পলিপাড়া ও নানাক্রুম এলাকাবাসীর ডাকে

রাঙামাটি-খাগড়াছড়ি সড়কে সকাল-সন্ধ্যা অবরোধ পালিত

0
1

rangamati2রাঙামাটি : হয়রানিমূলক মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারপূর্বক গতকাল (সোমবার) সেনাবাহিনী কর্তৃক আটক ৫ নিরীহ পাহাড়িকে নিঃশর্ত মুক্তি, ভূমি বেদখল রোধ ও বেদখলকৃত জায়গা ফেরত ও ক্ষতিগ্রস্ত ব্যক্তিদের ক্ষতিপূরণ প্রদানের দাবিতে এবং প্রশাসনের পক্ষপাতিত্ব আচরণের প্রতিবাদে বুড়িঘাট ইউপি’র পলিপাড়া ও নানাক্রুম এলাকার পাহাড়িদের ডাকে আজ মঙ্গলবার (১৩ ডিসেম্বর) রাঙামাটি-খাগড়াছড়ি সড়কে সকাল-সন্ধ্যা অবরোধ পালিত হয়েছে।

অবরোধের কারণে রাঙামাটি-খাগড়াছড়ি সড়ক যোগাযোগ বন্ধ ছিল।

অবরোধ চলাকালে সকাল ১০টার দিকে একদল সেনা সদস্য কুদুকছড়ি উপর পাড়া(আবাসিক) দোকান থেকে বিনা কারণে অনন্ত চাকমা ও মায়াধন চাকমা নামে দুই যুবককে আটক করে। এর মধ্যে মায়াধন চাকমা আনসার সদস্যের ট্রেনিংয়ে যাচ্ছিলেন। পরে অর্ধেক রাস্তা থেকে অনন্ত চাকমাকে ছেড়ে দিলেও মায়াধন চাকমাকে নান্যাচর থানায় নিয়ে যাওয়া হয়। অবশ্য বিকালে সেখান থেকে তাকেও ছেড়ে দেওয়া হয়।

অপরদিকে সাপছড়ি ইউনিয়নের বোধিপুর এলাকা থেকে অনিল চাকমা নামে কৃষি প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটের এক ছাত্রকে আটক করেছে সেনাবাহিনীর সদস্যরা। তাকে নান্যাচর থানায় নেওয়া হয়েছে বলে জানা গেছে। সন্ধ্যা পর্যন্ত তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়নি।

এছাড়া বিকাল ৩টায় একদল সেনা সদস্য বেতছড়ি বাজারে বিমলেন্দু চাকমা (৪৫) নামে এক কাচা তরিতরকারী ব্যবসায়ীকে মারধর করেছে বলে খবর পাওয়া গেছে।

এলাকাবাসীর পক্ষ থেকে অংসা প্রু মারমা গতকাল সোমবার এই অবরোধ কর্মসূচির ঘোষণা করেন। আজকের সকাল-সন্ধ্যা অবরোধ সফল করায় তিনি এলাকার জনগণের প্রতি ধন্যবাদ জানিয়েছেন।

উল্লেখ্য, গত বৃহস্পতিবার (৮ ডিসেম্বর) সেটলাররা পাহাড়িদের জায়গা জোরপূর্বক বেদখলের উদ্দেশ্যে জঙ্গল কাটতে গেলে পাহাড়িরা প্রতিরোধ করে। পরে সেনাবাহিনীর সহযোগিতায় সেটলাররা পাহাড়িদের আনারস ক্ষেত নষ্ট করে দেয়। কিন্তু সেনাবাহিনী ও প্রশাসন উল্টো সেটলারদের পক্ষ নিয়ে পাহাড়িদের অন্যায়ভাবে আটকসহ নানা হয়রানি করছে। ফলে ওই এলাকার পাহাড়িরা আতঙ্কের মধ্যে দিনযাপন করতে বাধ্য হচ্ছেন।
——————

সিএইচটি নিউজ ডটকম’র প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ব্যবহারের প্রয়োজন দেখা দিলে যথাযথ সূত্র উল্লেখপূর্বক ব্যবহার করুন।


Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.