্তির দাবিতে ছাত্রসমাজ সহ সবাইকে সোচ্চার হতে হবে।
———————

সিএইচটিনিউজ.কম’র প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ব্যবহারের প্রয়োজন দেখা দিলে যথাযথ সূত্র উল্লেখপূর্বক ব্যবহার করুন।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.