রাঙামাটিতে হিল উইমেন্স ফেডারেশনের সংবাদ সম্মেলন : কল্পনা চাকমা অপরহণের নিরপেক্ষ বিচার বিভাগীয় তদন্ত এবং অপহরণকারীদের গ্রেফতার ও শাস্তির দাবি

0
1

রাঙামাটি প্রতিনিধি
সিএইচটিনিউজ.কম
 
HWF Rangamatiকুদুকছড়ি : হিল উইমেন্স ফেডারেশনের নেত্রী কল্পনা চাকমা অপহরণের নিরপেক্ষ বিচার বিভাগীয় তদন্ত এবং অপহরণকারীদের গ্রেফতার ও শাস্তির দাবি জানিয়েছে হিল উইমেন্স ফেডারেশনআজ ১৫ জানুয়ারি মঙ্গলবার রাঙামাটির কুদুকছড়িতে অনুষ্ঠিত এক সংবাদ সম্মেলন থেকে সংগঠনের নেতারা এ দাবি জানান
কুদুকছড়ি ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে দুপুর ১টায় অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন হিল উইমেন্স ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় সভাপতি কণিকা দেওয়ানএ সময় কল্পনা চাকমার ভাই কালিন্দী কুমার চাকমাসহ অন্যান্যের মধ্যে আরো উপস্থিত ছিলেন ঘিলাছড়ি নারী নির্যাতন প্রতিরোধ কমিটির নেত্রী শান্তি প্রভা চাকমা ও সাজেক নারী সমাজের সভাপতি নিরূপা চাকমা
সংবাদ সম্মেলন থেকে কল্পনা চাকমার অপহরণকারী লেফটেন্যান্ট ফেরদৌস, ভিডিপি সদস্য নুরুল হক ও সালেহ আহমেদকে আসামী করে কল্পনা চাকমা অপহরণের বিচার বিভাগীয় তদন্তের নির্দেশ দেয়া এবং উক্ত বিচার বিভাগীয় কমিটি পাহাড়ি-বাঙালি প্রতিনিধির সমন্বয়ে গঠন করা, অবিলম্বে উপরোক্ত তিন অপহরণকারীসহ কল্পনা চাকমা অপহরণ ঘটনার সাথে জড়িত সকলকে গ্রেফতার পূর্বক দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা করা ও অপরাধীদের শাস্তি না হওয়া পর্যন্ত বাঘাইছড়ি থানা হেফাজতে থাকা অপহরণের আলামত সংরণ করার দাবি জানানো হয়

লিখিত বক্তব্যে কণিকা দেওয়ান কল্পনা চাকমা অপহরণের সুষ্ঠু বিচার ও দোষীদের শাস্তির দাবি জানিয়ে বলেন, পার্বত্য চট্টগ্রামসহ দেশবাসীর দাবি কল্পনা চাকমা অপহরণের সুষ্ঠু বিচার ও দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেয়া হোককিন্তু ঘটনার প্রত্যদর্শীদের দ্বারা অপহরণকারীদের তিন জন সনাক্ত হওয়া সত্বেও বিগত ১৬ বছরেও তাদেরকে গ্রেফতার করে বিচারের আওতায় নিয়ে আসা হয়নিবরং তদন্তের নামে দোষী ব্যক্তিদের রার চেষ্টা করা হয়েছেহাইকোর্টের অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতির নেতৃত্ত্বে তদন্ত কমিশনের প্রতিবেদন, বাঘাইছড়ি থানা পুলিশ ও সর্বশেষ সিআইডির চূড়ান্ত রিপোর্ট পপাতদুষ্ট, একপেশে ও অসঙ্গতিপূর্ণঅপহরণ ঘটনার সাথে লেফটেন্যান্ট ফেরদৌস, নুরুল হক ও সালেহ আহম্মদের জড়িত থাকার পে পর্যাপ্ত তথ্য প্রমাণ ও স্যা থাকার পরও এসব রিপোর্টে তাদের কাউকে অভিযুক্ত করা হয়নিএ কারণে হিল উইমেন্স ফেডারেশনসহ পার্বত্য চট্টগ্রামের জনগণ, দেশের সচেতন, প্রগতিশীল ও বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ এবং বিভিন্ন মানবাধিকার সংগঠন ওই তদন্ত রিপোর্ট প্রত্যাখ্যান করেছে এবং বিচার বিভাগীয় তদন্তের মাধ্যমে অপহরণকারীদের বিচার ও শাস্তির দাবি জানিয়েছে

