রোয়াংছড়িতে পাথর উত্তোলনের মহোৎসব, পরিবেশ বিপর্যয়ের আশঙ্কা

0
0

বান্দরবান প্রতিনিধি, সিএইচটিনিউজ.কম

ক্রিংদাইং ঝিরি থেকে উত্তোলিত বোল্ডার পাথর মেশিন দিয়ে ভাঙানো হচ্ছে।
ক্রিংদাইং ঝিরি থেকে উত্তোলিত বোল্ডার পাথর মেশিন দিয়ে ভাঙানো হচ্ছে।

বান্দরবানে রোয়াংছড়ি উপজেলার ঘেরাউ এলাকায় ক্রিংদাইং ঝিরি থেকে বোল্ডার পাথর উত্তোলনের মহোৎসব চলছে। পাথর উত্তোলন পারমিটের(সরকারি অনুমতি পত্র) এর শর্তে মাটি খুঁড়ে বা পাহাড় কেটে পাথর উত্তোলন না করার কথা থাকলেও তা মানা হয়নি। ঘেরাউ মৌজা প্রধান শৈসাঅং হেডম্যানের নামে ৩৪৯নম্বর ঘেরাউ মৌজায় বলগা পাশের ঝিরি,ছোট বৈক্ষ্যং ঝিরি ও ঘেরাউ প্রাংসা ঝিরি থেকে বিশ হাজার ঘনফুট পাথর উত্তোলনের জন্য জেলা প্রশাসকের কার্যালয় থেকে অনুমতি পত্র দেয়া হলেও অনুমতি পত্রের শর্ত ভঙ্গ করে পাথর উত্তোলন করা হয়েছে ক্রিংদাইং ঝিরি থেকে।

এলাকাবাসী লাবুসে মারমা জানায়,শৈ সা অং হেডম্যানের নামে অনুমতি পত্রের শর্ত ভঙ্গ করা হয়েছে। নির্ধারিত ঝিরি থেকে পাথর উত্তোলন করা হয়নি। মাটি খুঁড়ে এবং ক্রিংদাইং ঝিরির বিভিন্ন স্থানে বাঁধ দিয়ে  ঝিরির গতিরোধ করা হয়েছে। ঝিরির প্রায় দুই কিলোমিটার এলাকাজুড়ে পাহাড় কেটেছে। মাটি খুঁড়ে উত্তোলন করা হয়েছে বোল্ডার পাথর। এতে ঝিরির পানি শুকিয়ে যাচ্ছে। দেখা দিয়েছে পরিবেশ বিপর্যয়ের আশঙ্কা ।

গ্রামবাসী মুইঅং মারমা(৭৫) জানান, ক্রিংদাইং ঝিরিতে পাথর নেই। সব উত্তোলন হয়েছে। পাথর নেই তো,ঝিরিতে পানি নেই। পানি না থাকলে ঝিরিতে মাছ,কাঁকড়া,চিংড়ি,শামুকও বিলুপ্ত হয়ে যাচ্ছে। পানি ঘোলাতে হয়ে দূষিত হচ্ছে।

বোল্ডার পাথর ক্রেতা আবুল বশর জানান, শৈসাঅং হেডম্যানের দেখানো ঝিরি থেকে পাথর উত্তোলন করা হয়েছে। তবে মাটি খুঁড়ে ও পাহাড় কেটে পাথর উত্তোলনের বিষয়টি নিয়ে কথা বলতে রাজি হননি তিনি।

পরিবেশ কর্মী জুয়াম লিয়ান আমলাই জানান, পাথর উত্তোলনের অনুমতি পত্রের শর্ত  মানা হচ্ছেনা। নির্ধারিত ঝিরি থেকে পাথর উত্তোলন না করে অন্য ঝিরি থেকে তুলছে বেআইনিভাবে।এটি খতিয়ে দেখার সময় হয়েছে। পরিবেশ বাঁচাতে পাথর উত্তোলনের কার্যক্রম সম্পূর্ণভাবে বন্ধ করা প্রয়োজন।

মৌজা প্রধান শৈসাঅং হেডম্যান জানান, তাঁর নামে বিশ হাজার ঘনফুট পাথর উত্তোলনের  অনুমতি আছে। তিনি বৈধভাবে এবং পাথর উত্তোলন অনুমতি পত্রের শর্ত মেনেই পাথর উত্তোলন করছেন বলে দাবি করেন।

রোয়াংছড়ি উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ ইসমাইল হোসেন সরেজমিনে তদন্ত করে বেআইনির কোন কাজ পেলে প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া কথা জানান।


Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.