উপজেলা চেয়ারম্যান সুপার জ্যোতি চাকমাকে গ্রেফতারের প্রতিবাদে

লক্ষ্মীছড়িতে সড়ক অবরোধ, সরকারী-বেসরকারি অফিস বয়কটসহ বিভিন্ন কর্মসূচি পালিত

0
2
# উপজেলা চেয়ারম্যান সুপার জ্যোতির মুক্তির দাবিতে বন্ধ ছিল সরকারি-বেসরকারি অফিসের কার্যক্রম
# উপজেলা চেয়ারম্যান সুপার জ্যোতিকে গ্রেফতারের প্রতিবাদে বন্ধ রাখা হয় সরকারি-বেসরকারি অফিসের কার্যক্রম।

লক্ষ্মীছড়ি:  উপজেলা চেয়ারম্যান সুপার জ্যোতি চাকমাকে সেনাবাহিনী কর্তৃক গ্রেফতারের প্রতিবাদে ও তাঁর নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে আজ সোমবার (২ জানুয়ারি ২০১৭) লক্ষ্মীছড়িতে অর্ধদিবস সড়ক অবরোধ, সরকারী-বেসরকারি অফিসের দাপ্তরিক কার্যক্রম বয়কট, স্কুল-কলেজ সহ সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বই বিতরণসহ বিভিন্ন অনুষ্ঠান ও ক্লাশ বর্জন কর্মসূচি পালিত হয়েছে।

আজ সকালে লক্ষ্মীছড়ি উপজেলা পরিষদসহ তিন ইউনিয়নের নির্বাচিত চেয়ারম্যান-মেম্বারগণ ও উপজেলার গণ্যমান্য ব্যক্তিরা এক সভা আয়োজনের মাধ্যমে উপরোক্ত কর্মসূচি পালনের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে।

এছাড়া সভায় আগামীকাল ৩ জানুয়ারি থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য উপজেলা পরিষদ ও ইউনিয়ন পরিষদে সকল দাপ্তরিক কার্যক্রম বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে বলে দুল্যাতলী ইউপি চেয়ারম্যান ত্রিলন চাকমা সাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।

উক্ত প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে অস্ত্র উদ্ধারের নাটক সাজিয়ে সরকারি বাসভবনের দরজা ভেঙ্গে উপজেলা চেয়ারম্যান সুপার জ্যোতি চাকমাকে গ্রেফতার করে ক্যাম্পে নিয়ে গিয়ে অমানুষিক নির্যাতন চালানো হয়েছে বলে অভিযোগ করা হয়েছে।

প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে আশঙ্কা প্রকাশ করে বলা হয়, একজন নির্বাচিত উপজেলা চেয়ারম্যানকে যদি এমন নির্যাতন করা হয় তাহলে অন্যান্য জনপ্রতিনিধিদের ক্ষেত্রেও তাই হতে পারে। এমতাবস্থায় তাদের অর্পিত দায়িত্ব স্বাভাবিকভাবে পালনের ক্ষেত্রে বাধাগ্রস্ত হতে পারে।

প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে সেনাবাহিনীর এ ধরনের অন্যায় কার্যক্রমকে সম্পূর্ণ বেআইনী ও মানবাধিকার লঙ্ঘন বলে উল্লেখ করা হয়।

উল্লেখ্য, রবিবার দিবাগত রাত ২টায় সরকারি বাসভবন থেকে ‘অস্ত্র উদ্ধার’ নাটক সাজিয়ে উপজেলা চেয়ারম্যান সুপার জ্যোতি চাকমাকে গ্রেফতার করে সেনাবাহিনী। গ্রেফতারের পর তাকে জোনে নিয়ে গিয়ে অমানুষিক নির্যাতন চালানোর পর সোমবার সকালে থানায় হস্তান্তরের মাধ্যমে মিথ্যা অস্ত্র মামলা দিয়ে খাগড়াছড়ি আদালতে পাঠানো হয়। আদালত তার জামিন নামঞ্জুর করে জেল হাজতে পাঠিয়ে দেয়।
—————

সিএইচটি নিউজ ডটকম’র প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ব্যবহারের প্রয়োজন দেখা দিলে যথাযথ সূত্র উল্লেখপূর্বক ব্যবহার করুন।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.