মানিকছড়িতে সেনাবাহিনী কর্তৃক পাহাড়িদের গ্রাম জ্বালিয়ে দেয়ার হুমকির প্রতিবাদে পিসিপি’র বিক্ষোভ

0
1

সিএইচটিনিউজ.কম
IMG0527Aখাগড়াছড়ি: খাগড়াছড়ির মানিকছড়ি উপজেলার বাতনাতলী ইউনিয়নের তবলা পাড়ায় সেটলার হামলা ও সেনাবাহিনী কর্তৃক পাহাড়িদের গ্রাম ও ঘরবাড়ি জ্বালিয়ে দেওয়ার হুমকির প্রতিবাদে বৃহত্তর পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ(পিসিপি) খাগড়াছড়িতে বিক্ষোভ মিছিল করেছে।

বুধবার(৩ ডিসেম্বর) সকাল সাড়ে ১১টায় পিসিপি খাগড়াছড়ি সরকারি কলেজ শাখার উদ্যোগে অনুষ্ঠিত বিক্ষোভ মিছিলটি  কলেজের দক্ষিণ গেট থেকে শুরু হয়। মিছিলটি চেঙ্গী স্কোয়ার হয়ে মহাজন পাড়া, নারিকেল বাগান ঘুরে চেঙ্গী স্কোয়ারে সংক্ষিপ্ত প্রতিবাদ সমাবেশে মিলিত হয়। এতে পিসিপি কলেজ শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক এল্টন চাকমার সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন সহ-সাধারণ সম্পাদক জেসীম চাকমা ও তেতুসা ত্রিপুরা।

বক্তারা বলেন, সেনাবাহিনী একদিকে তথাকথিত শান্তি চুক্তির ১৭ বছর পূর্তি উপলক্ষে শান্তিকামী সেজে জেলা পরিষদের মাধ্যমে বর্ণাঢ্য র‌্যালী, ফুটবল টুর্ণামেন্ট সহ বিভিন্ন অনুষ্ঠান আয়োজন করেছে, অন্যদিকে ভূমি বেদখলকারী নুরুল হকের পক্ষ নিয়ে মানিকছড়িতে পাহাড়িদের ঘর-বাড়ি পুড়িয়ে দেয়ার হুমকি দিচ্ছে। এতে আবারো প্রমানিত হলো যে, সেনাবাহিনীই পার্বত্য চট্টগ্রামের জনগণের নিরাপত্তার সবচেয়ে বড় হুমকি।

বক্তারা আরো বলেন,  সরকার পার্বত্য চট্টগ্রামে পর্যটন ও শান্তকরণ প্রকল্পের নামে তথাকথিত উন্নয়নের কথা বলে পাহাড়িদের ভূমি বেদখল, নিপীড়ন-নির্যাতনসহ জুম্ম ধ্বংসের বিভিন্ন নীল নক্সা প্রণয়ন করছে।

সমাবেশে বক্তারা নিথোয়াইঅং মারমাকে জখমকারী সেটলার নুরুল হক ও হুমকিদাতা সেনা সদস্যের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি ও ভূমি বেদখল বন্ধের দাবি জানান।

উল্যেখ্য, গত রবিবার নুরুল হক নামের ঐ ব্যক্তি পাহাড়িদের বাগান থেকে গাছ কাটতে গেলে বাধা দেওয়ার কারণে নিথোয়াইঅং মারমা(১৮) নামে এক যুবককে গুরুতরভাবে মাথায় জখম করে পালিয়ে যায়। এরপর পাহাড়িরা হামলা করেছে বলে অভিযোগ করে সেনাবাহিনীকে ঊস্কে দেয়। পরে সিন্দুকছড়ি জোন থেকে এক পিকআপ সেনা সদস্য এসে পাহাড়িদের শাসিয়ে যায় এবং  গ্রামবাসীদের উপর একপাক্ষিকভাবে চাপ দিতে থাকে। গ্রামবাসীরা এর প্রতিবাদ করতে গেলে গ্রাম ও ঘরবাড়ি পুড়িয়ে দেয়ার হুমকি দেয় নেইম প্লেইটহীন সেনাবাহিনীর এক সদস্য।
———-

সিএইচটিনিউজ.কম’র প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ব্যবহারের প্রয়োজন দেখা দিলে যথাযথ সূত্র উল্লেখপূর্বক ব্যবহার করুন।


Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.