রাঙামাটিতে মিতালি চাকমার বাবা-মাসহ ৩ গ্রামবাসীকে আটক করে নিয়ে গেছে সেনাবাহিনী

0
4

রাঙামাটি : রাঙামাটি সদর উপজেলার সাপছড়ি ইউনিয়নের বোধিপুর গ্রাম থেকে সেনাবাহিনীর হেফাজতে জিম্মি অবস্থায় থাকা গৃহবধু মিতালি চাকমার বাবা-মাসহ ৩ গ্রামবাসীকে আটক করে নিয়ে গেছে সেনাবাহিনী।

গতকাল মঙ্গলবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) বিকালে এ ঘটনা ঘটে।

যাদেরকে ধরে নিয়ে যাওয়া হয়েছে তারা হলেন  মিতালি চাকমার বাবা ও মা যথাক্রমে ধনমনি চাকমা ও রূপনা চাকমা এবং একই গ্রামের কার্বারী বিজয় কুমার চাকমার ছেলে পুতুল চাকমা।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গতকাল বিকাল ৩টার সময় দু’জন মুখোশ বাহিনীর দুর্বৃত্তকে সাথে নিয়ে একদল সেনা সদস্য বোধিপুর গ্রামে হানা দেয়। এ সময় মুখোশরা কালো কাপড়  দিয়ে মুখ ঢাকা অবস্থায় ছিল। সেনারা প্রথমে নিজ বাড়ি থেকে পুতুল চাকমাকে আটক করে এবং পরে মিতালির বাবা-মাকেও আটক করে নিয়ে যায়।

এরপর সেনারা পুতুল চাকমাকে কুদুকছড়ি ক্যাম্পে রেখে মিতালির বাবা-মাকে খাগড়াছড়ির দিকে নিয়ে যায় বলে খবর পাওয়া গেছে।

ইউপিডিএফ-এর রাঙামাটি জেলা ইউনিটের সংগঠক সচল চাকমা এক বিবৃতিতে উক্ত আটকের ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন এবং আটক গ্রামবাসীদের অবিলম্বে মুক্তি দেয়ার দাবি করেছেন।

উল্লেখ্য, গত বছর ১৭ নভেম্বর রাতে সেনাবাহিনীর সদস্যরা মিতালী চাকমাকে কুদুকছড়ির ডলুছড়ি গ্রামের তার শ্বশুর বাড়ি থেকে স্বামী সঞ্জীব চাকমা, শ্বশুর প্রসন্ন কুমার চাকমা ও শ্বাশুরী সুনন্তা চাকমাসহ আটক করে। এরপর সেনারা মিতালি চাকমাকে নিজেদের হেফাজতে নিয়ে গিয়ে বাকীদের কারাগারে প্রেরণ করে।

উক্ত ঘটনার পর ২ ডিসেম্বর মিতালির বাবা ধনমনি চাকমা, মা রূপনা চাকমাসহ পরিবারের সদস্যরা মিতালি চাকমাকে উদ্ধারের দাবি জানিয়ে জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের বরাবরে স্মারকলিপি দিয়েছিলেন।
——————-
সিএইচটি নিউজ ডটকম’র প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ব্যবহারের প্রয়োজন দেখা দিলে যথাযথ সূত্র উল্লেখপূর্বক ব্যবহার করুন।


Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.