রাঙামাটিতে পিসিপি’র বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত: পার্বত্য চট্টগ্রামের পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ

0
154

রাঙামাটি ।। বৃহত্তর পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ (পিসিপি)-এর ২য় কেন্দ্রীয় বর্ধিত সভা রাঙামাটিতে অনুষ্ঠিত হয়েছে। গত ১৪-১৫ জুলাই ২০২১ এই বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় পিসিপির কেন্দ্রীয় সভাপতি সুনয়ন চাকমা, সাধারণ সম্পাদক সুনীল ত্রিপুরাসহ কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

দু্ইদিন ব্যাপী চলা এই বর্ধিত সভায় পিসিপি’র কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ পার্বত্য চট্টগ্রামের সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন।

সভায় নেতৃবৃন্দ বলেন, করোনা ভাইরাসের ফলে সারাদেশে যে পরিস্থিতি এসে দাঁড়িয়েছে তা মোকাবিলা করতে সরকার ব্যর্থ হয়েছে। শ্রমিক-কৃষক মেহনতি মানুষের জীবন-জীবিকা নিশ্চিত না করে সরকার সারাদেশে কখনো লকডাউন, কখনো শাটডাউন আর কখনো সবকিছু খুলে দিয়ে এক জগখিচুড়ি পরিস্থিতি তৈরি করেছে। অগ্রাধিকার ভিত্তিতে শিক্ষার্থীদের করোনা টিকা ব্যবস্থা না করে, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রেখে শিক্ষা ব্যবস্থা বিপর্যয়ের মূখে ঠেলে দিয়েছে। এমন পরিস্থিতিতেও পার্বত্য চট্টগ্রামে পাহাড়ি জনগণের ওপর সরকার ও রাষ্ট্রীয় বাহিনী নিপীড়ন-নির্যাতন বাড়িয়ে তুলেছে।

নেতৃবৃন্দ পার্বত্য চট্টগ্রামের পরিস্থিতি তুলে ধরে উদ্বেগ প্রকাশ করে বলেন, কোভিড-১৯ অতিমারির সময়েও পার্বত্য চট্টগ্রামে রাষ্ট্রীয় নিপীড়ন থেমে নেই। পার্বত্য চট্টগ্রামে রাষ্ট্রীয় বাহিনীর ক্যাম্প স্থাপন, রাস্তা নির্মাণ ও পর্যটনের নামে পাহাড়িদের ভূমি বেদখলের পাঁয়তারা চলছে। গুইমারায় সিন্দুকছড়ির পক্ষীমুড়ো, মাটিরাঙ্গায় তাইন্দং এলাকায় পাহাড়িদের জায়গা, বান্দরবানে ম্রোদের চিম্বুক (নাইতং) পাহাড় বেদখলের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। সেনাবাহিনী কর্তৃক সাইনবোর্ড টাঙিয়ে দিয়ে রাঙামাটির কুদুকছড়ি, নান্যাচর ও বাঘাইছড়িতে বৌদ্ধ বিহারে জায়গা দখল করার পাঁয়তারা চালাচ্ছে। শুধু ভূমি বেদখল নয় পার্বত্য চট্টগ্রামে রাজনৈতিক কর্মীদের ওপর নিপীড়ন অব্যাহত রয়েছে। সিন্দুকছড়িতে ভূমি বেদখলের প্রতিবাদে সাজেকে জনগণের সমাবেশে হামলা চালিয়ে পিসিপি সাজেক থানা শাখার সভাপতি রূপায়ন চাকমাকে অন্যায়ভাবে আটক করেছে। ‘পঞ্চদশ সংশোধনী’ বাতিলের দাবিতে গুইমারার বাইল্যাছড়িতে পোষ্টার লাগানোর সময় ইউপিডিএফের সদস্যসহ চারজন ও রাতের আঁধারে গুইমারা শনখোলা পাড়ায় এক ইউপিডিএফ সদস্যসহ ৪ জনকে আটক করেছে। পার্বত্য চট্টগ্রামে এমন পরিস্থিতিতে পাহাড়ি জনগণ আতঙ্কিত এবং করোনা মহামারিতে সরকার ও রাষ্ট্রীয় বাহিনীর এসব কর্মকাণ্ডে আমরা উদ্বেগ প্রকাশ করছি।

সভা থেকে নেতৃবৃন্দ অবিলম্বে রাষ্ট্রীয় বাহিনী কর্তৃক ক্যাম্প সম্প্রসারণসহ পর্যটন-রাস্তা নির্মাণের নামে ভূমি বেদখল ও রাজনৈতিক নেতাকর্মীদের অন্যায় ধরপাকড় বন্ধসহ সর্বোপরি পার্বত্য চট্টগ্রামে গণতান্ত্রিক পরিবেশ নিশ্চিত করার আহ্বান জানান।

পিসিপি’র কেন্দ্রীয় দপ্তর সম্পাদক শুভাশীষ চাকমা স্বাক্ষরিত প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।


সিএইচটি নিউজে প্রকাশিত প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ,ভিডিও, কনটেন্ট ব্যবহার করতে হলে কপিরাইট আইন অনুসরণ করে ব্যবহার করুন।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.