লংগদুতে শিশু অপহরণকারী আটক

0
18
সিএইচটি নিউজ বাংলা, ৩ মে ২০১৩, শুক্রবার

লংগদু প্রতিনিধি: লংগদু উপজেলায় মাঈন উদ্দিন নামের ৫মাসের এক শিশুকে অপহরণ করে নিয়ে পালানোর সময় এক মহিলাকে আটক করেছে থানা পুলিশ। আটককৃত ওই মহিলার নাম নাজমা আক্তার(২০)। তার রাঙামাটি কাঠালতলী এলাকায় তার পিতার নাম লাল মিঞা ওরফে জব্বারের কন্যা বলে আটককৃত ওই মহিলা জানান।

লংগদু থানার এস আই অঞ্জন কুমার দে জানান, শুক্রবার ১১টার সময় আটককৃত নাজমা আক্তার, কালাপাকুজ্জা ইউনিয়নের মুসলিমপুর এলাকা থেকে আব্দুল মান্নানের ৫মাসের ছেলে শিশু মাঈন উদ্দীনকে অপহরণ করে পালিয়ে যায়। পরে সে খাগড়াছড়ি যাওয়ার জন্য উপজেলা বাইট্টাপাড়া বাজারে মোটর বাইক ষ্টেশনে এসে মোটর বাইক ভাড়া করার চেষ্ঠা করে। এসময় শিশুটি অজোরে কান্না করতে থাকলে মোটর বাইক চালক শিশুকে দুধ খাওয়াতে বলে।


কয়েকবার বলার পরও ওই যুবতি কর্ণপাত না করায় তখন তার প্রতি সন্ধেহ করে। এক পর্যায়ে ওই যুবতী যাত্রী চাউনির আড়ালে গিয়ে শিশু অপহরণের বিষয়ে গোফন কথা বলার সময় বাইক চালক তা শুনতে পেয়ে তখন স্থানীয় লোকন নিয়ে থাকে আটকে রেখে লংগদু থানায় খবর দিলে পুলিশ শিশু সহ ঐ যুবতীকে আটক করে। এদিকে অপহৃত শিশুটির পিতা মাতা খবর পেয়ে থানায় তাদের সন্তানকে নিতে আসে।

এ রির্পোট লেখা পর্যন্ত ঐ যুবতী নাজমার বিরুদ্ধে শিশু অপহরণের মামলা হচ্ছে বলে লংগদু থানার এস আই অঞ্জন কুমার দে জানিয়েছেন।

অপহৃত শিশুটির পিতা আব্দুল মান্নান জানান, ‘‘অপহরণকারী নাজমার বাবা মা একসময় আমাদের গ্রামে বসবাস করত। পরে তারা বাড়ী ঘর বিক্রি করে চলে যায়। পরিচিতির সুবাদে নাজমা মাঝে মধ্যে আমার বাসায় বেড়াতে আসে। কয়েক দিন থেকে চলে যায়। কয়েকদিন হল নাজমা বেড়াতে এসেছে।

আজ সকালে আটটার দিকে আমার স্ত্রী বাচ্ছাটিকে তার কোলে দিয়ে বাড়ীর পাশে ক্ষেতে গেলে এসুযোগে নাজমা বাচ্ছাটিকে নিয়ে পালিয়ে যায়। পরে আমরা সবাই এলাকায় অনেক খোঁজ করে না পেয়ে বাইট্টাপাড়া বজারে মোটর চালককে মোবাইল করলে তখন জানতে পারি শিশু সহ এক যুবতিকে আটক করা হয়েছে। পরে থানায় গিয়ে আমাদের সন্তানকে ফেরত পাই’’।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.