মাটিরাঙ্গায় ত্রিপুরা কিশোরীকে ধর্ষণের প্রতিবাদে খাগড়াছড়িতে এইচডব্লিউএফ’র বিক্ষোভ

0
0

খাগড়াছড়ি : গতকাল আন্তর্জাতিক নারী দিবসে মাটিরাঙ্গা উপজেলার গোমতি ইউনিয়নের গালামনি পাড়ায় ত্রিপুরা কিশোরীকে ধর্ষণ ও গুইমারায় নারী সমাবেশে সেনা-পুলিশের হামলার প্রতিবাদে আজ শুক্রবার (৯ মার্চ ২০১৮) খাগড়াছড়িতে বিক্ষোভ মিছিল করেছে হিল উইমেন্স ফেডারেশন খাগড়াছড়ি জেলা কমিটি।

খাগড়াছড়ি সদরের স্বনির্ভরস্থ ইউপিডিএফ এর কার্যালয়ের সামনে থেকে বেলা আড়াইটার দিকে শুরু হওয়া বিক্ষোভ মিছিলটি খাগড়াছড়ি সদর উপজেলা, কলেজ গেটের তালুকদার পাড়া হয়ে ঘুরে এসে স্বনির্ভর বাজার মোড়ে সমাবেশ করে।

রেশমি মারমার সঞ্চালনায় সমাবেশে বক্তব্য রাখেন হিল উইমেন্স ফেডারেশনের খাগড়াছড়ি জেলা শাখার সভাপতি দ্বিতীয়া চাকমা, পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের খাগড়াছড়ি জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক অমল ত্রিপুরা, গণতান্ত্রিক যুব ফেরামের খাগড়াছড়ি সদর থানা শাখার সাধারণ সম্পাদক অতুল চাকমা ও পিসিপি’র খাগড়াছড়ি কলেজ শাখার সাধারণ সম্পাদক জেসিম চাকমা।

বক্তারা পার্বত্য চট্টগ্রামসহ সারাদেশে নারী নির্যাতনের ঘটনা উদ্বেগজনক হারে বেড়ে চলেছে উল্লেখ করে বলেন, গতকাল আন্তর্জাতিক নারী দিবসে মাটিরাঙ্গায় গোমতিতে কুয়া থেকে পানি আনতে গিয়ে এক ত্রিপুরা কিশোরী সেটলার কর্তৃক ধর্ষণের শিকার। গত জানুয়ারি মাসে রাঙামাটির বিলাইছড়ি উপজেলার ফারুয়ায় নিজেদের বাড়িতে সেনা সদস্য কর্তৃক দুই মারমা বোনকে ধর্ষণ ও যৌন নির্যাতন করা হয়েছে। এসব ঘটনায় প্রমাণ করে পার্বত্য চট্টগ্রামে নারীরা কোথাও নিরাপদ নয়।

তারা গুইমারায় শান্তিপূর্ণ নারী সমাবেশে সেনা হামলার ঘটনা তুলে ধরে বলেন, সরকারি-বেসরকারিভাবে সারা দেশে নারী দিবস পালন করা হলেও খাগড়াছড়ির গুইমারা উপজেলায় শান্তিপূর্ণ সমাবেশে সেনাবাহিনী হামলা-ধরপাকড় চলিয়েছে। এ ঘটনায় এটাই প্রমাণ হয় যে সেনাবাহিনী পার্বত্য চট্টগ্রামে পাক হানাদার বাহিনীর ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছে।

সমাবেশে বক্তারা আরো বলেন, গত ৭ মার্চ স্বনির্ভরে তিন সংগঠনের শান্তিপূর্ণ সমাবেশ ভ-ুল করতে সেনা-পুলিশ বিনা উস্কানিতে হামলা চালিয়েছে। এসময় নারীদের সাথেও অসজৌন্যমূলক আচরণ করেছে সেনা সদস্যরা। কিন্তু এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে উল্টো ষড়যন্ত্রমূলকভাবে খাগড়াছড়ি সদর থানায় তিন সংগঠনের নেতা-কর্মীদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। তারা অবিলম্বে তিন সংগঠনের নেতা-কর্মীদের বিরুদ্ধে দায়েরকৃত মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানান।

বক্তারা সরকার-রাষ্ট্রীয় বাহিনীর অন্যায় ধরপাকড়, নির্যাতন-ধর্ষণ-খুন-গুম-হত্যা ও সকল ধরনের ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানোর জন্য ছাত্র-যুব-নারী সমাজের প্রতি আহ্বান জানান।

সমাবেশ থেকে বক্তারা মাটিরাঙ্গায় ত্রিপুরা কিশোরীকে ধর্ষণকারী মোহাম্মদ আলমের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি, গুইমারায় নারী সমাবেশে হামলার সাথে জড়িত সেনা-পুলিশ সদস্যদের চিহ্নিত করে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ ও পার্বত্য চট্টগ্রাম থেকে সেনা-সেটলার প্রত্যাহারের দাবি জানান।
————-
সিএইচটিনিউজ ডটকম’র প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ব্যবহারের প্রয়োজন দেখা দিলে যথাযথ সূত্র উল্লেখপূর্বক ব্যবহার করুন।


Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.