মানিকছড়িতে শহীদ মংশে মারমার ১১তম মৃত্যুবার্ষিকী পালিত

0
1

মানিকছড়ি(খাগড়াছড়ি) প্রতিনিধি
সিএইচটিনিউজ.কম

খাগড়াছড়ি জেলার মানিকছড়িতে গত ৩ ডিসেম্বর শহীদ মংশে মারমার ১১তম মৃত্যুবার্ষিকী পালিত হয়েছে। সকাল ১০টায় মানিকছড়ি উপজেলার বড়বিলে অবস্থিতি মংশে মারমার স্মৃতির উদ্দেশ্যে নির্মিত শহীদ স্মৃতিস্তম্ভে ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট(ইউপিডিএফ), পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ ও পরিবারের পক্ষ থেকে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়। এরপর দুপুর ১টায় মানিকছড়ি উপজেলার মনাছড়ি গ্রামে এক স্মরণসভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের খাগড়াছড়ি জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক আপ্রুসি মারমা। এছাড়া আরো বক্তব্য রাখেন পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের কেন্দ্রীয় সহ সভাপতি ক্যহ্লাচিং মারমা, কেন্দ্রীয় সদস্য সুব্রত ত্রিপুরা, ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট(ইউপিডিএফ)-এর মানিকছড়ি উপজেলা ইউনিটের প্রতিনিধি উজ্জ্বল মারমা,গণতান্ত্রিক যুব ফোরামের মানিকছড়ি থানা শাখার যুগ্ম আহ্বায়ক মংশেনু মারমা ও হাফছড়ি ইউনিয়নের মেম্বার উহ্লাপ্রু মারমা।

শহীদ মংশে মারমার মৃত্যু কখনো বৃথা যাবে না উল্লেখ করে বক্তারা বলেন, মংশে মারমা পূর্ণস্বায়ত্তশাসন আন্দোলনের একজন নিবেদিতপ্রাণ কর্মী ছিলেন। জেএসএস-এর সন্ত্রাসীরা তাকে খুন করলেও তার আদর্শকে খুন করতে পারেনি। তার আদর্শের বীজ থেকে পার্বত্য চট্টগ্রামে আরো হাজারো মংশের জন্ম নেবে।

বক্তারা পার্বত্য চট্টগ্রামের যুগ যুগ ধরে লাঞ্ছিত নিপীড়িত অধিকারহারা জনগণের মুক্তির সনদ পূর্ণস্বায়ত্তশাসনের আন্দোলনে সামিল হওয়ার জন্য সকলের প্রতি আহ্বান জানান।

উল্লেখ্য যে, বিগত ১৯৯৯ সালের ৩ ডিসেম্বর মানিকছড়ি কালাপানি এলাকায় জেএসএস-এর সন্ত্রাসীদের হাতে মংশে মারমা নির্মমভাবে খুন হন।

 


Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.