লংগদুতে ছাত্রী ধর্ষণে অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষক আব্দুর রহিম পলাতক?

0
186
ছাত্রীকে ধর্ষণের ঘটনায় অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষক মো. আব্দুর রহিম

রাঙামাটি ।। রাঙামাটির লংগদুতে এক কলেজ পড়ুয়া ছাত্রীকে ধর্ষণে অভিযুক্ত করল্যাছড়ি আর এস উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. আবদুর রহিম মামলা হওয়ার পর পলাতক রয়েছেন বলে পুলিশ জানিয়েছে।

গত ৫ অক্টোবর ভিকটিম ছাত্রীর মা বাদী হয়ে লংগদু থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। এরপর থেকে তিনি পলাতক রয়েছেন বলে পুলিশের ভাষ্য।

তবে পুলিশের এ বক্তব্য মানতে রাজী নয় এলাকাবাসী। তারা বলছেন মামলা হওয়ার আগে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ মিডিয়ায় তার বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছে। ‍পুলিশ তার বিরুদ্ধে আইনানুগ পদক্ষেপ না নিয়ে পালিয়ে যাওয়ার সুযোগ দিলো কেন?

ভিকটিম ছাত্রীর মা জানান, গত ২৫ সেপ্টেম্বর নিজেদের পালিত ছাগল খুঁজতে বিদ্যালয়ের দিকে যায় তার মেয়ে। ঠিক সে সময় বিদ্যালয়ে ছিলেন প্রধান শিক্ষক মো. আব্দুর রহিম। এ সময় মেয়েকে দেখতে পেয়ে আব্দুর রহিম লেবু নিয়ে যাওয়ার কথা বলে বিদ্যালয়ের ভেতর ডাকেন। মেয়েটি বিদ্যালয়ে প্রবেশ করার তাৎক্ষণিক সময়ে দরজা বন্ধ করে প্রধান শিক্ষক মেয়েটির শরীরে হাত দেয় এবং ভয়-ভীতি দেখিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে এবং ঘটনাটি কাউকে বললে প্রাণ নাশের হুমকি দেয়। পরে মেয়েটি বাড়ি ফিরলে বাসায় কারোর সাথে কথা না বলে চুপ করে করে বসে থাকে। এক পর্যায়ে মেয়েটি ঘটনার বিস্তারিত খুলে বলে।

তিনি এ ঘটনার সুষ্ঠূ বিচার ও ধর্ষক আব্দুর রহিমের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করেন।

এ বিষয়ে রাঙামাটির অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ছুফিউল্লাহ (প্রশাসন) জনান, লংগদুতে পাহাড়ি এক কলেজ পড়ুয়া ছাত্রীকে ধর্ষণের মামলা হয়েছে। লংগদু থানায় মামলাটি নেওয়া হয়েছে। অভিযুক্ত আসামিকে পুলিশ খুঁজছে। বর্তমানে সে পলাতক রয়েছে। আশা করছি শীঘ্রই আসামি পুলিশের হাতে ধরা পড়বে। 

তিনি ভিকটিম ওই ছাত্রী মঙ্গলবার রাঙামাটি জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে ২২ ধারায় ধর্ষণের ঘটনার জবানবন্দি দিয়েছেন বলেও জানিয়েছেন।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.