রুমায় বিজিবি হেডকোয়ার্টার স্থাপনে ২৫একর ভূমি অধিগ্রহণ প্রক্রিয়া বাতিলের দাবীতে এলাকাবাসীর মানববন্ধন

0
0
বান্দরবান প্রতিনিধি
সিএইচটিনিউজ.কম

রুমা :  বান্দরবান পার্বত্য জেলার রুমা উপজেলার পাইন্দু ও পলি মৌজায় বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)  ব্যাটালিয়ন হেডকোয়ার্টার স্থাপনের জন্য ২৫একর ভূমি অধিগ্রহণ প্রক্রিয়া বন্ধ করা ও তিনটি মারমা আদিবাসী গ্রামের অসহায় পরিবারসমূহের উচ্ছেদ থেকে রক্ষা করার দাবীতে মানববন্ধন করেছে এলাকাবাসী।

পাইন্দু ও পলি মৌজাবাসীর ব্যানারে গতকাল রবিবার বেলা ১০টা থেকে ১০টা ৪৫মিনিট পর্যন্ত উপজেলা সদরে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার এলাকায় প্রধান সড়কে এ মানববন্ধন করা হয়। এসময় রাস্তায় লাইনে দাঁড়িয়ে প্রায় দুইশ পঞ্চাশ জন নারী-পুরুষ এলাকার সাধারণ লোকের অংশগ্রহনের মধ্যে এই মানববন্ধন করেছে। নতুন করে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)  ব্যাটালিয়ন হেডকোয়ার্টার স্থাপনের ভূমি অধিগ্রহণ প্রক্রিয়া বন্ধ দাবী নিয়ে মানবন্ধন শেষে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের মাধ্যমে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বরাবরে স্মারকলিপি পেশ করা হয়।

এসময় উপজেলা নির্বাহী অফিসার(ইউএনও) মোহাম্মদ মারুফুর রশিদ খান জানান, বিষয়টি অতি গুরুত্ব সহকারে উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের কাছে জানাবেন বলে মানববন্ধন পালনকারীদের আশস্থ করেন তিনি।

পেশকৃত স্মারকলিপিতে বলা হয়, বিজিবি কর্তৃপক্ষ এলাকার জনপ্রতিনিধিদের না জানিয়ে অত্যন্ত গোপনীয়ভাবে বিজিবি ব্যাটালিয়ন সদর দপ্তর স্থাপনের লক্ষ্যে আদিবাসীদের গ্রাম ও গ্রামের জমি বেদখল করার ষড়যন্ত্র করছে। পাইন্দু ও রুমা এই দু’টি মৌজার জমিতে ব্যাটালিয়ন সদর দপ্তর স্থাপন করে, তাহলে আদিবাসীদের ৩টি গ্রামের ৫০০টির অধিক পরিবার উচ্ছেদ হবে এবং ওইসব গ্রামবাসী ভূমিহীন হয়ে পড়বে।
স্বারকলিপিতে আরো বলেছেন, ব্যাটালিয়ন সদর স্থাপনের করার লক্ষ্যে বিজিবি কর্তৃৃপক্ষ গ্রাম থেকে আদিবাসীদের উচ্ছেদ করার প্রক্রিয়া শুরু করে দিয়েছে।বিজিবি‘র এই ভূমি অধিগ্রহনের প্রক্রিয়ায় পার্বত্য চট্টগ্রামের আইন, বিধি, প্রথা বা কোনো নিয়ম-কানুন অনুসরণ করা হয়নি অভিযোগ করেন। এজন্য প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ ও সহযোগিতা কামনা করেন আদিবাসীরা।স্মারকলিপি দেয়ার আগে পাইন্দু মৌজা হেডম্যান মংচউ মারমা সভাপতিত্বে অন্যন্যের মধ্যে বক্তব্য দেন ইউপি মেম্বার গংবাসে মারমা, ছাইপো পাড়া কারবারি মংবাউ মারমা, মিঅংপ্রু মারমা ও খাইসাঅং মারমা প্রমুখ।

বক্তারা বলেছেন, যুগ-যুগ ধরে বসবাসরত স্থানীয়দের এসব ভোগদখলীয় জমি অধিগ্রহন করা হলে তাদের জনজীবন বিপন্ন হয়ে বেঁচে থাকা অধিকার হরণ করার সামিল হবে। তাই পাইন্দু ও পলি মৌজায় বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)  ব্যাটালিয়ন হেডকোয়ার্টার স্থাপনের ভূমি অধিগ্রহণ প্রক্রিয়া বন্ধের দাবীতে যেকোনো কর্মসূচিতের অংশ নেয়ার একাবাসীর প্রতি আহবান জানানো হয়।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.