সাম্রাজ্যবাদ বিরোধী ছাত্র ঐক্যের বিবৃতি

লকডাউনে শ্রমজীবী মানুষকে হয়রানি বন্ধ ও পর্যাপ্ত খাদ্য ও চিকিৎসা নিশ্চিত করার দাবি

0
34

ঢাকা ।। সাম্রাজ্যবাদ বিরোধী  ছাত্র ঐক্যের নেতৃবৃন্দ এক যুক্ত বিবৃতিতে চলমান লকডাউনে সরকার জনগণের দায়িত্ব না নেওয়ায়, জনগণকে মৃত্যুর মুখে ঠেলে দেওয়া এবং বিভিন্ন হয়রানিমূলক কর্মকাণ্ডের বিরুদ্ধে ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন করোনার ভয়াবহতা বৃদ্ধি এবং ব্যাপক মাত্রায় চিকিৎসা সংকট দেখা দেয়ায় এ অবস্থার ভয়ঙ্কর অবনতি আশঙ্কা করা যাচ্ছে।

বিবৃতিতে চলমান লকডাউনে শ্রমজীবী মানুষকে হয়রানি বন্ধ ও পর্যাপ্ত খাদ্য ও চিকিৎসা নিশ্চিত করার দাবিসহ ৫ দফা দাবি জানানো হয়েছে।

আজ শুক্রবার (৯ জুলাই ২০২১) সাম্রাজ্যবাদ বিরোধী ছাত্র ঐক্যের পক্ষে বিবৃতিটি প্রদান করেন বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশনের সভাপতি মিতু সরকার, বিপ্লবী ছাত্র-যুব আন্দোলন’র সভাপতি
আতিফ অনিক’, পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ(পিসিপি)-এর সভাপতি  সুনয়ন চাকমা ও  ছাত্র গণমঞ্চ’র সভাপতি সাঈদ বিলাস।

বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ বলেন, জনগণের ভোটবিহীন এক ফ্যাসিবাদী সরকার শুরু থেকেই করোনা মোকাবেলার জন্য সত্যিকার কোন পদক্ষেপ বা পরিকল্পনা হাতে নেয়নি। বরঞ্চ করোনার মধ্যেও স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের ব্যাপক দুর্নীতি প্রকাশ পেয়েছে। জনগণের কোন দায়িত্ব না নেওয়ায় জনগণ এই মহামারীতে অসহায় হয়ে পড়েছে। চিকিৎসার অভাবে, খাদ্যের অভাবে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে বহু মানুষ প্রাণ হারাচ্ছে।

তারা বলেন, চরম লুটপাট, দুর্নীতি, গণবিরোধী কর্মকাণ্ড এবং ভুলভাল সিদ্ধান্তের মাধ্যমে
প্রমাণ করেছে কোভিড মোকাবেলায় সরকার পুরোপুরি ব্যর্থ । ফলে এখানকার চিকিৎসা ব্যবস্থা, শিক্ষাব্যবস্থা ধ্বংসের মুখে ঠেলে দিয়েছে। তাদের এই  দুর্নীতি ও ব্যর্থতা ঢাকতেই রাষ্ট্রীয় বিভিন্ন বাহিনীর মাধ্যমে ফ্যাসিবাদী কায়দায় ভয় দেখিয়ে জনগণের উপর চড়াও হয়েছে।

নেতৃবৃন্দ বলেন, দীর্ঘদিন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় হাজার হাজার শিক্ষার্থীর শিক্ষা জীবন যেমন ধ্বংস হয়েছে সেই সাথে গার্মেন্টস ও শিল্প- কলকারখানাগুলো লকডাউনের মধ্যেও  চালু  রাখায় লক্ষ লক্ষ শ্রমিকের জীবন আজ হুমকির মুখে পড়েছে।যখন খাদ্য এবং চিকিৎসা সংকট তীব্র আকার ধারণ করেছে তখন কঠোর লকডাউনের নামে রাষ্ট্রের বিভিন্ন বাহিনী লক্ষ লক্ষ টাকা জরিমানা করে, কাজ কেড়ে নিয়ে, রিক্সা শ্রমিকদের (ব্যাটারি চালিত রিক্সা বন্ধ করে) শারীরিক, মানসিক নির্যাতন করে চলেছে। সেই সাথে প্রতিদিন শত শত মানুষকে তুলে নিয়ে গ্রেফতার করে মামলা দেয়ার মত ফ্যাসিবাদী কর্মকাণ্ড অব্যাহত রেখেছে।

সরকারকে হুঁশিয়ারি দিয়ে নেতৃবৃন্দ বলেন, অবিলম্বে  জনগণের উপর নিপীড়নমূলক সকল কর্মকাণ্ড বন্ধ করতে হবে। শ্রমজীবী জনগণের জন্য পর্যাপ্ত খাদ্য ও সকল জনগণের চিকিৎসা নিশ্চিত করতে হবে।

নেতৃবৃন্দ আরো বলেন,এই ফ্যাসিবাদী সরকার জনগণের জীবনের কোন তোয়াক্কা করছে না, করবে না। তাই ফ্যাসিবাদের বিরুদ্ধে দেশের জনগন এবং ছাত্র সমাজকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহবান জানান।

বিবৃতিতে ৫ দফা দাবি জানানো হয়েছে। দাবিগুলো হলো:
 ১) লকডাউনে গ্রেফতার, মামলা, জরিমানা এবং শারীরিক নির্যাতনসহ সকল প্রকার হয়রানিমূলক কর্মকাণ্ড বন্ধ করতে হবে।

২) শ্রমজীবী জনগণের জন্য পর্যাপ্ত খাদ্য নিশ্চিত করতে হবে।

৩) সারাদেশে অক্সিজেন সংকটসহ সকল প্রকার চিকিৎসা সংকট অবিলম্বে দূর করতে হবে।

৪) অনতিবিলম্বে সারাদেশে পর্যাপ্ত ফিল্ড হাসপাতাল তৈরি করে সেবা প্রদান করতে হবে।

৫) সারাদেশে বিনামূল্যে এবং সহজ পদ্ধতিতে করোনা পরীক্ষার ব্যবস্থা করতে হবে এবং সকলের জন্য দ্রুত করোনা ভ্যাকসিন নিশ্চিত করতে হবে।


সিএইচটি নিউজে প্রকাশিত প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ,ভিডিও, কনটেন্ট ব্যবহার করতে হলে কপিরাইট আইন অনুসরণ করে ব্যবহার করুন।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.