রামগড়ে পাহাড়ি গ্রামে দিনভর তাণ্ডব চালিয়েছে বিজিবি-সেটলার বাঙালিরা

0
1

রামগড় প্রতিনিধি।। খাগড়াছড়ির রামগড় উপজেলার ২নং পাতাছড়া ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের হাচৌক পাড়ায় (তৈছাগারা) পাহাড়িদের ঘরবাড়ি ভাংচুর, লুটপাটসহ দিনভর তাণ্ডব চালিয়েছে বিজিবি ও সেটলার বাঙালিরা।

জানা যায়, আজ শনিবার (২৭ জানুয়ারি ২০১৮) সকাল ৮টার দিকে রামগড় ৪৩ বিজিবি ব্যাটালিয়নের টু-আইসি মোঃ জাহিদ এর নেতৃত্বে ৩৫-৪০ জনের একদল বিজিবি সদস্য কালাডেবা লামকু হতে ২ গাড়ি সেটলার বাঙালিকে সাথে নিয়ে হাচৌক পাড়ায় গিয়ে প্রথমে নিচাই ত্রিপুরা(৪০) পিতা- পদ্ম কুমার ত্রিপুরার নির্মাণাধীন বাড়ি ভেঙে দেয়।

এরপর সেটলার বাঙালিরা নিচাই ত্রিপুরার ভাই পতিন্দ্র ত্রিপুরার বাড়িতে গিয়ে কাপড়-চোপড় তছনছ ও থালাবাসন ভাংচুর করে দেয় এবং তার ব্যবহৃত দা, কুড়াল লুট করে নিয়ে যায়।

বিজিবি সদস্যদের উপস্থিতিতে সেটলাররা সরেন বালা ত্রিপুরা (৪৫), স্বামী পনেন্দ্র ত্রিপুরা-কে গালে চড়-থাপ্পর মারে এবং এক সপ্তাহের মধ্যে ঘরবাড়ি ছেড়ে সেখান থেকে চলে যেতে হুমকি দেয়।

এরপর সেটলার বাঙালিরা জয়সেন ত্রিপুরা (৪৫), পিতা- ধরেন্ত ত্রিপুরার বাড়িতে ঢুকে তার রান্নার চুলা ভাংচুর করে এবং কাপড়-চোপড়, কোদাল লুট করে নিয়ে যায়।

বিকাল ৫ টা পর্যন্ত বিজিবি ও সেটলাররা সেখানে অবস্থান করে এমন তাণ্ডব চালায় এবং পাহাড়িদের হুমকি-ধামকি ও ভয়ভীতি প্রদর্শন করে। পরে চলে যাবার সময় এক সপ্তাহের মধ্যে সেখান থেকে চলে না গেলে ঘরবাড়ি ভেঙে দেওয়া হবে বলে হুমকি দিয়ে যায়।

উল্লেখ্য, গত ২৫ জানুয়ারি বিজিবি’র একদল সদস্য উক্ত গ্রামে গিয়ে এক পাহাড়িকে মারধর করে এবং অপর তিন পাহাড়ির বাড়িতে গিয়ে ঘরবাড়ি ছেড়ে সেখান থেকে চলে যেতে নির্দেশ দেয়। ঘরবাড়ি ছেড়ে চলে না গেলে তাদেরকে বিভিন্ন ধরনের হয়রানি করার হুমকিসহ তাদের বসবাসকৃত জায়গাটি সেটলার বাঙালিদের দেওয়া হবে বলেও বিজিবি’র সদস্যরা হুমকি দেয়। একই দিন উক্ত গ্রামের এক নিরীহ ব্যক্তিকে অস্ত্র গুঁজে দিয়ে বিজিবি’র সদস্যরা আটক করে।
——————-
সিএইচটি নিউজ ডটকম’র প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ব্যবহারের প্রয়োজন দেখা দিলে যথাযথ সূত্র উল্লেখপূর্বক ব্যবহার করুন।


Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.