লক্ষ্মীছড়িতে খবর সংগ্রহে সাংবাদিকদের বাধা দিয়েছে সেনাবাহিনী, বাজার বয়কট অব্যাহত

0
0
# বয়কটের কারণে বাজারটি ছিল জনশূণ্য
# বয়কটের কারণে বাজারটি ছিল জনশূণ্য।

লক্ষ্মীছড়ি(খাগড়াছড়ি) প্রতিনিধি : উপজেলার সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে খবর সংগ্রহ করতে এসে সেনাবাহিনীর বাধার মুখে পড়েন খাগড়াছড়ি থেকে আসা সাংবাদিকরা। আজ রবিবার ( ৮ জানুয়ারি ২০১৭) এই ঘটনা ঘটে।

উপজেলা চেয়ারম্যান সুপার জ্যোতি চাকমাকে গ্রেফতার পরবর্তী শান্তিপূর্ণ মিছিল-সমাবেশে হামলা এবং এর প্রতিবাদে বাজার বয়কটসহ সার্বিক পরিস্থিতির খবরা-খবর সংগ্রহে খাগড়াছড়ি থেকে দৈনিক আমার কাগজের প্রতিনিধি আল মামুন, ৭১ টিভির প্রতিনিধি বিপ্লব তালুকদার, বিডিনিউজ২৪ ডটকম’র প্রতিনিধি সাথোয়াই মারমা, দৈনিক সংগ্রাম-এর প্রতিনিধি আজাহার আলী, ইত্তেফাক’র প্রতিনিধি মিল্টন চাকমাসহ একদল সাংবাদিক লক্ষ্মীছড়িতে আসেন। পৌঁছার পরপরই তারা সেনাবাহিনীর বাধার মুখে পড়েন। সেনারা তাদেরকে বিভিন্নভাবে হেনস্থা করেন এবং কারোর সাথে কথাবার্তা বলা ও ঘুরতে বাধা দেন। সেনারা সাংবাদিকদের ‘যেখান থেকে এসেছেন সেখানে ফেরত যান, কোন নিউজ করা যাবে না’ বলে হুমকি প্রদান করেন। ফলে লক্ষ্মীছড়ির সার্বিক বিষয়ে তারা কোন খবর সংগ্রহ করতে পারেননি।

এদিকে, সেনাবাহিনী কর্তৃক মিথ্যা নাটক সাজিয়ে অন্যায়ভাবে আটক উপজেলা চেয়ারম্যান সুপার জ্যোতি চাকমার নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে গত ৩ জানুয়ারি লক্ষ্মীছড়িতে চার সংগঠনের আয়োজিত শান্তিপূর্ণ মিছিল-সমাবেশে সেনা-সেটলার হামলার প্রতিবাদে উপজেলা সদরের একমাত্র বাজারটি গত ৪ জানুয়ারি ২০১৭ হাটবারের দিন থেকে বয়কট অব্যাহত রয়েছে।

আজ রবিবার বাজারের মূল হাটবারেও পাহাড়ি জনগণ বাজারে না আসায় প্রায় জনশূণ্য অবস্থায় ছিল বাজারটি। বন্ধ ছিল যানবাহন চলাচলও। উপজেলা চেয়ারম্যান সুপার জ্যোতি চাকমাকে মুক্তি ও হামলাকারী সেনা-সেটলারদের গ্রেফতার ও শাস্তি না হওয়া পর্যন্ত বাজার বয়কট অব্যাহত থাকবে বলে এলাকার লোকজন জানিয়েছেন।

উল্লেখ্য, গত ১ জানুয়ারি দিবাগত রাত ২টায় লক্ষ্মীছড়ি জোনের সেনারা উপজেলা চেয়ারম্যান সুপার জ্যোতি চাকমাকে তার সরকারি বাসভবনের দরজা ভেঙে ‘অস্ত্র উদ্ধার’ নাটক সাজিয়ে আটক করে ও নির্যাতন চালায়। এরপর থানায় হস্তান্তর করে মিথ্যা ও সাজানো অস্ত্র মামলায় তাকে জেল হাজতে পাঠানো হয়।

এদিকে সুপার জ্যোতি চাকমাকে গ্রেফতারের প্রতিবাদে ও তার মুক্তির দাবিতে ৩ জানুয়ারি লক্ষ্মীছড়ি সচেতন নাগরিক সমাজসহ চারটি সংগঠন বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ আয়োজন করলে সেনা-সেটলাররা উক্ত মিছিল-সমাবেশে অংশগ্রহণকারীদের উপর নির্বিচার হামলা চালায়। এই হামলার প্রতিবাদে ৪ জানুয়ারি খাগড়াছড়ি পুরো জেলায় সড়ক অবরোধ পালন করা হয় এবং অনির্দিষ্টকালের জন্য লক্ষ্মীছড়ি বাজার বয়কটের ডাক দেওয়া হয়।

——————

সিএইচটি নিউজ ডটকম’র প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ব্যবহারের প্রয়োজন দেখা দিলে যথাযথ সূত্র উল্লেখপূর্বক ব্যবহার করুন।


Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.