রমেল হত্যাকারী সেনা কর্মকর্তাদের গ্রেফতার ও শাস্তির দাবিতে খাগড়াছড়িতে পিসিপি’র বিক্ষোভ

0
0

খাগড়াছড়ি : পিসিপি নেতা ও নান্যাচর কলেজের ছাত্র রমেল চাকমা হত্যাকারী নান্যাচর জোন কমাণ্ডার বাহালুল আলম ও মেজর তানভীর গংদের গ্রেফতার ও বিচারের দাবিতে খাগড়াছড়িতে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে বৃহত্তর পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ(পিসিপি)।

আজ ১৯ এপ্রিল ২০১৮ রমেল হত্যার ১ম বার্ষিকীতে এই বিক্ষোভ মিছিলের আয়োজন করা হয়।

খাগড়াছড়ি সদর উপজেলা গেট থেকে বিকাল ৩টায় শুরু হওয়া বিক্ষোভ মিছিলটি নারাঙহিয়া রেডস্কোয়ার হয়ে স্বনির্ভর বাজারের শহীদ অমর বিকাশ চাকমার সড়কে গিয়ে সমাবেশের মধ্য দিয়ে শেষ হয়।

সমাবেশে বক্তব্য রাখেন পিসিপি’র কেন্দ্রীয় সহ সভাপতি বিপুল চাকমা ও খাগড়াছড়ি জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক অমল ত্রিপুরা।

বক্তারা অভিযোগ করে বলেন, রমেল চাকমাকে হত্যার আজ এক বছর পূর্ণ হলেও রাষ্ট্র এই হত্যাকা-ের বিচার করেনি। এখনো গ্রেফতার করা হয়নি খুনী নান্যাচর জোন কমা-ার বাহালুল আলম ও মেজর তানভীরকে। উপরন্তু তাদেরকে দিয়েই সরকার নান্যাচরসহ পার্বত্য চট্টগ্রামে খুন, গুম, অপহরণসহ নানা সন্ত্রাসী কর্মকা- চালিয়ে যাচ্ছে।

বক্তারা হুশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেন, রমেল হত্যার দ্রোহের আগুন পার্বত্য চট্টগ্রামসহ এদেশের ছাত্র সমাজের বুকে দাউ দাউ করে জ্বলছে। যতদিন এই দেশের মাটিতে রমেল হত্যার বিচার হবে না ততদিন পর্যন্ত ছাত্র সমাজের বুকে প্রতিশোধের আগুন জ্বলবে।

তারা আরো বলেন, বর্তমান ক্ষমতাসীন সরকার গণতন্ত্রের বুলি আওড়ালেও কার্যত পার্বত্য চট্টগ্রামে সেনা শাসন জারি রাখা হয়েছে। আজ রমেল চাকমা হত্যার ১ বছরপূর্তিতে রাঙামাটিতে কর্মসূচি পালনে সেনা-পুলিশ বাধা দিয়েছে। তারা প্রশ্ন রেখে বলেন, আমরা ভাইয়ের হত্যার বিচারের দাবিতে রাজপথে কথা বলতে পারি না, মা-বোনের নির্যাতনের বিরুদ্ধে মিছিল-সমাবেশ করতে পারি না তাহলে এটা কিসের গণতন্ত্র? সরকার পার্বত্য চট্টগ্রামসহ সারাদেশে সংবিধানস্বীকৃত গণতান্ত্রিক অধিকারকে রুদ্ধ করে রেখেছে বলে বক্তারা অভিযোগ করেন।

বক্তারা রমেল হত্যার বিচারের দাবিতে এবং সরকারের অন্যায়-অত্যাচারের বিরুদ্ধে ছাত্র সমাজসহ সর্বস্তরের জনগণকে সোচ্চার হওয়ার আহ্বান জানান।

সমাবেশ থেকে বক্তারা, অবিলম্বে রমেল চাকমার হত্যাকারী জোন কমান্ডার বাহালুল আলম, মেজর তানভীর গংদের গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি ও পার্বত্য চট্টগ্রামসহ সারাদেশের জনগণের মত প্রকাশের স্বাধীনতা নিশ্চিত করার দাবি জানান।

উল্লেখ্য, গত বছর ৫ এপ্রিল নান্যাচর জোন কমান্ডার বাহালুল আলম ও মেজর তানভীরে গং কর্তৃক উপজেলা উপজেলা পরিষদ এলাকা থেকে ছাত্র নেতা ও নান্যাচর কলেজের এইচএসসি পরীক্ষার্থী রমেল চাকমাকে আটক করে টেনেহিঁচড়ে জোনে নিয়ে যাওয়া হয়। এরপর দিনভর অমানুষিক নির্যাতনে রমেল গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়লে সেনারা তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ১৯ এপ্রিল তিনি মারা যান।
—————
সিএইচটি নিউজ ডটকম’র প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ব্যবহারের প্রয়োজন দেখা দিলে যথাযথ সূত্র উল্লেখপূর্বক ব্যবহার করুন।


Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.