রাঙ্গামাটিতে সেনাপ্রশাসনের বাধা সত্ত্বেও ছাত্রনেতা রমেল চাকমা’র ১ম শহীদ বার্ষিকী পালন

0
1

রাঙ্গামাটি : সেনাবাহিনীর বাধার মুখে শহীদ পিসিপি নেতা ও নান্যাচর কলেজ ছাত্র রমেল চাকমা’র ১ম শহীদ বার্ষিকী রাঙ্গামাটি সদর উপজেলার সাপছড়িতে অনুষ্ঠিত হয়। এতে ইউপিডিএফ, পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ(পিসিপি), গণতান্ত্রিক যুব ফোরাম(ডিওয়াইএফ) ও হিল উইমেন্স ফেডারেশন(এইচডব্লিউএফ)’র নেতা-কর্মী, সমর্থক ও শুভাকাঙ্খীরা উপস্থিত ছিলেন।

গতকাল ১৯ এপ্রিল (বৃহস্পতিবার) সকাল ১০.০০ ঘটিকার সময় “সেনা হেফাজতে ছাত্র নেতা রমেল চাকমা চিহ্নিত হত্যাকারীদের গ্রেফতার করে বিচারের আওতায় এনে যথোপযুক্ত শাস্তির দাবিতে”  কুদুকছড়ি বড় মহাপুরুম স্কুল মাঠে সমাবেশ করার থাকলেও সেনা প্রশাসনের বাধায় সেখানে করা সম্ভব হয়নি। সেনাবাহিনী সমাবেশ ভন্ডুল করে দিতে সমাবেশের জন্য নির্ধারিত স্থানসহ মাউরুম কলেজ, ধর্মঘর, আবাসিক, বোধিপুর এলাকায় দিনব্যাপী অবস্থান নেয় এবং দুটি জীপ দিয়ে সেনা সদস্যরা রাঙ্গামাটি-খাগড়াছড়ি সড়কে মানিকছড়ি টু কুদুকছড়ি পর্যন্ত টইল দেয়।

পরবর্তীতে বাধা উপেক্ষা করে বিকাল ৩টায় সাপছড়িতে নির্মিত অস্থায়ী শহিদ বেদিতে পুষ্পস্তবক অর্পনের মধ্য দিয়ে সংক্ষিপ্তকারে শহিদ ছাত্র নেতা রমেল চাকমা’র ১ম শহিদ বার্ষিকী পালন করা হয়। এতে তার সংগ্রামী ও প্রতিবাদী চেতনার প্রতি সম্মান জানিয়ে ইউপিডিএফ, পিসিপি, ডিওয়াইএফ ও এইচডব্লিউএফের নেতা-কর্মীরা পুষ্পস্তবক অর্পন করেন।

উল্লেখ্য, গত বছর ৫ এপ্রিল নান্যাচর জোন কমান্ডার বাহালুল আলম ও মেজর তানভীরে গং কর্তৃক উপজেলা উপজেলা পরিষদ এলাকা থেকে ছাত্র নেতা ও নান্যাচর কলেজের এইচএসসি পরীক্ষার্থী রমেল চাকমাকে আটক করে টেনেহিঁচড়ে জোনে নিয়ে যাওয়া হয়। এরপর দিনভর অমানুষিক নির্যাতনে রমেল গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়লে সেনারা তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ১৯ এপ্রিল তিনি মারা যান।

————————-

সিএইচটি নিউজ ডটকম’র প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ব্যবহারের প্রয়োজন দেখা দিলে যথাযথ সূত্র উল্লেখপূর্বক ব্যবহার করুন।


Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.