মাটিরাঙ্গার তবলছড়িতে সেনা মদদপুষ্ট সন্ত্রাসী কর্তৃক এক পাহাড়ি রাবার শ্রমিককে মারধর

0
194
মারধরের শিকার হওয়া রাবার শ্রমিক সুমন চাকমা

মাটিরাঙ্গা প্রতিনিধি ।। খাগড়াছড়ির মাটিরাঙ্গা উপজেলার তবলছড়ি এলাকার পানছড়ি-মাটিরাঙ্গা সীমান্তবর্তী ঝর্ণাটিলা তুলাতলীতে সেনা মদদপুষ্ট নব্যমুখোশ সন্ত্রাসীরা সুমন চাকমা নামে এক রাবার শ্রমিককে বেদম মারধর করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

 আজ রবিবার (১২ সেপ্টেম্বর ২০২১) সকাল ১১ টায় এই মারধরের ঘটনা ঘটে।

মারধরের শিকার সুমন চাকমার বাড়ি খাগড়াছড়ি সদর উপজেলার ভাইবোন ছড়া ইউনিয়নর নাকশাতলী গ্রামে। তার পিতার নাম চিত্র মোহন চাকমা। তিনি গত দুই মাস আগে সাচিং মারমার রাবার বাগানে রাবারের কষ তোলার কাজে বেতনধারী শ্রমিক হিসেবে যোগ দিয়েছিলেন।

মারধরের শিকার হওয়া সুমন চাকমা জানায়, ‘সকালে রাবারের কষ তুলে আমি বাঙালি রাবার ব্যবসায়ীর সাথে হিসাব-নিকাশে ব্যস্ত ছিলাম। এমন সময় অতর্কিতভাবে বন্দুক তাক করা এক অস্ত্রধারী আমাকে পিছন দিক থেকে এসে ঝাপটে ধরে। এতে কোন কিছু বোঝার আগে আমাকে মারপিট শুরু করে দেয়। এমন সময় অন্যদিক থেকে আরো একজন অস্ত্রধারী এসে আমাকে বড় একটা লাঠি দিয়ে আঘাত করলে আমি মাটিতে লুটিয়ে পড়ি। তারপর ওরা আমাকে গামছা দিয়ে পিছমোড়া করে বেঁধে ইউপিডিএফ কর্মীদের দেখিয়ে দিতে বলে। তাদের কথায় ‘আমি কিছুই জানি না, মাত্র দু মাস হয়েছে আমি এখানে এসেছি’ বললেও ওরা বুকে লাথি মেরে মাটিতে লুটিয়ে ফেলে। এরপর আমি অজ্ঞান হয়ে পড়ি’।

প্রত্যক্ষদর্শীরা ১০-১২ জন সন্ত্রাসীর মধ্যে বাচ্চু চাকমা ওরফে লাম্বা সুজন নামে একজনকে চিনতে পেরেছন বলে জানিয়েছেন।

স্থানীয় এলাকাবাসী জানান, দীর্ঘদিন ধরে উক্ত এলাকায় পাহাড়িরা সেটলার বাঙালি কর্তৃক ভূমি বেদখলের শিকার হচ্ছেন। সম্প্রতি ঐ এলাকার পাহাড়িরা নিজেদের জায়গা-জমি রক্ষার জন্য প্রতিবাদ গড়ে তোলার চেষ্টা করছেন। জনগণের এই প্রতিবাদ দমন করার জন্য সেনাবাহিনী তাদের পোষ্য মুখোশ সন্ত্রাসীদের লেলিয়ে দিয়ে পরিস্থিতি ঘোলাটে করার চেষ্টা চালাচ্ছে বলে এলাকাবাসী ধারণা করছেন।


সিএইচটি নিউজে প্রকাশিত প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ,ভিডিও, কনটেন্ট ব্যবহার করতে হলে কপিরাইট আইন অনুসরণ করে ব্যবহার করুন।

সিএইচটি নিউজের ইউটিউব চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.