মানিকছড়ি ও হাফছড়িতে ভূমি সমস্যা নিয়ে লাশ ফেলার হুমকি সিন্দুকছড়ি জোন কমান্ডারের

0
2

সিএইচটি নিউজ ডটকম
মানিকছড়ি প্রতিনিধি : খাগড়াছড়ির মানিকছড়ি উপজেলাধীন মনাদং পাড়া, বক্রি পাড়া ও রামগড় উপজেলাধীন হাফছড়িতে পাহাড়িদের সাথে সেটলার বাঙালিদের মধ্যেকার জায়গা-জমি সমস্যা (মূলত সেটলার কর্তৃক পাহাড়িদের জায়গা জোরপূর্বক বেদখল) নিয়ে সিন্দুকছড়ি জোন কমান্ডার রাব্বি আহসান (২৪ ফিল্ড আর্টিলারি) প্রয়োজনে ২/১ জন লাশ ফেলার হুমকি দিয়েছেন।

Humkiগতকাল রবিবার (৯ আগস্ট) সিন্দুকছড়ি জোনে মানিকছড়ি ও রামগড়ের কয়েকজন জনপ্রতিনিধিকে ডেকে পাঠিয়ে নিজ কার্যালয়ে আলোচনাকালে জোন কমান্ডার রাব্বি আহসান এমন হুমকি দেন বলে জানা গেছে। এ সময় তিনি জনপ্রতিনিধিদেরকে বলেন, মনাদং পাড়া, বক্রিপাড়া ও হাফছড়িতে চলমান ভূমি সমস্যা পাহাড়ি-বাঙালি উভয়ের সমস্যা। মানিকছড়ি ইউএনও এবং এডিসি’র মাধ্যমে শুনানী হবার পরও এর সমাধান হয়নি। উভয় পক্ষের মধ্যে আলোচনা সাপেক্ষে সমস্যাটি সমাধান করতে হবে। অবিলম্বে বাঙালিদের সাথে আপোষরফার মাধ্যমে সমস্যাটি সমাধান করা না হলে প্রয়োজনে এলাকায় ব্যাপক অপারেশন চালিয়ে দীঘিনালা বাবুছড়ার মতো পরিস্থিতি সৃষ্টি করে ২/১ জনের লাশ ফেলা হবে।

এ সময় তিনি আরো বলেন, রুইচিং প্রু মারমাকে (মানিকছড়ি ভূমি রক্ষা কমিটির সদস্য সচিব) আটকের পর হাফছড়ি ইউপি চেয়ারম্যান উশ্যে প্রু মারমার সুপারিশে তাকে একবারের জন্য ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। পরবর্তীতে এ ধরনের কোন ছাড় দেওয়া হবে না। কারোর সুপারিশও বিবেচনা করা হবে না।

এছাড়া তিনি ইউপিডিএফ নেতা সচিব চাকমাকে গ্রেপ্তারের হুমকি দিয়ে বলেছেন, এই এলাকায় সচিব চাকমা এসেছে খবর পেলেই ৪-৫ শ সেনাবাহিনী দিয়ে এলাকা ঘেরাও করে তাকে আটক করা হবে।

সিন্দুকছড়ি জোনে রবিবার দুপুর ১২টার সময় অনুষ্ঠিত আলোচনার সময় উপস্থিত ছিলেন- হাফছড়ি ইউপি চেয়ারম্যান উশ্যে প্রু মারমা, মানিকছড়ি ইউপি চেয়ারম্যান আবুল কালাম, পাতাছড়া ইউপি মেম্বার মানেন্দ্র চাকমা, মানিকছড়ি ইউনিয়নের ১ নং ওয়ার্ড মেম্বার আয়ুব আলী, মহিলা মেম্বার শিউলী বেগম প্রমুখ।

উল্লেখ্য, মানিকছড়ির মনাদং পাড়া, বক্রি পাড়া ও রামগড়ের হাফছড়িতে সেনাবাহিনীর প্রত্যক্ষ সহায়তায় সেটলার বাঙালিরা পাহাড়িদের জায়গা-জমি বেদখলের জোর প্রচেষ্টা চালাচ্ছে। এর বিরুদ্ধে পাহাড়িরা প্রতিবাদ বিক্ষোভ, মানববন্ধন ও দু’দফায় সড়ক অবরোধ কর্মসূচি পালন করেছে। আর এতেই ক্ষুব্ধ হয়েছেন সিন্দুকছড়ি জোন কমান্ডার রাব্বি আহসান। মূলত তিনিই ওই এলাকায় পাহাড়িদের জায়গা বেদখল করে সেটলার বাঙালিদের পুনর্বাসনের চেষ্টা চালাচ্ছেন। এ লক্ষ্যে সেনাবাহিনী রাতে-বিরাতে ওই এলাকায় পাহাড়ি জায়গা মালিকদের বাড়িতে হানা দিয়ে নানা হয়রানি করছে বলে এলাকাবাসী অভিযোগ করেছেন। যার ফলে এলাকার পাহাড়িরা চরম আতঙ্কে দিনযাপন করতে বাধ্য হচ্ছেন।
——————-

সিএইচটিনিউজ.কম’র প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ব্যবহারের প্রয়োজন দেখা দিলে যথাযথ সূত্র উল্লেখপূর্বক ব্যবহার করুন।


Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.