লিখিত বক্তব্যে কণিকা দেওয়ান কল্পনা চাকমা অপহরণের পর অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি আবদুল জলিলের নেতৃত্বাধীন তদন্ত কমিশনের প্রতিবেদন এবং বাঘাইছড়ি থানা পুলিশের ও সিআইডির চূড়ান্ত রিপোর্ট সম্পর্কে মতামত তুলে ধরেনতিনি ঘটনা তদন্তে গঠিত সকল তদন্ত কমিটির পদ্ধতিগত ও সাক্ষ্য গ্রহণে দুর্বলতা, প্রত্যক্ষদর্শীদের সাক্ষ্যকে গুরুত্ব না দেয়া এবং বিশেষ গোষ্ঠীর অপপ্রচারণায় প্রভাবিত হওয়ার বিষয়টি উল্লেখ করেন
লিখিত বক্তব্যে তিনি আরো বলেন, শুরু থেকেই অপরাধীদের বাঁচানোর জন্য সরকার ও সেনাবাহিনী মরিয়া প্রচেষ্টা চালিয়ে আসছেঘটনার পর এফআইআর-এ লেফটেন্যান্ট ফেরদৌস ও দুই ভিডিপি সদস্যের নাম না লিখে অজ্ঞাতনামা লেখা, বাদী কালিন্দ কুমার চাকমাকে এফআইআর পড়ে না শোনানো, বিভিন্ন অপপ্রচারণা ও গুজব ছড়ানো, তদন্ত কমিটির সদস্যদের ঘটনাস্থল পরিদর্শনে না যাওয়া, গুরুত্বপূর্ণ সাক্ষীদের জবানবন্দী না নেয়া, দায় এড়ানোর জন্য তদন্তের নামে eyewash — ইত্যাদি সবই অপরাধীদের রক্ষার উদ্দেশ্যে পরিকল্পিতভাবে করা হয়েছে
তিনি কল্পনা অপহরণ ঘটনা তদন্তে গঠিত সকল তদন্ত কমিটির রিপোর্ট প্রত্যাখ্যান করে বলেন, আমরা দ্ব্যর্থহীনভাবে বলতে চাই, অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি আবদুল জলিলের তদন্ত প্রতিবেদন এবং পুলিশ ও সিআইডির চূড়ান্ত রিপোর্ট নিরপেক্ষ, বস্তুনিষ্ঠ ও পক্ষপাতহীন নয় বরং এতে চিহ্নিত অপহরণকারীদের রক্ষা করা হয়েছেতাই উক্ত প্রতিবেদনগুলো কোনভাবে গ্রহণযোগ্য নয়আমরা আমাদের সংগঠনের পক্ষ থেকে উক্ত তিনটি প্রতিবেদন প্রত্যাখ্যান করছি
সংবাদ সম্মেলনে হিল উইমেন্স ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় সভাপতি কণিকা দেওয়ান ও অপহৃত কল্পনা চাকমার বড় ভাই কালিন্দী কুমার চাকমা সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন
সংবাদ সম্মেলন শেষে কুদুকছড়ি ইউপি কার্যালয়ের সামনে থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়মিছিলটি কুদুকছুড়ি বাজার প্রদক্ষিণ করে আবার ইউপি কার্যালয়ের সামনে এসে শেষ হয়এ সময় হিল উইমেন্স ফেডারেশনের সভাপতি কণিকা দেওয়ান ও পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের রাঙামাটি জেলা শাখার সভাপতি বিলাস চাকমা সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রাখেন।#
……..

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.